প্রতিযোগিতা কমিশনের ৪৪ মামলা

প্রথম দিনের শুনানিতে কাজী ফার্মস

২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৮:১৮ পিএম | আপডেট: ২৯ নভেম্বর ২০২২, ০৩:২৯ পিএম


প্রথম দিনের শুনানিতে কাজী ফার্মস

পোলাও চালের দাম অতীতের সব রেকর্ড ছাড়িয়েছে। প্রাণসহ বিভিন্ন কোম্পানি প্রতি কেজি প্যাকেটজাত পোলাওয়ের চাল বিক্রি করছে ১৫০ টাকায়। অতিরিক্ত দামে চাল বিক্রি করায় বাংলাদেশ প্রতিযোগিতা কমিশন প্রাণ, ব্রাক, সিটি, স্কয়ার, রশিদ, এরফানসহ চালের ১৯টি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মামলা করেছে। একইভাবে আটা-ময়দাও বেশি দামে বিক্রি করার অভিযোগে মেঘনা, আকিজ, বসুন্ধরা, এস আলম, টিকে গ্রুপসহ ৮টি, বেশি দামে ডিম ও মুরগি বিক্রি করায় সিপি, প্যারাগন, নারিশসহ ১২টি কোম্পানি এবং সাবান, গুঁড়া সাবান ও সুগন্ধি সাবান বেশি দামে বিক্রি করায় ইউনিলিভার, এসিআই, কেয়া, কোহিনুর, স্কোয়ারের নামেও মামলা করা হয়েছে। সব মিলিয়ে বিভিন্ন নামী-দামী প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে গত ২২ সেপ্টেম্বর মোট ৪৪টি মামলা করে কমিশন।

বাজারে নিত্যপণ্যের দাম নিয়ে যে অরাজকতা চলছে সেটি রোধে কঠোর অবস্থানের অংশ হিসেবেই বাংলাদেশ প্রতিযোগিতা কমিশন এই পদক্ষেপ নিয়েছে।

প্রতিযোগিতা কমিশন সূত্র জানা গেছে, ইতোমধ্যে মামলার শুনানি শুরু হয়েছে। ডিম ও মুরগি বেশি দামে বিক্রি করার অভিযোগে সোমবার (২৬ সেপ্টেম্বর) প্রথম দিনেই কাজী ফার্মের বিরুদ্ধে করা মামলার শুনানি শুরু হয়। প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক কাজী জাহিন হাসান দুই আইনজীবী নিয়ে হাজির হন। তাদের কাছে জানতে চাওয়া হয় মুরগির উৎপাদন খরচ ও বিক্রয় মূল্য জুলাই থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত কত ছিল। এসব তথ্যসহ আরও কিছু তথ্য নিয়ে আগামী ৬ অক্টোবর হাজির হতে বলা হয়েছে কাজী ফার্ম কর্তৃপক্ষকে।

কাজী ফার্মস ছাড়াও আরও ১১টি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে মামলা করেছে কমিশন। যারা ডিম ও মুরগির উৎপাদনকারী। প্রতিষ্ঠান থেকে আড়তদার পর্যন্ত বেশি দামে ডিম ও মুরগি বিক্রির অভিযোগে এ মামলা করা হয়।

বেশি দামে ডিম বিক্রির কারণে গাজীপুরের সিপি বাংলাদেশ লিমিটেড, প্যারাগন পোল্ট্রি, বসুন্ধরার ডায়মন্ড এগ, পিপলস ফিড, কাজী ফার্মস গ্রুপ এবং তেজগাঁও ডিম ব্যবসায়ী আড়তদার বহুমুখী সমবায় সমিতির বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। এ ছাড়া বেশি দামে মুরগি বিক্রি করার জন্য সিপি, প্যারাগন, নারিশ পোল্ট্রি, আলাল পোল্ট্রি ও সাগুনা ফুড অ্যান্ড ফিডসের বিরুদ্ধে এ মামলা করা হয়।

চালে ১৯ মামলা

এদিকে চালের দাম বেশি রাখার অভিযোগে কুষ্টিয়ার রশিদ অ্যাগ্রো ফুড প্রোডাক্ট লিমিটেড, দাদা রাইস মিল, নওগাঁর বেলকন গ্রুপ, মফিজউদ্দিন অটো রাইস মিল, মজুমদার রাইস মিল ও ম্যাবকো হাইটেক রাইস মিল, দিনাজপুরের জহুরা অটো রাইস মিল, চাঁপাইনবাবগঞ্জের এরফান গ্রুপ, বগুড়ার কিবরিয়া এগ্রো, আলাল এগ্রো ফুড, খান অটো রাইস মিলের বিরুদ্ধে মামলা করেছে কমিশন। এ ছাড়া কর্পোরেট প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জের নুরহাজান এগ্রো ফুড লিমিটেড, স্কয়ার ফুড অ্যান্ড বেভারেজ লিমিটেড, এসিআই লিমিটেড, ব্র্যাক সিড অ্যান্ড এগ্রো লিমিটেড, বাংলাদেশ এডিবল অয়েল লিমিটেড ও সিটি গ্রুপ, প্রাণ ফুডস লিমিটেড ও নারায়ণগঞ্জের সিটি অটো রাইস মিলের বিরুদ্ধেও মামলা হয়েছে।

আটা-ময়দায় মামলা ৮টি

আটা ও ময়দা বেশি দামে বিক্রির অভিযোগে মেঘনা গ্রুপ, আকিজ, বসুন্ধরা, এসিআই, টিকে গ্রুপ, নুরজাহান গ্রুপ, এস আলম ও সিটি গ্রুপের বিরুদ্ধে মামলা করেছে প্রতিযোগিতা কমিশন।

সাবানের দাম বাড়ায় ৫ মামলা

সাবান, গুঁড়া সাবান বেশি দামে বিক্রি করার অভিযোগে ইউনিলিভার বাংলাদেশ লিমিটেড, এসিআই লিমিটেড, স্কয়ার গ্রুপ, কোহিনুরি কেমিক্যাল ও কেয়া গ্রুপের বিরুদ্ধেও মামলা করেছে বাংলাদেশ প্রতিযোগিতা কমিশন।

সাম্প্রতিক সময়ে দেশে নিত্যপণ্যের দাম অস্বাভাবিকভাবে বৃদ্ধি পাওয়ায় ভোক্তা অধিদপ্তর সারা দেশে বাজারে অভিযান পরিচালনা করে। তখনই উঠে আসে নিত্যপণ্যের অস্বাভাবিক দামের বিষয়টি। তারা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে সরকারের কাছে সুপারিশ করে। এর পরপরই বিষয়টি আমলে নিয়েই চাল, আটা-ময়দা, ডিম-মুরগি, সাবানে বেশি দাম রাখার অভিযোগে বাংলাদেশ প্রতিযোগিতা কমিশন ৪৪টি মামলা করেছে।

এনএইচবি/জেডএ/এসজি


বিভাগ : অর্থনীতি