বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব

শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনায় শেষ আখেরি মোনাজাত

১৫ জানুয়ারি ২০২৩, ১০:২৯ এএম | আপডেট: ২৮ জানুয়ারি ২০২৩, ০২:৫৮ এএম


শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনায় শেষ আখেরি মোনাজাত

গাজীপুর টঙ্গীর তুরাগ নদের তীরে আয়োজিত বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হলো।

রবিবার (১৫ জানুয়ারি) সকাল ১০টা ১৮ মিনিটের দিকে এ মোনাজাত শেষ হয়। আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করেন কাকরাইল মসজিদের ইমাম ও তাবলিগ জামাতের মুরব্বি মাওলানা মুহাম্মদ জুবায়ের আহমেদ।

এর আগে সকাল ৯টা ৫৭ মিনিটে এ মোনাজাত শুরু হয়। বিশ্ব ইজতেমার আখেরি মোনাজাতে অংশ নিতে দেশের নানা প্রান্ত ও বিভিন্ন দেশ থেকে মুসল্লিরা ইজতেমা ময়দানে আসেন। শীত উপেক্ষা করে চটের ছাউনির নিচে অবস্থান নেন তারা। রবিবার ঢাকার আশেপাশের অনেক মুসল্লি ভোর ৪টা থেকে মোনাজাতে অংশ নিতে ইজতেমায় ছুটে আসেন। অনেক মুসল্লি পায়ে হেঁটে ইজতেমা ময়দানে গিয়ে ফজরের নামাজ আদায় করেন। ইজতেমা ময়দানের আশেপাশের সড়কেও মানুষের ঢল নামে। সড়কেই বসে তারা মোনাজাতে অংশ নেন। মোনাজাতে মুসলিম উম্মার শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করা হয়। আত্মশুদ্ধি, নিজ নিজ গুনাহ মাফ, সব বালা-মুসিবত থেকে হেফাজত ও রহমত প্রার্থনা এবং আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভের আশায় লাখো মুসুল্লি আকুতি জানান।

আখেরি মোনাজাতে নিরাপত্তার বিষয়ে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ (জিএমপি) কমিশনার মোল্ল্যা নজরুল ইসলাম বলেন, সাদা পোশাকে পুলিশ মোতায়েনসহ ১০ হাজার পুলিশ ইজতেমা ময়দানসহ আশপাশের এলাকায় রয়েছেন।খুব দ্রুত ও নিরাপদে মুসল্লিরা যেন ময়দান ত্যাগ করতে পারেন সে জন্য বাস, ট্রেনসহ সব ধরনের যানবাহনের ব্যবস্থা রয়েছে।

ইজতেমার আখেরি মোনাজাত উপলক্ষে পাঁচটি স্পেশাল ট্রেন পরিচালনা করে বাংলাদেশ রেলওয়ে। সেই সঙ্গে আখেরি মোনাজাত উপলক্ষে ঢাকা ছেড়ে যাওয়া ও ঢাকায় প্রবেশের সময় সব ট্রেন টঙ্গী রেলস্টেশনে থামে। এ ছাড়া আখেরি মোনাজাত উপলক্ষে ‘মোনাজাত স্পেশাল’ নামের বিশেষ ট্রেন পরিচালিত হয়।

ইজতেমার আখেরি মোনাজাতকে ঘিরে শনিবার মধ্যরাত থেকে গাজীপুরের কয়েকটি রুটে যান চলাচল বন্ধ রাখা হয়। গাজীপুর মহানগর পুলিশ কমিশনার মোল্যা নজরুল ইসলাম বলেন, ইজতেমার প্রথম পর্বের শেষদিন আখেরি মোনাজাতে মুসল্লিদের অংশগ্রহণ নির্বিঘ্ন করতে আবদুল্লাহপুর হয়ে গাজীপুর চৌরাস্তা পর্যন্ত সড়ক বন্ধ থাকবে। একই কারণে কামারপাড়া থেকে আশুলিয়া পর্যন্ত সড়কের দুই দিক এবং টঙ্গী স্টেশন রোড থেকে পূবাইল পর্যন্ত সড়কেও যান চলাচল বন্ধ থাকবে। নির্বিঘ্নে চলাচলের জন্য যাতে কারও সমস্যা না হয় সে কারণে টঙ্গি ব্রিজের এখানে আমরা গাড়ি নিয়ন্ত্রণ রাখবে পুলিশ।

এরআগে শুক্রবার (১৩ জানুয়ারি) আম বয়ানের মধ্য দিয়ে প্রথম পর্বের বিশ্ব ইজতেমা শুরু হয়। শনিবার এই পর্বের দ্বিতীয় দিন। রবিবার আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে প্রথম পর্বের বিশ্ব ইজতেমা শেষ হলো। চার দিন বিরতির পর আগামী ২০ জানুয়ারি দ্বিতীয় পর্বের বিশ্ব ইজতেমা শুরু হবে। আগামী ২২ জানুয়ারি প্রথম প্রহরে আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে দ্বিতীয় পর্বের বিশ্ব ইজতেমার সমাপ্তি হবে।

আরএ/


বিভাগ : ধর্ম