তুরস্কে বাংলাদেশি স্টুডেন্ট’স কমিউনিটির সভাপতি মোবাশ্বেরা, সম্পাদক মাহমুদ

১৮ জানুয়ারি ২০২৩, ০৪:৪৪ পিএম | আপডেট: ২৮ জানুয়ারি ২০২৩, ০৭:০৩ এএম


তুরস্কে বাংলাদেশি স্টুডেন্ট’স কমিউনিটির সভাপতি মোবাশ্বেরা, সম্পাদক মাহমুদ

বিগত এক যুগ ধরে তুরস্কে বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের প্রতিনিধিত্বকারী সংগঠন অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশি স্টুডেন্ট’স ইন তুর্কীয়ে (অ্যাবাস্ট)-এর কমিটি গঠন সম্পন্ন হলো।

মোবাশ্বেরা জাহান ফাতিমাকে সভাপতি, আব্দুল্লাহ আল মাহমুদকে সেক্রেটারি ও মেহেদী হাসানকে সাংগঠনিক সম্পাদক ঘোষণা করে ১০০ সদস্যবিশিষ্ট কমিটি ও সিটি অ্যাম্বাসেডর টিম অনুমোদন দেওয়া হয়।

ইস্তানবুলে অবস্থিত ঢাকা লাউঞ্জ ক্যাফে রেস্টুরেন্ট এন্ড কালচারাল সেন্টারে অ্যাবাস্টের উপদেষ্টামণ্ডলীর পক্ষ থেকে অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রফেসর ও এশিয়া অ্যান্ড ইন্দো প্যাসিফিক স্টাডিজের তুরস্কে প্রধান নাজমুল ইসলাম উক্ত কমিটির অনুমোদন দেন। কমিটি গঠন অনুষ্ঠানে উপদেষ্টামণ্ডলীর মধ্য থেকে আরও উপস্থিত ছিলেন ইস্তানবুল জাইম ইউনিভার্সিটির অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রফেসর মাজহারুল ইসলাম রবিন, কবি নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রফেসর ওয়ালিউল্লাহ, পিএইচডি গবেষক মিনহাজুল আবেদিন, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও অটোমান গ্রুপের সিইও শিহাব আহমেদসহ প্রমুখ।

আনকারা বিশ্ববিদ্যালয়ে সাংবাদিকতা বিভাগে পিএইচডি গবেষণারত মেধাবী ছাত্রী ও অ্যাবাস্টের সভাপতি মোবাশ্বেরা জাহান ফাতিমা বাংলাদেশের চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে কৃতিত্বের সঙ্গে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রি সম্পন্ন করেন। পটুয়াখালীর সন্তান ও অ্যাবাস্টের সেক্রেটারি আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ তুরস্ক সরকারের প্রেস্টিজিয়াস বৃত্তি প্রকল্পের অধীনে স্নাতক সম্পন্ন করে তুরস্কের দুজজে ইউনিভার্সিটিতে ইন্ট্যারন্যাশনাল ট্রেড অ্যান্ড ফিনান্স বিভাগে স্নাতকোত্তরে অধ্যয়ন করছেন। সাংগঠনিক সম্পাদক মেহেদী হাসান তুর্কীয়ে বুরসলারি স্কলারশিপের অধীনে ডিপার্টমেন্টে প্রথম হওয়ার কৃতিত্ব নিয়ে স্নাতক সম্পন্ন করে বর্তমানে মারমারা বিশ্ববিদ্যালয়ে মার্কেটিং বিভাগে স্নাতকোত্তর করছেন।

প্রতিষ্ঠার পর থেকে এ যাবৎ পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের ক্যারিয়ার উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে এ সংগঠনটি। বিদেশের বুকে বাংলা ভাষার চর্চা ধরে রাখতে ও বহির্বিশ্বে তুরস্কে অবস্থানরত বাংলাদেশিদের অবস্থান জানান দিতে সংগঠনটির পক্ষ থেকে ‘আনাতোলিয়া’ নামে অনলাইন সাময়িকী প্রকাশ করা হয়। বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের তুরস্কে উচ্চশিক্ষার ব্যাপারে বিস্তারিত গাইডলাইন দিয়ে যাচ্ছে অ্যাবাস্ট। নব মনোনীত সভাপতি বলেন, বিগত দিনে বাংলাদেশ ও তুরস্কের সেতুবন্ধনে অ্যাবাস্ট যেই ভূমিকা পালন করেছে তার ধারাবাহিকতা ধরে রাখার পাশাপাশি আরও সৃজনশীল উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে।

শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে সেক্রেটারি আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ বলেন, বিদেশের মাটিতে বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের সকল ধরনের সমস্যা সমাধানে অ্যাবাস্ট পাশে থাকবে।

উল্লেখ্য, ২০১২ সালের গোড়ার দিকে তুরস্কে অধ্যয়নরত বাংলাদেশি সিনিয়র শিক্ষার্থী ও দূতাবাসে কর্মরত সিনিয়র নাগরিকরা এ রকম একটি প্লাটফর্ম তৈরির উদ্যোগ নেন। সেখান থেকেই মূলত তুরস্কে একমাত্র প্রথম বাংলাদেশি কমিউনিটি হিসেবে অ্যাবাস্টের যাত্রা শুরু হয়। তুরস্কের রাজধানী আনকারার একটি পাঁচ তারকা হোটেলে সর্বাধিক বাংলাদেশিদের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত হয় প্রতিষ্ঠাকালীন অনুষ্ঠান।

এমএমএ/


বিভাগ : প্রবাস