বাজারে অসময়ের ধনিয়া পাতা, কেজি ৪০০

২২ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৪:২৪ পিএম | আপডেট: ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৬:২০ এএম


বাজারে অসময়ের ধনিয়া পাতা, কেজি ৪০০

সালাদ, ভর্তা ও তরকারিতে ধনিয়া পাতার জুড়ি নেই। শীতকালীন এই সবজি বাজারে উঠতে কিছুদিন বাকি থাকলেও অনেকটা আগেভাগেই দিনাজপুরের হিলির বাজারে উঠতে শুরু করেছে ধনিয়া পাতা। বাজারে ধনিয়া পাতা মিললেও বিক্রি হচ্ছে ৪০০ টাকা কেজি দরে।

বেশি দামের কারণে না কিনেই বাড়ি ফিরতে হচ্ছে নিম্নআয়ের মানুষদের। তবে কেউ কেউ অল্প পরিমাণে কিনছেন বলে জানান বিক্রেতারা। বৃহস্পতিবার (২২ সেপ্টেম্বর) হিলির বাজার ঘুরে এ চিত্র দেখা গেছে।

হিলি বাজারে ধনিয়ার পাতা কিনতে আসা মেহেদুল ইসলাম বলেন, বিভিন্ন তরকারি ও ভর্তার সঙ্গে ধনিয়ার পাতা দিয়ে খেতে দারুণ লাগে। বেশ কিছুদিন ধরে বাজারে ধনিয়ার পাতা খুঁজছিলাম কিন্তু পাচ্ছিলাম না। আজ বাজারে সবজি কিনতে এসে ধনিয়ার পাতা দেখলাম। তবে কেজি ৪০০ টাকা হওয়ায় নতুন এই সবজির স্বাদ নিতে একশ' গ্রাম ৪০ টাকায় নিলাম।

মোজাফফর রহমান নামে আরেক ক্রেতা বলেন, সাধারণত শীতকালীন সময়ে ধনিয়ার পাতা বাজারে পাওয়া যায়। তখন দাম ১০০ টাকার মধ্যে থাকে। কিন্তু আজ বাজারে ধনিয়ার পাতা দেখে নিতে চেয়েছিলাম। কিন্তু ৪০০ টাকা কেজিতে বিক্রি হওয়ায় স্বাদ নেওয়ার ইচ্ছা থাকলেও বাড়তি দামের কারণে কেনা সম্ভব হলো না। তাই সামনে শীত আসছে তখন কিনব।

সবজি বিক্রেতা সোহেল রানা বলেন, ধনিয়ার পাতা সাধারণত শীতকালীন সময়ে বাজারে আসে। এ কারণে বাজারে ধনিয়ার পাতা আসতে আরও কিছুদিন সময় লাগবে। কিন্তু এখন অনেক এলাকায় কৃষকরা বাড়তি দামের আশায় অসময়ে এই ধনিয়ার পাতা আবাদ করছেন। ইতোমধ্যেই পার্শ্ববর্তী পাঁচবিবি অঞ্চলের কৃষকদের ধনিয়ার পাতা বাজারে উঠতে শুরু করেছে। চাহিদা থাকায় ধনিয়ার পাতা মোকাম থেকে কিনে হিলি বাজারে বিক্রি করছি। ৩০০ টাকা কেজিতে আমাদের কিনতে হচ্ছে। পরিবহন খরচসহ সব কিছু মিলিয়ে ৪০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি করছি।

তিনি আরও বলেন, অনেকেই বেশি দামের কারণে ধনিয়ার পাতা না কিনেই বাড়ি ফিরে যাচ্ছেন। আবার অনেকেই অল্প পরিমাণে কিনছেন। তবে আর কিছুদিন পর যখন সব অঞ্চলের কৃষকদের ধনিয়ার পাতা উঠতে শুরু করবে তখন বাজারে সররবাহ বাড়বে এবং দাম কমে আসবে।

এসজি


বিভাগ : সারাদেশ