ইবিতে ঐতিহ্যবাহী লাঠিখেলা অনুষ্ঠিত

০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ০৭:২১ পিএম | আপডেট: ২৬ জানুয়ারি ২০২৩, ১১:২৯ পিএম


ইবিতে ঐতিহ্যবাহী লাঠিখেলা অনুষ্ঠিত

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) বিলুপ্তপ্রায় গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী লাঠি খেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। আধুনিক সভ্যতার আড়ালে হারিয়ে যাওয়া বাংলার ঐতিহ্যকে বর্তমান প্রজন্মের সামনে তুলে ধরতে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এ খেলার আয়োজন করে।

আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় হ্যান্ডবল ও ভলিবল প্রতিযোগিতা ২০২২ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে শনিবার দুপুর ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ফুটবল মাঠে এ খেলা অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশ লাঠিয়াল বাহিনী কুষ্টিয়া দফতরের লাঠি কৌশলীরা এ খেলায় অংশ নেন বলে জানা গেছে।

ঐতিহ্যবাহী এ খেলা দেখতে ক্যাম্পাসের পার্শ্ববর্তী দুই জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারীরা ভীড় জমায়।

ঢোলের তালে তালে নেচে প্রতিপক্ষের আঘাত পাল্টা আঘাত মোকাবেলা আর টানটান উত্তেজনা ছিল খেলার শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত। লাঠি খেলায় উপচে পড়া ভিড় লক্ষ্য করা যায়।

মাঠে উপস্থিত থেকে পুরো খেলা উপভোগ করেন উপাচার্য অধ্যাপক ড. শেখ আবদুস সালাম, উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. মাহবুবুর রহমান, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. আলমগীর হোসেন ভূঁইয়া, রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) এ এইচ এম আলী হাসান, ছাত্র উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. শেলীনা নাসরিন, শারীরিক শিক্ষা বিভাগের পরিচালক ড. মোহাম্মদ সোহেল প্রমুখ।

বাংলাদেশ লাঠিয়াল বাহিনী কুষ্টিয়া দপ্তরের টিম পরিচালক মিজানুর রহমান বলেন, ঐতিহ্যবাহী এ খেলাটি দিন দিন হারিয়ে যাচ্ছে। এ ঐতিহ্যটি ফিরিয়ে আনতে আমরা লাঠিয়াল বাহিনী গড়ে তুলেছি। সরকারী অনুদান ও পৃষ্ঠপোষকতা পেলে খেলাটি আরোও জনপ্রিয়তা করে তুলতাম। খেলাটি জাতীয়করণ এখন সময়ের দাবি।

উল্লেখ্য, এর আগে বেলুন উড়িয়ে প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন ইবি উপাচার্য। অনুষ্ঠান শেষে প্রথম খেলায় হ্যান্ডবল (ছাত্র)-এ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ২৪-১৪ গোলে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়কে পরাজিত করে। সাতটি পুরুষ দল ও ছয়টি নারীদল প্রতিযোগিতার হ্যান্ডবল ক্যাটাগরিতে অংশ নিচ্ছে। এছাড়া ১৮ ডিসেম্বর থেকে ভলিবল প্রতিযোগিতা শুরু হবে।
এএজেড


বিভাগ : ক্যাম্পাস