সাবেক ইউপি মেম্বারের বাড়ি থেকে ২ নারীর মরদেহ উদ্ধার

২৬ জানুয়ারি ২০২৩, ১২:১০ পিএম | আপডেট: ০২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ০৪:৪৪ পিএম


সাবেক ইউপি মেম্বারের বাড়ি থেকে ২ নারীর মরদেহ উদ্ধার

বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলার কেদারপুরে সাবেক ইউপি মেম্বারের বাড়ি থেকে ২ নারীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। অপরদিকে মৃতদের স্বজন এক নারীকে মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৬ জানুয়ারি) সকালে এ বিষয়টি নিশ্চিত করেন বাবুগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) অলিউল ইসলাম।

এ বিষয়ে তিনি বলেন, খবর পেয়ে বুধবার (২৫ জানুয়ারি) দিবাগত রাত ২টার আগে আমরা ঘটনাস্থলে যাই। কেদারপুর ইউনিয়ন পরিষদের ১ থেকে দেড়শ গজ দূরে ঘটনাস্থল। আমরা গিয়ে ঘটনাস্থলে কাউকে পাইনি। পুলিশের তত্ত্বাবধানে তিন নারীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায় স্থানীয়রা। হাসপাতালে নেওয়ার পর লালমুন নেছা ও রিপা আক্তারকে মৃত ঘোষণা করা হয়। আর মিনারা বেগম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

নিহতরা হলেন- বাবুগঞ্জ উপজেলার কেদারপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক সদস্য (মেম্বার) দেলোয়ার হোসেনের মা লালমুন নেছা (১০২) এবং দেলোয়ার হোসেনের ছেলে সোলায়ামানের স্ত্রী রিপা আক্তার (২০)। 

এ প্রসঙ্গে স্থানীয় গ্রাম পুলিশের দফাদার মো. হানিফ জানান, গতকাল রাতে এই বাড়িতে দেলোয়ার হোসেনের স্ত্রী, মা ও ছেলে বউ ছাড়া কেউ ছিলেন না। কেউ সন্দেহ করছে চুরির জন্য খাবারের সঙ্গে কিছু মিশিয়ে এই পরিবারের তিনজনকে অচেতন করা হয়েছিল। আর সেই বিষক্রিয়া বেশি হওয়ায় দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। তবে সার্বিক আলামত দেখে চুরি নয়, হত্যাকাণ্ডের জন্যই এমনটা করা হয়েছে বলে সন্দেহ অনেকের।

তিনি বলেন, 'ঘরের এক পাশে একটি ছোট আকারের সিঁধ কাটা হয়েছে, তবে সেটি দিয়ে কোনো মানুষের চলাচল সম্ভব নয়। আর পরিবারের লোকজনের কাছ থেকে যেটুকু জেনেছি তাতে কিছু স্বর্ণালংকারসহ অল্প কিছু মালামাল খোয়া গেছে। এক্ষেত্রে চুরি হলে আরও অনেক মালামালই তো খোয়া যেত।'

এ ব্যাপারে বাবুগঞ্জ থানার ওসি মাহবুবুর রহমান বলেন, প্রাথমিকভাবে ঘটনাটি পুরোপুরি পরিকল্পিত একটি হত্যাকাণ্ড বলেই মনে হয়েছে। বিষয়টি ভিন্ন খাতে রূপ দিতে চুরির ঘটনা সাজানো হয়েছে। আমরা পুরো বিষয়টি খতিয়ে দেখছি।

এসআইএইচ


বিভাগ : সারাদেশ