সংক্রমণ রোধে করোনার টিকার চতুর্থ ডোজ দেওয়ার সুপারিশ

৩০ নভেম্বর ২০২২, ১২:২৯ পিএম | আপডেট: ০২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ০৪:২৩ এএম


সংক্রমণ রোধে করোনার টিকার চতুর্থ ডোজ দেওয়ার সুপারিশ

করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে তিন শ্রেণির মানুষকে টিকার চতুর্থ ডোজ দেওয়ার সুপারিশ করেছে জাতীয় টিকা সংক্রান্ত কারিগরি উপদেষ্টা কমিটি। এ ছাড়াও আগামী ১ থেকে ৭ ডিসেম্বর পর্যন্ত সারাদেশে অনুষ্ঠিত হবে বুস্টার ডোজের গণটিকা ক্যাম্পেইন।

বুধবার (৩০ নভেম্বর) রাজধানীর মহাখালীর ইপিআই কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এমনটাই জানান স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের টিকা ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্য সচিব ডা. শামসুল হক।

এ বিষয়ে সদস্য সচিব জানান, করোনার টিকার চতুর্থ ডোজ দেওয়ার সুপারিশ করেছে টিকা সংক্রান্ত কারিগরি উপদেষ্টা কমিটি। তাদের টিকা দেওয়ার জন্য পর্যাপ্ত টিকা আছে। আমরা ষাটোর্ধ্ব ব্যক্তি, গর্ভবতী নারী, ও সম্মুখসারির করোনা যোদ্ধাদের শিগগির টিকা দেওয়া শুরু করব।

টিকার তথ্য তুলে ধরে তিনি জানান, এখন পর্যন্ত দেশের মোট জনগোষ্ঠীর ৮৭ ভাগ পেয়েছে প্রথম ডোজ। আর ৭৩ ভাগ দ্বিতীয় ডোজ এবং বুস্টার পেয়েছে ৫২ ভাগ মানুষ। এ অবস্থায় আগামী ১ থেকে ৭ ডিসেম্বর বিশেষ টিকা ক্যাম্পেইন হবে সারাদেশে। এই ক্যম্পেইনের মাধ্যমে টিকা দেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ৯০ লাখ মানুষকে। ক্যাম্পেইনে শুধু টিকার দ্বিতীয় ও বুস্টার ডোজ দেওয়া হবে।

ডা. শামসুল হক আরও জানান, এখন পর্যন্ত ৮৭ ভাগ মানুষ টিকার ১ম ডোজ পেয়েছে। ৭৩ শতাংশ মানুষ পেয়েছে ২য় ডোজ। এছাড়া বুস্টার ডোজ পেয়েছে ৫২ শতাংশ।

এসআইএইচ


বিভাগ : জাতীয়