শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ | ১০ ফাল্গুন ১৪৩০
বেটা ভার্সন
Dhaka Prokash

ভয়াবহ রূপ নিচ্ছে ডেঙ্গু, নির্মূল করা যাচ্ছে না মশা

ডেঙ্গু পরিস্থিতি পাল্লা দিয়ে খারাপ হচ্ছে। চোখে পড়ছে না কার্যকর পদক্ষেপ। পরিস্থিতি সামাল দিতে নগরবাসীকে সচেতন করার পাশাপাশি ডেঙ্গুর বাহক এডিস মশা নির্মূলে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করছে দুই সিটি করপোরেশন। কিন্তু তাতে মশা নির্মূল করা যাচ্ছে না। অভিযোগ উঠেছে, ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে জরিমানা করাতেই যেন বেশি মনোযোগী ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন।

সংশ্লিষ্টদের অভিযোগ, মশা নিধনে কার্যকর পদক্ষেপের চেয়ে অভিযানের নামে ঢাকঢোল পেটাতেই বেশি ব্যস্ত ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি ও ডিএসসিসি)। নগরবাসীর বিরুদ্ধে হুঁশিয়ারি দিয়ে বাড়িঘর পরিষ্কার রাখতে বলা, ভ্রাম্যামান আদালত পরিচালনার ভয় দেখানো ও মশা মারতে ড্রোন বা হাস-গাপ্পি মাছের গল্প যত শোনানো হয়েছে তার কানাকড়ি মনযোগও যদি মশা নিধনে থাকত তাহলে আজ ডেঙ্গু পরিস্থিতি এমন ভয়াবহ রূপ নিত না।

মশার মারার ক্ষেত্রে পরোক্ষভাবে সিটি করপোরেশনের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে মঙ্গলবার (১৮ অক্টোবর) স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেছেন, এডিস মশা মারতে না পারলে ডেঙ্গু তো বাড়বেই। এর আগে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আহমেদুল কবীরও অভিযোগ করে বলেন, মশা নিয়ন্ত্রণে কোথাও একটা ফাঁকফোকর থেকে যাচ্ছে। যে কারণে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা বাড়ছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সূত্র জানায়, ২০১৮ সালে মোট রোগীর সংখ্যা ছিল ৩ হাজার ৮৭ জন। সে বছর ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে মারা গিয়েছিল ২৬ জন। পরের বছর ২০১৯ সালে ডেঙ্গু মহামারী আকার ধারন করে। সেই বছর মোট আক্রান্ত রোগী ছিল ৫২ হাজার ৬৩৬ জন। মারা গিয়েছিল ১৭৯ জন। ২০২০ সালে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। সেই বছর মোট আক্রান্ত হয়েছিল ৫৪৬ জন। মারা গিয়েছিল ৭ জন। ২০২১ সালে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছিল মোট ৭ হাজার ৮৪১ জন। সে বছর মারা গিয়েছিল ১০৫ জন। কিন্তু চলতি ২০২২ সালের ১৯ অক্টোবর পর্যন্ত ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছেন ১০ হাজার ৮৫৩ জন। এ পর্যন্ত মারা গেছেন ১০৬ জন।

চলতি বছরের এখনো আড়াই মাস বাকি। কিন্তু এই সময়েই আগের বছরের পরিসংখ্যান ছাড়িয়ে গেছে ডেঙ্গু পরিস্থিতি। নিয়ন্ত্রণে আসার কোন লক্ষণ তো দেখাই যাচ্ছে না উপরন্তু আক্রান্ত ও মৃত্যুতে প্রায় প্রতিদিনই আগের রেকর্ড ভাঙ্গছে।

মশক নিধনে দুই সিটির ব্যয়

মশক নিধনে দুই সিটি করপোরেশন মোটা অংকের টাকা বরাদ্ধ দিয়েছে। ডিএনসিসির ২০২২-২৩ অর্থবছরে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে ৭৬ কোটি টাকা। অন্যদিকে ডিএসসিসির এখাতে ব্যায়ও প্রায় একই রকম। অর্থাৎ দুই সিটি করপোরেশনের মশক নিধন বাবদ প্রায় ১৫০ কোটি টাকা খরচ হয়। তারপরও মশার উপদ্রব কমছে না।

নগরবাসীর অভিযোগ, মশা নিধনে বরাদ্দ বাজেট অনুযায়ী কাজ করলে মশার উপদ্রব কমত। কিন্তু দুই সিটি করপোরেশনই ব্যস্ত লোক দেখানো কার্যক্রমে। ক্রাশ প্রোগ্রাম, চিরুনি অভিযান-এমন বাহারী নাম দিয়ে শুধু ঢাকঢোল পেটানো হয়।

এর বাইরে দুই সিটি করপোরেশনই ‘তাক লাগানো’ কিছু পদক্ষেপ নিয়েছে। যেগুলোর ফলে প্রচার পাওয়া গেছে, কিন্তু মশা মরেনি। এসব পদক্ষেপের মধ্যে রয়েছে জলাশয়গুলোতে হাস-গাপ্পি মাছ ছেড়ে মশার লার্ভা ধংস করা এবং মশা নিধনে ড্রোনের ব্যবহার।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, দুই মেয়র শুধু ভ্রাম্যামাণ আদালত পরিচালনা ও নগরবাসীকে কাঠগড়ায় দাঁড় করাতেই বেশি ব্যস্ত। সচেনতার অবশ্যই দরকার আছে। কিন্তু দুই মেয়রকে নিজেদের কাজটা ঠিকমত করে তারপর নগরবাসীকে কাঠগড়ায় দাঁড় করালে সেটি হতো বেশি যুক্তিযুক্ত।

অবশেষে তৎপর মশক নিয়ন্ত্রণ দল

ডেঙ্গু বেড়ে যাওয়ার কারণে মশক নিধন নিয়ে প্রশ্ন উঠলে আবার তৎপর হতে দেখা যাচ্ছে দুই সিটি করপোরেশনকে। দুই সিটি করপোরেশন আবার সেই ‘চিরুনি অভিযান’ ও ‘বিশেষ অভিযান’ শুরু করেছে।

ডিএনসিসির জনসংযোগ কর্মকর্তা মকবুল হোসাইন ঢাকাপ্রকাশ-কে বলেন, এডিস মশার প্রকোপ নিয়ন্ত্রণে বুধবার (১৯ অক্টোবর) থেকে সপ্তাহব্যাপী বিশেষ মশক নিধন অভিযান পরিচালনা করবে ডিএনসিসি।

অন্যদিকে, ডিএসসিসির জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. আবু নাসের ঢাকাপ্রকাশ-কে বলেন, মশক নিধনে চিরুনি অভিযান ১৬ অক্টোবর থেকে শুরু হয়েছে। এটি চলমান।

এনএইচবি/এএস

অবৈধ মজুতকরে যারা ক্রাইসিস তৈরি করে তারা দেশের শত্রু: খাদ্যমন্ত্রী

ছবি: সংগৃহীত

অবৈধ মজুত করে যারা ক্রাইসিস তৈরি করে তারা দেশের শত্রু বলে উল্লেখ করেছেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার এমপি।

আজ শুক্রবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) বিকালে নওগাঁর নিয়ামতপুর উপজেলার বাহাদুরপুর ইউনিয়নের রাধানগরে শীবনদীর উপরে ১৯২ মিটার দীর্ঘ নবনির্মিত সেতুর চলমান কার্যক্রম পরিদর্শন ও দ্বাদশ সংসদ নির্বাচন পরবর্তী সুধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

অবৈধ মজুতকারীরা বিএনপির দোসর উল্লেখ করে খাদ্যমন্ত্রী বলেন, তারা শেখ হাসিনাকে উৎখাত করতে চায়-বেকায়দায় ফেলতে চায়।আমাদের দেশকে রক্ষা করতে হবে।আপনারা যে ভোট দিয়েছেন তার মর্যাদা রক্ষা করতে হবে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

নির্বাচনের দুই দিন আগে হটাৎ করে অসৎ ব্যবসায়ীরা চালের দাম ৮/১০ টাকা বাড়িয়ে দেয়। তারা মনে করেছিলো অন্য কেউ খাদ্যমন্ত্রী হলে বুঝতে বুঝতে একমাস পার হয়ে যাবে। যখন তারা দেখেছে মন্ত্রী সাধন মজুমদার হয়েছে তখন তারা বেকায়দায় পড়েছে আমাদেরও বেকায়দায় ফেলেছে।চালের বাজার ঠিক রাখতে জেলায় জেলায় বৈঠক করতে হয়েছে। মজুত বিরোধী অভিযানও চালাতে হয়েছে বলে উল্লেখ করেন খাদ্যমন্ত্রী।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ অসাম্প্রদায়িক চেতনায় বিশ্বাস করে। ৭ জানুয়ারির নির্বাচনে জনগণ সে চেতনার পক্ষে রায় দিয়ে শেখ হাসিনাকে আবারো প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত করেছেন। নিজেকে অসাম্প্রদায়িক চেতনার লোক দাবী করে তিনি বলেন,আমি যেখানে মন্দির করেছি তার পাশে মসজিদও তৈরি করেছি।আমি মানবের সেবা করি-মানব ধর্ম করি।

তিনি আরো বলেন, রাধানগর সেতু রাজশাহী ও নওগাঁ জেলার মধ্য ব্যবসা-বাণিজ্য বাড়াতে ভূমিকা রাখবে। সবচেয়ে বড় পরিবর্তন হবে সড়ক যোগাযোগ ক্ষেত্রে। গ্রামের সঙ্গে শহুরের মানুষের যোগাযোগ সহজ ও দ্রুততর হওয়ার ফলে কৃষক সহজেই তার পন্য বাজারজাত করতে পারবে।

বাহাদুরপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মামুনুর রশিদ মামুনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন- জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আব্দুল খালেক, নিয়ামতপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ, জেলা আওয়ামী লীগের কৃষি বিষয়ক সম্পাদক সম্পাদক আবেদ হোসেন মিলন, সহ-সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ফরিদ আহমেদ, সহ-সভাপতি ঈশ্বর চন্দ্র বর্মন, সাধারণ সম্পাদক নারায়ন চন্দ্র প্রামাণিকসহ প্রমুখ।

মহাসড়কের পাশে ১ দিনে সাড়ে ৩ হাজার স্থাপনা উচ্ছেদ

ছবি: সংগৃহীত

গাজীপুরের শ্রীপুরে জয়দেবপুর-ময়মনসিংহ মহাসড়কের পাশে অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদে অভিযান চালিয়েছে প্রশাসন ও সড়ক জনপথ বিভাগ। আজ শুক্রবার সকাল নয়টা থেকে দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত চলে এই অভিযান।

মহাসড়কের এমসি, নয়নপুর ও জৈনাবাজর এলাকায় উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সময় মহাসড়কের পাশে গড়ে উঠা বাজার, দোকানসহ প্রায় সাড়ের তিন হাজার স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। গুড়িয়ে দেওয়া হয় সকল অবৈধ স্থাপনা। অভিযানে নেতৃত্ব দেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইএনও) শামীমা ইয়াসমীন, সহকারী কমিশনার (ভূমি) আল মামুন ও সড়ক ও জনপথ বিভাগের উপবিভাগীয় প্রকৌশলী মো.সোহেল মিয়া।

জানা যায়, জয়দেবপুর-ময়মনসিংহ মহাসড়কের বিভিন্নস্থানে হাজার হাজার অবৈধ স্থাপনা গড়ে উঠেছে। আজ সকাল নয়টা থেকে উপজেলার এমসি বাজার এলাকায় উচ্ছেদ অভিযান শুরু করে উপজেলা প্রশাসন। পরে দুপুর আড়াইটায় জৈনাবাজার এলাকায় এসে শেষ হয় এই অভিযান। উচ্ছেদের খবর পেয়ে কেউ স্বেচ্ছায় তাদের মালামাল সরিয়ে নেয়। অনেকে দোকান বন্ধ করে পালিয়ে যায়। বন্ধ থাকা স্থাপনাগুলো গুড়িয়ে দেওয়া হয়। কিছু স্থায়ী স্থাপনাও ভেঙে দেওয়া হয়েছে।

সড়ক ও জনপথ বিভাগের উপবিভাগীয় প্রকৌশলী মো.সোহেল মিয়া বলেন, ‘জয়দেবপুর- ময়মনসিংহ মহাসড়কের শ্রীপুর অংশের ৩টি স্থানে অভিযান পরিচালনা করা হয়। এ সব স্থানের অবৈধ বাজার উচ্ছেদ করা হয়। মহাসড়কের সকল অংশে গড়ে উঠা অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হবে।’

শ্রীপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শামীম ইয়ামিন বলেন, ‘সকাল থেকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সদস্য উপজেলা প্রশাসনের কর্মচারীদের নিয়ে জয়দেবপুর- ময়মনসিংহ মহাসড়কের পাশে উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করে। অভিযানে সড়কের পাশে অবৈধভাবে গড়ে ওঠা প্রায় সাড়ে তিন হাজার অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে। পরে যাতে মহাসড়কে পাশে কোনো ধরনের অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ করতে না পারে সে জন্য প্রশাসন প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেবে।’

কোনো প্রশ্নফাঁসের ঘটনা ঘটেনি : ঢাবি উপাচার্য

ছবি: সংগৃহীত

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল বলেছেন, তিনদিন ধরে অনলাইন মাধ্যমে একদল প্রতারক চক্র ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের প্রতারিত করার চেষ্টা করছে। বাস্তবে কোনো প্রশ্নফাঁসের ঘটনা ঘটেনি।

এই চক্রের মূল কাজ হলো আমাদের ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী ও অভিভাবক যারা এ সম্পর্কে জানেন না, তাদের কাছ থেকে অর্থ হাতিয়ে নেওয়া। এজন্যই তারা প্রশ্নফাঁসের গুজব ছড়াচ্ছে।

শুক্রবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুর পৌনে ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ ভবনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

ঢাবি উপাচার্য বলেন, প্রতারক চক্রটি সাধারণ মানুষকে বোকা বানিয়ে টাকা হাতানোর চেষ্টা করছে। আপনাদের অনেক সাংবাদিকও তাদের সাথে কথা বলেছেন। সেই চক্রটি প্রশ্নের বিনিময়ে আপনাদের কাছ থেকেও অগ্রিম টাকা চাচ্ছে। এ পর্যন্ত এই চক্রের হাতে প্রতারিত হওয়ার কোনো অভিযোগ আমরা পাইনি। আমরা সংবাদ মাধ্যমগুলোতে সবাইকে এই প্রতারক চক্র থেকে সতর্ক থাকার কথা জানিয়েছি। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সাথেও আমাদের কথা হয়েছে। আমরা আশা করি, খুব দ্রুত চক্রটি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে গ্রেপ্তার হবে।

তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা, আইন ও সামাজিক বিজ্ঞান ইউনিটের সমন্বয়ক ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক জিয়া রহমান আমার সাথে এবং দুইজন উপ-উপাচার্য, ট্রেজারার, পরীক্ষা উপদেষ্টা ও প্রক্টরিয়াল টিমের সাথে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখছেন। আমরা সার্বক্ষণিক সতর্ক থাকছি যেন প্রতারক চক্রটি এবারের ভর্তি পরীক্ষাকে কোনোভাবেই প্রভাবিত করতে না পারে।

উপাচার্য বলেন, পরীক্ষা শান্তিপূর্ণভাবে হয়েছে। বেলা ১১টায় ঢাকাসহ দেশের আটটি বিভাগীয় শহরে একযোগে পরীক্ষা হয়েছে। গতকাল রাত ও আজ সকালে সব বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ও ভর্তি কমিটির সংশ্লিষ্টদের সাথে আমার কথা হয়েছে। কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

উল্লেখ্য, আজ ২৩ ফেব্রুয়ারি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২৩-২৪ শিক্ষাবর্ষের আন্ডারগ্র্যাজুয়েট ভর্তি পরীক্ষা কলা, আইন ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদ তথা ‘খ’ ইউনিটের পরীক্ষা শুরু হয়। বেলা ১১টায় পরীক্ষা শুরু হয়ে দুপুর সাড়ে ১২টায় শেষ হয়।

‘খ’ ইউনিটের পরীক্ষায় দুই হাজার ৯৩৪টি আসনের বিপরীতে আবেদন পড়েছে এক লাখ ২২ হাজার ২৭৯টি। সে হিসাবে প্রতিটি আসনের জন্য ৪২ জন শিক্ষার্থী লড়াই করছেন।

পরীক্ষায় সময় ছিল এক ঘণ্টা ৩০ মিনিট। এর মধ্যে ৬০ নম্বরের এমসিকিউ অংশের জন্য বরাদ্দ ছিল ৪৫ মিনিট। ৪০ মার্কের লিখিত অংশের জন্য বরাদ্দ ছিল ৪৫ মিনিট।

সর্বশেষ সংবাদ

অবৈধ মজুতকরে যারা ক্রাইসিস তৈরি করে তারা দেশের শত্রু: খাদ্যমন্ত্রী
মহাসড়কের পাশে ১ দিনে সাড়ে ৩ হাজার স্থাপনা উচ্ছেদ
কোনো প্রশ্নফাঁসের ঘটনা ঘটেনি : ঢাবি উপাচার্য
সৈয়দপুরের চেয়েও বড় রেল কারখানা হবে রাজবাড়ীতে: রেলমন্ত্রী
মাহির ছবি প্রকাশ করে যা বললেন তার স্বামী
বিচার বিভাগের স্বচ্ছতা নিশ্চিতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ সরকার: রাষ্ট্রপতি
গাজায় ক্ষুধা-অপুষ্টির নিষ্ঠুরতায় ভুগছে হাজার হাজার মানুষ: জাতিসংঘ
টাঙ্গাইলে ২০০ সুবিধাবঞ্চিত শিশুর হাতে বিনামূল্যে বই বিতরণ
পাকিস্তানে নির্বাচনে কারচুপির বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে যাবে পিটিআই
শান্তিতে নোবেল পুরস্কারের জন্য মনোনীত হলেন ইলন মাস্ক
ভোটার টানতে কন্ডমের প্যাকেটে দলীয় প্রতীক ছাপিয়ে বাড়ি বাড়ি বিলি
ভালোবাসার মাসে মা হলেন মিথিলা, বাবা সৃজিত
মাকে শেষ বিদায় দিতে এসে সড়কেই প্রাণ গেল ইতালি প্রবাসীর
আগামীতে পেঁয়াজ আমদানি করতে হবে না : প্রধানমন্ত্রী
'সহায়তা অব্যাহত রাখবে বিশ্বব্যাংক'
ডিবিতে ৫০ মিনিট কি করলেন নিপুন
পুলিশ পদক পেলেন ৪০০ জন কর্মকর্তা
এক তরুণীকেই ১০০ বারের বেশি ধর্ষণ !
পুতিনকে কুকুরের বাচ্চা বলায় বাইডেনকে যা বললেন ক্রেমলিন
সাকিবকে নিয়ে দুঃসংবাদ দিলো বিসিবি