নির্বাচন কমিশন ভুয়া: মির্জা ফখরুল

৩০ ডিসেম্বর ২০২০, ১২:১১ পিএম | আপডেট: ১২ জানুয়ারি ২০২১, ০৭:৩৬ এএম


নির্বাচন কমিশন ভুয়া: মির্জা ফখরুল
ফাইল ছবি

দেশের ২৪ পৌরসভার ফল প্রত্যাখ্যান করে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, এ নির্বাচন কমিশন ভুয়া। সব কটা চোর। এটা আমার কথা নয়, বিশিষ্টজনদের কথা। তাদের ব্যাপারে প্রশ্ন করাও যুক্তিসঙ্গত নয়। এটা অপমানজনক বলে মন্তব্য করেছেন তিনি। ইভিএম পদ্ধতি বাতিল করে আগের পদ্ধতিতে নির্বাচনের দাবি জানিয়ে বলেন, দলীয় প্রতীকে নির্বাচন করায় জাতিকে দ্বিধাবিভক্ত করেছে আওয়ামী লীগ। এর অনেক ক্রিয়া-প্রতিক্রিয়া রয়েছে। মঙ্গলবার বেলা ১১টায় ঠাকুরগাঁও শহরে তার পৈতৃক বাসভবনে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ মন্তব্য করেন ফখরুল।

ঠাকুরগাঁও পৌরসভা মেয়র ও জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মির্জা ফয়সল আমীন, জেলা বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি আল মামুন, অ্যাডভোকেট আবদুল হালিম, মাহবুব হোসেন তুহিনসহ অন্যরা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, আওয়ামী লীগ এক সময় জনগণের দল ছিল। আওয়ামী লীগ দাবি করে স্বাধীনতাযুদ্ধ তাদের নেতৃত্বে হয়েছিল। সেই আওয়ামী লীগ আজ কর্তৃত্ববাদী, জনবিচ্ছিন্ন ও লুটপাটের দলে পরিণত হয়েছে। আওয়ামী লীগ জোর করে ক্ষমতা দখল করে আছে। সে জন্য তারা বলছে, নির্বাচন ভালো হয়েছে। স্থানীয় সরকার নির্বাচনেও শক্তি প্রয়োগ করেছে এবং আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ও নির্বাচন কমিশনের যোগসাজশে স্থানীয় সরকারের আসনগুলো নিয়ে গেছে বলেও তিনি মন্তব্য করেন। মির্জা ফখরুল বলেন, ২০২০ সাল সবচেয়ে খারাপ বছর। প্রথমত, সরকারের কর্তৃত্ববাদী চেহারা দেখা গেছে। দ্বিতীয়ত, ধর্ষণ, দুর্নীতি ও জনগণের অধিকার হরণ এ বছরে সবচেয়ে বেশি হয়েছে। তাই ২০২১ সালে অধিকার ফিরে পাওয়ার জন্য জনগণ ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টা চালাবে বলে প্রত্যাশা করেন তিনি।

বিএনপির মহাসচিব বলেন, করোনাভাইরাসের মহামারীতে পরিষ্কার হয়েছে দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থার ভগ্নদশা। ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালের অব্যবস্থাপনা ও দুর্নীতির উদাহরণ দিয়ে বলেন, সরকার চুরি করার প্ল্যান করছে। এটা শুধু স্বাস্থ্য বিভাগে নয়, সবক্ষেত্রে চুরির মহোৎসব চলছে দেশে।

রাস্তাঘাট নির্মাণ কাজের মান নিয়ে প্রশ্ন তুলে তিনি বলেন, ৪০-৫০ ভাগ চুরি করা হচ্ছে। অপ্রয়োজনীয় খাতে অর্থ বরাদ্দ দেখিয়ে দুর্নীতি করা হচ্ছে। এ দুর্নীতি ভয়াবহ বেড়েছে। মির্জা ফখরুল আরও বলেন, জনগণকে নয়, আমলাদের তুষ্ট করে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় টিকে থাকতে চায়। যেমন, আইয়ুব খান আমলে হয়েছে, এরশাদের আমলে হয়েছে। দুর্ভাগ্যজনকভাবে আওয়ামী লীগও এখন সে পথে হাঁটছে। তারা আজ সামরিক আমলা-বেসামরিক আমলাদের সিদ্ধান্তে পরিচালিত হচ্ছে। তারাই আজ সিদ্ধান্ত দিচ্ছে।


বিভাগ : রাজনীতি