শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪ | ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
Dhaka Prokash

পড়তে বসলেই ঘুম আসে কেন

সামনেই আপনার পরীক্ষা। পড়তে হবে অনেক্ষণ কিন্ত বাধ সাধলো ঘুম। পড়তে বসলেই ঘুম পায় । রাজ্যের ক্লান্তি যেন ভর করে শরীরে।

এই সমস্যা প্রায় সবার। অনেকেই হয়তো ভাবেন, কাল থেকে পড়া শুরু করবেন, অনেক্ষণ পড়বেন কিন্ত কিছুক্ষণ পর দেখা যায় পড়বেন তো দূরের কথা, আপনিই বইয়ের উপরে ঘুমিয়ে পড়েছেন। ফলে আগামীকাল আপনাকে নিশ্চিত ক্লাসে দাঁড়িয়ে থাকতে হবে নয়তো পরীক্ষায় খারাপ রেজাল্ট হবে।
চলুন আজ আমরা জানব পড়তে বসলেই ঘুম আসার কারণ ও তা প্রতিরোধের কর্যকরি উপায়।

গবেষণা বলছে, আমরা যখন পড়তে শুরু করি তখন চোখ সবসময় বইয়ের পাতার দিকে নিবদ্ধ রাখতে হয়। প্রতি মুহূর্তে চোখকে বাম থেকে ডানে এবং ডান থেকে বামে ঘোরাতে হয়। মস্তিষ্কে শব্দ, বাক্য কিংবা অনুচ্ছেদ্গুলো জমা রাখতে হয়। শব্দগুলোর অর্থ অনুধাবন করতে হয়। পাঠ্যবুস্তক পড়ার সময় এই বাড়তি চাপগুলো একটি চ্যালেঞ্চ। এভাবে কার্য সম্পাদন করতে গিয়ে মস্তিষ্ক দ্রুত হাঁপিয়ে ওঠে। তখন চোখ ও মস্তিষ্ক উভয়েরই বিশ্রামের প্রয়োজন পড়ে। তাইতো ধীরে ধীরে চোখের পাতা ভারি হয়ে আসে এবং মস্তিষ্কে ঘুমের প্রয়োজনীয়তা উপলব্ধ হতে থাকে।

আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে, অনেকেই পড়ার সময় একটি আরামদায়ক পরিবেশ তৈরি করে নিতে চায়। কেউ শুয়ে শুয়ে পড়ে নয়তো বিশ্রামের ভঙ্গিতে শরীর এলিয়ে দিয়ে পড়ে। তখন এমন আরামদায়ক পরিস্থিতিতে মস্তিষ্ক ধরেই নেয় এখন সময় কেবল বিশ্রামের। ফলে ঘুমিয়ে পড়ে।

এই ঘুমের কারণে অনেকের গোটা ক্যারিয়ের বরবাদ হয়ে যাচ্ছে। পরদিন পরীক্ষা, এখনো সিলেবাসের অর্ধেক বাকি। অথচ ঘুমের কারণে পড়া শেষ করা সম্ভব হলো না। এভাবেই সব তালগোল পাকিয়ে পরীক্ষার হলে গুটিয়ে বসে থাকে।

চলুন জেনে নেই এই পরিস্থিতি থেকে মুক্তির উপায়:

১। বিছানায় নয়, চেয়ারে বসে পড়ুন
২। জোরে জোরে পড়ুন
৩। পড়ার পাশাপাশি লিখবেন। এতে পড়া যেমন ভালো মনে থাকবে , ঘুমকেও তাড়ানো যাবে সহজে।
৪। অনেক আলো আছে এমন রুমে পড়তে বসুন
৫। গ্রুপ স্টাডি করুন
৬। চুইংগাম চিবান বা চা কফি পান করুন
৭। পড়ার আগে বা পড়ার সময় ভারি খাবার বর্জন করুন। ভারি খাবার শরীরে অলসতা আনে।
৮। আর্লি টু বেড, আর্লি টু রাইজ মেনে চলুন
৯। পড়ার মাঝে পানি পান করুন।

এসজে/এএস

Header Ad

সেপটিক ট্যাংক থেকে ৪০ হাজার ডলার উদ্ধার

ছবি: সংগৃহীত

ইলেকট্রিক মিস্ত্রির কাজ করতে গিয়ে ৪০ হাজার ডলার চুরি করে নিজ গ্রামে পালিয়ে গিয়েও বাঁচতে পারল না চোর। সেপটিক ট্যাংক থেকে সেই ডলার উদ্ধার করে পুলিশ।

শুক্রবার (২৪ মে) সকালে অভিযান চালিয়ে ভাঙ্গা পৌরসভার রায়পাড়া সদরদী গ্রামের চোর মেহেদী হাসান তামিম (২৭) এর বাড়ির সেপটিক ট্যাংক থেকে ডলারগুলো উদ্ধার করে থানা পুলিশ।

মেহেদী হাসান তামিম (২৭) সদরদী গ্রামের মৃত আলতাফ কাজীর ছেলে। এ ঘটনায় চোরের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে।

ভাঙ্গা থানার এসআই মনির হোসেন জানান, আসামি মেহেদী হাসান তামিম ঢাকায় ইলেকট্রিক মিস্ত্রির কাজ করতেন। বুধবার বসুন্ধরা গ্রুপের ইঞ্জিনিয়ার এসএম তৌহিদুজ্জামানের বাসায় বিদ্যুতের কাজ করতে যায় তামিম। কাজ করার এক ফাঁকে ইঞ্জিনিয়ারের ছোট ভাই অস্ট্রেলিয়া পাঠানোর জন্য বাসায় রাখা ছিল ৪০ হাজার ডলার, যা টাকার অংকে দাঁড়ায় প্রায় ৪৭ লাখ টাকা। তামিম কাজ করার ফাঁকে কৌশলে ৪০ হাজার ডলার নিয়ে গ্রামের বাড়ি ভাঙ্গায় পালিয়ে আসেন। পরে তৌহিদুজ্জামানের লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে শুক্রবার সকালে তামিমের বাড়ি রায়পাড়া অভিযান চালিয়ে মেহেদী হাসান তামিমকে আটক করা হয়। তার দেওয়া তথ্যমতে, বাড়ির সেপটিক ট্যাংকের মধ্যে লুকিয়ে রাখা ৩৬ হাজার ২০০ ডলার উদ্ধার করা হয়। আসামির বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

টাঙ্গাইলে আ.লীগ নেতার উপর হামলা ও গাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগ

ছবি : ঢাকাপ্রকাশ

টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে এমএ মালেক ভূইয়া নামে এক আওয়ামী লীগ নেতার উপর হামলা ও তার গাড়ি ভাঙচুর করার অভিযোগ উঠেছে নবনির্বাচিত উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শামীম আল মনসুর আজাদ সিদ্দিকীর লোকজনের বিরুদ্ধে।

এমএ মালেক ভূইয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও উপজেলার দশকিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান।

শুক্রবার (২৪ মে) বিকালে উপজেলা শহরের হাসপাতাল মোড়ে এ ঘটনা ঘটে। এদিকে, ঘটনার পর পরই প্রতিবাদে ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কের এলেঙ্গা বাসস্ট্যান্ডে মহাসড়ক অবরোধ করেন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা। পরে পুলিশের আশ্বাসে অবরোধ তুলে নেওয়া হয়।

স্থানীয়রা জানান, নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান শামীম আল মনসুর আজাদ সিদ্দিকীর পক্ষে বিজয় মিছিলের প্রস্তুতি নেয় তার অনুসারীরা। অপরদিকে, সাবেক সংসদ সদস্য হাসান ইমাম খান সোহেল হাজারী তার বাসায় একটি মিটিংয়ের আয়োজন করেন। সেই অনুষ্ঠানে যাওয়ার সময় কালিহাতী হাসপাতাল মোড়ে এমএ মালেক ভূইয়ার গাড়িতে হামলা চালায় সংঘবদ্ধ একটি গ্রুপ।

হামলার শিকার এমএ মালেক ভূইয়া বলেন, সাবেক এমপি সোহেল হাজারীর বাসায় যাওয়ার সময় আমার গাড়িতে অতর্কিত হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করে কয়েকজন লোক। এ সময় আমি ও আমার গাড়ি চালক গুরুতর আহত হই। নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান আজাদ সিদ্দিকীর লোকজন এ হামলা করেছে। এতে আওয়ামী লীগের আরও কয়েকজন নেতাকর্মী আহত হয়েছেন।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে পরাজিত চেয়ারম্যান প্রার্থী আনোয়ার হোসেন মোল্লা বলেন- নির্বাচনের পর থেকে কয়েকদিনে বেশ কয়েকজন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী হামলার শিকার হয়েছেন। আওয়ামী লীগ নেতা মালেক ভূইয়ার ন্যাক্কারজনক উপর হামলার প্রতিবাদে নেতাকর্মীরা এলেঙ্গা মহাসড়ক প্রায় আধা ঘন্টা অবরোধ করে রাখেন।

এরপর পুলিশের উর্ধতন কর্মকর্তারা এসে বিচারের আশ্বাস দিলে অবরোধ তুলে নেওয়া হয়। তিনি এ হামলার জন্য স্থানীয় এমপি আব্দুল লতিফ সিদ্দিকীর ছোট ভাই ও নবনির্বাচিত উপজেলা চেয়ারম্যান আজাদ সিদ্দিকীর বাহিনীকে দায়ী করেছেন।

এ ব্যাপারে নবনির্বাচিত উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শামীম আল মনসুর আজাদ সিদ্দিকী বলেন, আমাদের বিজয় মিছিলে কতিপয় দুষ্কৃতিকারী হামলা চালায়। এতে আমার কয়েকজন কর্মী আহত হয়েছেন। আমি পুলিশ প্রশাসনের কাছে এর সুষ্ঠু বিচার চাই।

কালিহাতী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কামরুল ফারুক বলেন, নব‌নির্বা‌চিত উপ‌জেলা চেয়ারম‌্যান আজাদ সিদ্দিকীর বিজয় মিছিল নিয়ে আসার সময় উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মালেক ভূইয়ার উপর হামলা করে অজ্ঞাতরা। এ সময় গাড়ি ভাঙচুর করে। এখনো লিখিত অভিযোগ পায়নি। অ‌ভি‌যোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

কঠিন হয়ে গেল দুবাই ভ্রমণ, ভিজিট ভিসায় প্রবেশে নতুন শর্ত

ছবি: সংগৃহীত

সংযুক্ত আরব আমিরাতের বাণিজ্যিক রাজধানী ও আকর্ষণীয় রাজ্য দুবাই। বিলাসবহুল জীবনযাপন, আকাশচুম্বী অট্টালিকা, হোটেলসহ নানা কারণে দুবাই ভ্রমণপিপাসুদের পছন্দের শীর্ষে।

কিন্তু আগে যেভাবে সহজ উপায়ে দুবাইয়ে ভিজিট ভিসায় প্রবেশ করা যেত এখন তা আর হচ্ছে না। ভ্রমণকারীদের প্লেনে ওঠার আগে বাধ্যতামূলক তিন হাজার দিরহাম (বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ৯৬ হাজার টাকা) নগদ, একটি বৈধ রিটার্ন টিকিট ও বাসস্থানের বৈধ (ইজারি) কাগজপত্রের প্রমাণ দেখাতে হবে। স্থানীয় গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানিয়েছে পর্যটন সংস্থাগুলো।

বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, আমিরাতে প্রবেশের নির্দেশিকা কঠোরভাবে অনুসরণ করার বিষয়টি নিশ্চিত করছে কর্তৃপক্ষ। কিছু যাত্রী যারা এসব শর্ত পূরণে ব্যর্থ হয়েছে তারা বলেছেন তাদের ভারতীয় বিমানবন্দরে আটকে দেওয়া হয়েছে এবং তাদের ফ্লাইটে উঠতে বাধা দেওয়া হয়েছে। আরও কিছু যাত্রী দুবাইয়ের বিমানবন্দরে আটকা পড়েছে বলে জানা গেছে।

তাহিরা ট্যুরস অ্যান্ড ট্রাভেলসের প্রতিষ্ঠাতা এবং সিইও ফিরোজ মালিয়াক্কাল বলেন, দুবাই ভ্রমণকারীদের অবশ্যই কমপক্ষে ছয় মাসের বৈধতা থাকা পাসপোর্টসহ একটি বৈধ ভিসা থাকতে হবে। যাত্রীকে অবশ্যই রিটার্ন টিকিট বহন করতে হবে। এগুলো আগেও চেক করা হয়েছে। তবে এখন দুবাইতে থাকার জন্য পর্যাপ্ত অর্থ সঙ্গে নেওয়া হচ্ছে কি না তা নিশ্চিত করার জন্য চেক করা হচ্ছে। এ অর্থের পরিমাণ হবে নগদ বা ক্রেডিট কার্ডে তিন হাজার দিরহামের সমতুল্য যেকোনো মুদ্রা।

সেইসঙ্গে ভ্রমণকারীকে সংযুক্ত আরব আমিরাতের বাসস্থানের বৈধ ঠিকানার প্রমাণ প্রদান করতে হবে; এটা হয় আত্মীয় বা বন্ধুর বাড়ি বা হোটেল বুকিং– যেকোনো কিছু হতে পারে, যোগ করেন ফিরোজ।

ট্র্যাভেল এজেন্টরা জানিয়েছেন, এ নিয়ম দীর্ঘকাল ধরেই আছে। তবে এখন ভ্রমণকারীদের সুবিধার্থেই কর্তৃপক্ষ নজরদারি কঠোর করেছে। রুহ ট্রাভেল অ্যান্ড ট্যুরিজমের লিবিন ভার্গিস বলেছেন, দুবাই ভ্রমণকারীদের সুরক্ষার জন্য বিমানবন্দরেই চেক করা হচ্ছে। এর আগে ভিসা মেয়াদোত্তীর্ণ হওয়ার পরও থাকার অনেক ঘটনা ঘটেছে। কর্তৃপক্ষের এ পদক্ষেপটি আমিরাতের পর্যটন খাতে ইতিবাচক প্রভাব ফেলবে।

তিনি বলেন, স্বচ্ছতা ও আমিরাতে ভ্রমণকারীদের যেকোনো অসংগতি এড়াতে কঠোরভাবে এসব চেক করা হচ্ছে।

সর্বশেষ সংবাদ

সেপটিক ট্যাংক থেকে ৪০ হাজার ডলার উদ্ধার
টাঙ্গাইলে আ.লীগ নেতার উপর হামলা ও গাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগ
কঠিন হয়ে গেল দুবাই ভ্রমণ, ভিজিট ভিসায় প্রবেশে নতুন শর্ত
কখন কোথায় আঘাত হানতে পারে ‘ঘূর্ণিঝড়’ রেমাল
জাভিকে বরখাস্ত করলো বার্সেলোনা
গোবিন্দগঞ্জে ২ হাজার পিস বুফ্রেনরফিন ইনজেকশন উদ্ধার
সৌদি পৌঁছেছেন প্রায় ৩৯ হাজার হজযাত্রী
রাজনীতিতে আসার ইঙ্গিত দিলেন আনারকন্যা ডরিন
আজিজ ও বেনজীরের দুর্নীতির দায় সরকার এড়াতে পারে না: দুদু
ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে রাতে মাঠে নামছে হায়দরাবাদ-রাজস্থান
এমপি আনার হত্যা: ১২ দিনের রিমান্ডে কসাই জিহাদ
মারা গেছে মিমস জগতের জনপ্রিয় কুকুরটি
ফিক্সিং প্রমাণিত হলে ১০ বছর নিষিদ্ধ পাকুয়েতা!
নিম্নচাপে পরিণত সাগরের লঘুচাপ, বন্দরে সতর্কতা জারি
নওগাঁয় ভুয়া ডাক্তারকে অর্ধলক্ষ টাকা জরিমানা ও ৩ মাসের জেল
আনারের মরদেহ টুকরো টুকরো করে কাটার লোমহর্ষক বর্ণনা দিলেন ‘কসাই’ জিহাদ
এমপি আনারকে হত্যার বিষয়ে যা জানালেন মাস্টারমাইন্ড শাহীন
এমপি আনারের টুকরো টুকরো লাশের সন্ধান দিল গাড়িচালক
নিয়ামতপুর, পোরশা ও সাপাহারে ৪৬ প্রার্থীর ২৫ জনেই জামানত হারালেন
বিশ্বকাপে চাপ থাকবে, নার্ভ ধরে রাখতে হবে : সাকিব