আওয়ামী লীগ নেতাকে পিটিয়ে দাঁত ভেঙে দেওয়ার অভিযোগ

২৩ জানুয়ারি ২০২৩, ১০:১৩ এএম | আপডেট: ২৯ জানুয়ারি ২০২৩, ০১:০৯ এএম


আওয়ামী লীগ নেতাকে পিটিয়ে দাঁত ভেঙে দেওয়ার অভিযোগ

কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়া উপজেলায় ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীদের বিরুদ্ধে ভিপি ফরিদ উদ্দিন (৪৮) নামে এক আওয়ামী লীগ নেতাকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে। হামলায় তার সামনের দাঁত ভেঙে গেছে।

রবিবার (২২ জানুয়ারি) রাতে পাকুন্দিয়া পৌর সদর বাজারে এ ঘটনা ঘটে।

হামলার শিকার ফরিদ উদ্দিন উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক। তাকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে কিশোরগঞ্জ সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়। কিন্তু অবস্থার অবনতি হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে।

আওয়ামী লীগ নেতা ফরিদ উদ্দিনের অভিযোগ, ছাত্রলীগের কমিটি নিয়ে দ্বন্দ্বে ছাত্রলীগ নেতা বিল্লাল হোসেন পাপ্পুর নেতৃত্বে ২০-২৫ জন তার উপর হামলা চালায়। হামলা থেকে বাঁচতে পাট মহলের মোড়ে হেলাল ডাক্তারের ফার্মেসিতে আশ্রয় নিলে সেখানেও ভাঙচুর চালায় তারা।

প্রতক্ষ্যদর্শীরা জানান, হামলায় আওয়ামী লীগ নেতা ফরিদ উদ্দিনের সামনের দাঁত ভেঙে গেছে। এ ছাড়া তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত করায় তিনি গুরুতর আহত হয়েছেন।

এদিকে হামলার অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে ছাত্রলীগ নেতা বিল্লাল হোসেন পাপ্পু তা অস্বীকার করে বলেন, এ ঘটনার সঙ্গে আমি কোনোভাবেই সম্পৃক্ত নই। কে বা কারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে তা আমি জানি না।

ঘটনার পরপরই রাতে কিশোরগঞ্জ-২ (পাকুন্দিয়া-কটিয়াদি) আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট সোহরাব উদ্দিন তার নিজের ফেসবুক আইডিতে একটি প্রতিবাদ লিপি দেন।

এ বিষয়ে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন মোল্লা সুমন বলেন, এ হামলায় সংগঠনের কেউ জড়িত থাকলে তাদের বিরুদ্ধে তদন্ত সাপেক্ষে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পাকুন্দিয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) নাহিদ হাসান সুমন বলেন, কী কারণে এ ঘটনা ঘটেছে প্রাথমিকভাবে কিছু বলা যাচ্ছে না। হামলার পর ঘটনাস্থলে গিয়ে ফরিদ উদ্দিনকে উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এসজি


বিভাগ : সারাদেশ