পেশা ড্রাইভিং, আড়ালে তার মাদকের কারবার

২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৫:০৮ পিএম | আপডেট: ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৪:১২ পিএম


পেশা ড্রাইভিং, আড়ালে তার মাদকের কারবার

পেশা মাইক্রোবাস ড্রাইভিং, আড়ালে চলে রমরমা মাদকের কারবার। এরকম ২ মাদক কারবারীকে আটক করেছে র‌্যাব। ফেনীর মহিপাল এলাকায় ২৩ সেপ্টেম্বর শুক্রবার ভোরে অভিযান চালিয়ে ২০ কেজি গাঁজাসহ তাদের আটক করা হয়। এ সময় মাদক পরিবহনে ব্যবহৃত নোহা মাইক্রোবাস জব্দ করা হয়।

র‌্যাব-৭, ফেনী ক্যাম্প জানায়, গোপন সংবাদের মাধ্যমে জানতে পারে কতিপয় মাদক কারবারী নোহা মাইক্রোবাস যোগে মাদক নিয়ে কুমিল্লা থেকে চট্টগ্রাম নিয়ে যাচ্ছে। র‌্যাবের একটি দল ঢাকা-চট্টগ্রামগামী মহাসড়কের ফেনীর মহিপাল সংলগ্ন হাজী নজির আহম্মদ এলপিজি এন্ড ফিলিং স্টেশনের সামনে পাকা রাস্তার উপর চেকপোষ্ট স্থাপন করে গাড়ী তল্লাশী শুরু করে।

এ সময় র‌্যাবের চেকপোস্টের দিকে আসা একটি নোহা মাইক্রোবাসের গতিবিধি সন্দেহজনক মনে হলে র‌্যাব সদস্যরা নোহা মাইক্রোবাসটিকে থামানোর সংকেত দেয়। মাইক্রোবাসটি না থামিয়ে দ্রুত গতিতে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। র‌্যাব সদস্যরা ধাওয়া করে গাড়ীসহ কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার কড়ইবন মোদী বাড়ির মো. বুলু মিয়ার ছেলে মো. সোহেল রানা (৩৮), নাঙ্গলকোটের হানগরা গ্রামের মো. ওহিদুর রহমানের ছেলে মো. ইসমাইল হোসেন (২৬) কে আটক করে।

আটককৃতদের জিজ্ঞাসাবাদ ও তল্লাশী করে গাড়ীর পিছনে যাত্রী বসার সিটের উপরে থেকে দুইটি সাদা প্লাস্টিকের বস্তার থেকে ২০ কেজি গাঁজা উদ্ধার করা হয়। গাড়ীটি জব্দ করা হয়। উদ্ধারকৃত মাদককের আনুমানিক মূল্য ৩ লাখ টাকা।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটককৃতরা জানায়, তাঁরা পরস্পর যোগসাজসে ড্রাইভিং পেশার আড়ালে, দীর্ঘদিন যাবৎ সুকৌশলে মাদকদ্রব্য গাঁজা কুমিল্লার সীমান্তবর্তী এলাকা থেকে স্বল্প মূল্যে ক্রয় ও গাড়ীযোগে বহন করে ফেনী, চট্টগ্রামসহ আশপাশের জেলার বিভিন্ন মাদক ব্যবসায়ী ও মাদক সেবনকারীদের নিকট অধিক মূল্যে বিক্রয় করে আসছে।

ফেনীস্থ র‌্যাবের কোম্পানি অধিনায়ক স্কোয়াড্রন লীডার মোহাম্মদ সাদেকুল ইসলাম জানান, আটককৃতদের ও উদ্ধারকৃত গাঁজা আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ফেনী মডেল থানায় হস্তান্তর করা হবে।
এএজেড


বিভাগ : সারাদেশ