মানুষ ব্যর্থ হয় কেন?

২২ অক্টোবর ২০২২, ১২:৪২ পিএম | আপডেট: ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ১২:৫৬ পিএম


মানুষ ব্যর্থ হয় কেন?

ব্যর্থতা কি মানুষের নিয়তি? নাকি ভুল সিদ্ধান্তের কারণে মানুষ ব্যর্থ হয়? অনেককেই বলতে শোনা যায়, জীবনে কোনো সফলতা পেলাম না! সবক্ষেত্রে শুধু ব্যর্থতার গ্লানি! এত এত চেষ্টা করলাম; জুতার তলা ক্ষয় করলাম! অথচ কিছুতেই কিছু হলো না!

হবে কীভাবে? আপনি একবারও ভেবে দেখেছেন; আপনি যে চেষ্টা করেছেন তাতে কোনো ভুল ছিল কি না? মনে রাখবেন, কোনো প্রচেষ্টাই কিন্তু ব্যর্থ হয় না। দেরিতে হলেও সফলতা আসে। তবে প্রচেষ্টার মধ্যে যদি গলদ থাকে কিংবা যথাযথ পরিকল্পনার অভাব থাকে; তাহলে আপনি সফল হবেন কীভাবে? হুটহাট সিদ্ধান্ত না দিয়ে ভেবেচিন্তে সিদ্ধান্ত নিন। যে কাজটি আপনি শুরু করতে যাচ্ছেন সেটি নিয়ে বারবার ভাবুন। বিষয়টির নেতিবাচক ও ইতিবাচক সব দিক বিবেচনা করে সিদ্ধান্ত নিন। তারপর কাজটা শুরু করুন। দেখবেন, সফলতা আসবেই।

আবার ব্যর্থ হওয়ার ভয়ে কোনো কাজই শুরু করবেন না; তাও ঠিক হবে না। আপনি সফল হওয়ার জন্যই সিদ্ধান্ত নেবেন। কাজ শুরু করবেন। আপনি একটাতে সফল হননি বলে আরেকটিতে হবেন না তা তো হতে পারে না! যে কাজটি আপনি শুরু করতে চান সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার পর আর দ্বিধাদ্বন্দ্বে ভোগা যাবে না। সেই কাজ নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে। সর্বশক্তি নিয়োগ করতে হবে। মনপ্রাণ দিয়ে কাজ করতে হবে। কাজটাকে ইবাদত মনে করতে হবে। তাহলে সফলতা আপনা থেকেই ধরা যাবে।

অধিকাংশ ক্ষেত্রেই আমরা দেখি, কাজ শুরু করতে গিয়ে শুরুতেই অনেকে দ্বিধাদ্বন্দ্বে ভুগতে থাকেন। তাহলে কাজটা ঠিকমতো হবে না। কাজের গতি আসবে না। কাজটা এলোমেলো হবে। কাজ এগোবে না। প্রথমেই আপনাকে লক্ষ্য স্থির করতে হবে। তারপর আটঘাট বেঁধে নামতে হবে। ধরুন, আপনি বিসিএস পরীক্ষা দেবেন। শুরুতেই আপনি যদি ভাবেন, আমি কি টিকতে পারব? লক্ষাধিক পরীক্ষার্থী! তার মধ্যে নেবে মাত্র ৫০০ জন। এত এত মেধাবীর ভিড়ে আমার জায়গা হবে?

এসব ভাবনা শুরুতেই আপনার মনোবল ভেঙে দেবে। আপনার প্রস্তুতি কাজের শুরুতেই গলদ ঢুকে গেল। আপনি আর পড়ায় মনোযোগ দিতে পারবেন না। শুরুতেই আপনাকে বলতে হবে, এবার বিসিএসে যদি একজনও নেয় তাহলে আমিই টিকব। আবার ধরুন, আপনি বুয়েট কিংবা মেডিকেলে ভর্তি হতে চান। সব ভালো ছাত্রেরই এই আকাঙ্ক্ষা থাকে। সারাদেশে ভালো রেজাল্টওয়ালা শিক্ষার্থীর সংখ্যা অনেক! এখন আপনি যদি ভাবেন, আমার মতো লাখ লাখ শিক্ষার্থী আছে। তার মধ্যে আমি কি টিকতে পারব? এই নেতিবাচক ভাবনাটাই আপনার স্বপ্নকে শেষ করে দিতে সক্ষম।

আপনি ভাববেন, মেডিকেল বা বুয়েটে একজনও যদি ভর্তি হতে পারে; তাহলে কেবল আমিই হতে পারব। তাহলেই দেখবেন, আপনার পথ অনেকটাই মসৃণ হয়ে যাবে। যারা এটা ভাবতে পারে না তারাই ব্যর্থ হয়। তারাই বলে, আমি জীবনে সফল হতে পারলাম না। এরাই মূলত ব্যর্থ হয়।

আসুন, আমরা জীবন নিয়ে নতুন করে ভাবি। নতুন স্বপ্ন নিয়ে জীবনকে নতুনভাবে গড়ে তুলি।

লেখক: প্রধান সম্পাদক, ঢাকাপ্রকাশ ও সাহিত্যিক।

এসএন


বিভাগ : মোটিভেশন