শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০২৪ | ৬ বৈশাখ ১৪৩১
Dhaka Prokash

এমআরটি-২, ৪: ঋণের ফাঁদ ও পরিশোধের সক্ষমতা বিবেচনায় নেওয়ার আহ্বান

রাজধানীর যানজট কমাতে চারদিকে চলছে মেট্রোরেলের (এমআরটি-৬ লাইন) বিশাল কর্মযজ্ঞ। ইতোমধ্যে, উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত মেট্রোরেল যাতায়াত শুরু করেছে। নভেম্বরে যাবে মতিঝিল পর্যন্ত। মেট্রোরেল-১ এবং মেট্রোলাইন-৫ এর কাজও চলছে। নতুন করে কাজ শুরুর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে এমআরটি-২ এবং ৪ এর কাজ।

এ অবস্থায় বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এগুলো অবশ্যই ভালো উদ্যোগ। তবে ঋণের ফাঁদ ও পরিশোধের সক্ষমতাও সরকারকে বিবেচনায় নিতে হবে।

নারায়ণগঞ্জ পর্যন্ত মেট্রোরেলের (এমআরটি-২ ও ৪) কাজ শেষে হবে ২০৩০ সালে। এ প্রকল্প তাতে মোট ব্যয় ধরা হয়েছে প্রায় ৯০ হাজার কোটি টাকা। এর মধ্যে ঋণ হচ্ছে ৬৭ হাজার কোটি টাকা।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ঋণ ফাঁদ ও পরিশোধের সক্ষমতার ব্যাপারটি অবশ্যই বিবেচনা করতে হবে। কারণ, কয়েক বছর থেকে বিভিন্ন মেগা প্রকল্প শুরু হয়েছে, এসবই বিদেশি ঋণ। আবার ইউক্রেন-রাশিয়ার যুদ্ধে সব কিছু ওলটপালট করে দিচ্ছে। তবে সরকারের পক্ষ ধেকে বলা হচ্ছে আর্থিকভাবে সমস্যা থাকলেও সামাজিকভাবে লাভবান হবে দেশ। তাই রাজধানী ও এর আশেপাশের যানজট কমাতে দেশের স্বার্থে মেট্রোরেল দরকার।

সার্বিক ব্যাপারে জানতে চাইলে বেসরকারি গবেষণা প্রতিষ্ঠান সিপিডির সম্মানীয় ফোলো অধ্যাপক মোস্তাফিজুর রহমান ঢাকাপ্রকাশ-কে বলেন, ‘বাংলাদেশের অবকাঠামো ও ঢাকার যোগাযোগ ব্যবস্থায় বেশি করে বিনিয়োগ করতে হবে। আর্থ-সামাজিকভাবে এর ইতিবাচক দিক আছে। তাতে কোনো সন্দেহ নেই।’

কিন্তু সম্পদ আহরণে সীমাবদ্ধতা রয়েছে উল্লেখ করে মোস্তাফিজুর রহমান বলছেন, ‘এর সক্ষমতা বাড়াতে হবে। কারণ ট্যাক্স জিডিপির অনুপাত ৯ শতাংশের কাছে। আবার বাজেট ঘাটতি ৪ শতাংশের উপরে। সব মিলে বলা যায় পাবলিক এক্সপেন্ডিচার (জনগণের খরচ) বেশি নয়। এজন্য উন্নয়নের সঙ্গে সম্পদ আহরণে লক্ষ্য থাকতে হবে।’

অপর এক প্রশ্নের জবাবে এই অর্থনীতিবিদ বলেন, অভ্যন্তরীণ সম্পদ আহরণ করে উন্নয়নে সুশাসন নিশ্চিত করতে হবে। কোনো ধরনের ঋণ চাপে যাতে না পড়ে সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। কারণ, অনেক দেশ ঋণ ফাঁদে পড়েছে। বৈশ্বিক পরিস্থিতি বিশেষ করে ইউক্রেন-রাশিয়ার যুদ্ধের অনিশ্চয়তার আলোকে আমাদের অর্থ ব্যয় ও প্রকল্প বাস্তবায়নে সাশ্রয়ী হতে হবে। এ ক্ষেত্রে খুবই সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে।

এবার নারায়নগঞ্জ পর্যন্ত সম্প্রসারণে বিদেশি ঋণ ধরা হয়েছে ৬৭ হাজার কোটি টাকা। অন্যান্য মেগা প্রকল্পে বিদেশি ঋণের কিস্তিু শিগগিরই পরিশোধ করতে হবে। এর সক্ষমতা কতটুকু রয়েছে বাংলাদেশের সেই প্রশ্নও করছেন বিশেষজ্ঞরা।

জানতে চাইলে পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ও কৃষি অর্থনীতিবিদ ড. শামসুল আলম ঢাকাপ্রকাশ-কে বলেন, বিভিন্ন প্রকল্পে আমাদের ঋণ আছে, নিতে হচ্ছে। এটা সত্য। তবে তা সহনীয় মাত্রায়। পরিশোধ সক্ষমতা আছে বলেই বিদেশিরা আমাদের ‍ঋণ দিচ্ছে। জাইকা আমাদের পরম বন্ধু। তারা সব সময় পাশে থাকে। এজন্যই রাজধানীর যানজট কমাতে আগ্রহ দেখিয়েছে, ঋণ দিয়েছে।

ঢাকার যানজট পাশের জেলাতেও কী ছড়িয়ে যাচ্ছে। এজন্য নারায়নগঞ্জ পর্যন্ত মেট্রোরেল সম্প্রসারণ করার উদ্যোগ নিয়েছে। কিন্তু এক সঙ্গে ঋণ পরিশোধের চাপে পড়বে না দেশ? অর্থনৈতিকভাবে প্রভাব পড়বে না। এমন প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ‘দেখেন অর্থনৈতিকভাবে চাপে পড়লেও সামাজিকভাবে লাভবান হবে দেশ। কারণ, সাধারণ মানুষ নিরাপদ ও সহজে যাতায়াত করতে পারবে মেট্রোরেলে।’

রাজধানীর চারটি রুটে শুধু মেট্রোরেলেই এক লাখ ১৭ হাজার কোটি টাকা ব্যয় করা হচ্ছে। এর মধ্যে বিদেশি জাইকার ঋণ ৮৫ হাজার কোটি টাকার বেশি। উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত ইতিমধ্যে মেট্রোরেল-১ এ মানুষ যাতায়াত শুরু করেছেন। অল্প সময়ের মধ্যে মতিঝিলও যাবে মেট্রোরেল।

কিন্তু রাজধানীতে প্রবেশ করতে নারায়নগঞ্জ থেকেও যানজট লেগে থাকছে। তাই সরকার এবার মেট্রোরেল-২ লাইনে গাবতলী থেকে নারায়নগঞ্জ পর্যন্ত ৩৫ দশমিক ৫ কিলোমিটার মেট্রোরেল করার উদ্যোগ নিয়েছে। এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে ও আন্ডারগ্রাউন্ডে এ লাইন করতে খরচ ধরা হয়েছে ৬০ হাজার ৮৩৬ কোটি টাকা।

এর মধ্যে ঋণ ধরা হয়েছে ৪৫ হাজার ৬২৬ কোটি টাকা। বাকি অর্থ সরকারি কোষাগার থেকে ব্যয় করা হবে। গাবতলী. ঢাকা উদ্যান-মোহাম্মদপুর-জিগাতলা-নিউমার্কেট-ঢাকা মেডিকেল-গুলিস্তান-মতিঝিল-কমলাপুর-মান্ডা-সাইনবোর্ড-নারায়নগঞ্জ পর্যন্ত। বাস্তায়নকাল ধরা হয়েছে ২০২৩ সালের জুলাই থেকে ২০৩০ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত।

এ ছাড়া, মেট্রোরেল-৪ নামে লাইনটি ধরা হয়েছে কমলাপুর থেকে যাত্রাবাড়ি-চট্রগ্রাম রোড-কাঁচপুর-মদনপুর পর্যন্ত। ১৬ কিলোমিটার দীর্ঘ এ লাইনে খরচ ধরা হয়েছে ২৮ হাজার ৪০০ কোটি টাকা। এর মধ্যে ঋণ ধরা হয়েছে ২১ হাজার ২৫০ কোটি টাকা। বাস্তায়নকাল ধরা হয়েছে ২০২৩ সালের জুলাই থেকে ২০৩০ সালের জুলাই পর্যন্ত।

প্রকল্পটি দুইটি বাস্তবায়ন করতে অর্থের সরবরাহের ব্যাপারে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয় থেকে প্রাথমিক উন্নয়ন প্রকল্প প্রস্তাব (পিডিপিপি) পরিকল্পনা কমিশনে পাঠানো হয়েছে। তা যাচাই-বাচাই করা হয়েছে। পরিকল্পনামন্ত্রী এসে স্বাক্ষর করে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগে (ইআরডি) পাঠানো হয়েছে। সংশ্লিষ্ট সুত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

তবে ইআরডি সূত্র জানায়, সাধারণত যেকোনো প্রকল্পের অর্থায়নের জন্য প্রস্তাব উন্নয়ন সহযোগী সংস্থার সবার কাছে পাঠানো হয়। অনেকে রাজি হলেও আমরা আমাদের দিকটা বিবেচনা করি। কারণ, মেট্রোরেলে এ পর্যন্ত জাপানি ঋণদাতা সংস্থা জাইকা মেট্রোরেলে ঋণ দিয়েছে। তাই এবারও আশা করা যায় জাইকা এগিয়ে আসলে তাদের ঋণে আগ্রহ দেখানো হবে। তারা নিশ্চিতা দিলে সার্বিক ব্যাপারে আলোচনা করে ঋণ চুক্তি হবে। একই সঙ্গে ডিপিপি তৈরি করে অনুমোদনের জন্য পরিকল্পনা করিশনে পাঠানো হবে।

সূত্র জানায়, সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের আওতায় রাজধানীতে মেট্রোরেল বাস্তবায়ন করতে ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি গঠন করেছে সরকার। এর আওতায় এমআরটি-৬সহ আরও কয়েকটি রুটের কাজ চলছে। এর মধ্যে রাজধানীর যানজট কমাতে উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত মেট্রোরেল বা এমআরটি-৬ চলাচল শুরু করেছে। নভেম্বরে মতিঝিল পর্যন্ত চলবে। প্রথমে প্রায় সাড়ে ২৩ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে প্রকল্পটি ২০২৪ সালের জুনে শেষ করার কথা। কিন্তু পরে মতিঝিল পর্যন্ত সম্প্রসারণ করায় খরচ বেড়ে প্রায় সাড়ে ৩৩ হাজার কোটি টাকা দাঁড়িয়েছে। এর কাজ শুরু হয়েছিল ২০১২ সালের জুলাই মাসে। জাইকার ঋণ সাড়ে ১৬ হাজার কোটি টাকা। বাকি অর্থ সরকার ব্যয় করছে।

এ ছাড়া, মেট্রোরেল-১ প্রকল্পটির কাজও শুরু হয়েছে ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বরে। তা শেষ হবে ২০২৬ সালে। এতে ব্যয় ধরা হয়েছে ৫২ হাজার ৫৬১ কোটি টাকা। এতে জাইকার ঋণ হচ্ছে সাড়ে ৩৯ হাজার কোটি টাকা। অপরদিকে, ৪১ হাজার ২৩৮ কোটি টাকা ব্যয়ে মেট্রোলাইন-৫ এর কাজও শুরু হয়েছে। তা ২০১৯ সালের জুলাইতে শুরু হয়েছে, শেষ হবে ২০২৮ সালে। এতে জাইকার ঋণ হচ্ছে ২৯ হাজার ১১৭ কোটি টাকা।

ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানির আওতায় চলমান তিন মেট্রোরেলে ব্যয় ধরা হয়েছে এক লাখ ১৭ হাজার ২৯০ কোটি টাকা। এতে জাইকার ঋণ হচ্ছে ৮৫ হাজার ১৬২ কোটি টাকা। বাকি অর্থ সরকারি কোষাগার থেকে ব্যয় করা হবে।

উল্লেখ্য, উত্তরা থেকে মতিঝিল পর্যন্ত মেট্রোপথ আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে যাত্রী চলাচলের জন্য খুলে দেওয়া হতে পারে। তবে ২০৩০ সালের মধ্যে রাজধানীর বুকে প্রস্তুত হবে আরও তিনটি মেট্রোরেল পথ। রাজধানীর যানজট কমিয়ে মানুষের যাতায়াত সহজ ও দ্রুত করার লক্ষ্যে বিশ্বের উন্নত দেশের মতো মেট্রোরেল নির্মাণের উদ্যোগে ২০১২ সালে সায় দেয় সরকার।

সূত্র জানায়, সরকারের পরিকল্পনা অনুযায়ী মোট ৬ ধাপে মেট্রোরেল নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়া হয়। সে পরিকল্পনার প্রথম ধাপে গঠন করা হয় ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেড (ডিএমটিসিএল)। উড়াল ও পাতাল রেলপথ মিলিয়ে ৬ ধাপে রয়েছে, এমআরটি লাইন-৬, এমআরটি লাইন-১, এমআরটি লাইন-৫ এ দুই রুট রয়েছে নর্দার্ন ও সাউদার্ন, এমআরটি লাইন-২, এমআরটি লাইন-৪।

উড়াল-পাতাল মিলিয়ে এমআরটি লাইন-১ এর আওতায় নির্মাণ হবে প্রায় ৩১ কিলোমিটার রেলপথ। ২০১৯ সালে এমআরটি লাইন-১ এর অনুমোদন দেওয়া হয়। লাইনটি বিমানবন্দর থেকে নতুনবাজার, কমলাপুর হয়ে পূর্বাচল পর্যন্ত বিস্তৃত হবে। এটি বিমানবন্দর ও পূর্বাচল এই দুই ভাগে বিভক্ত। একাংশে বিমাবন্দর অংশে বিমানবন্দর থেকে কমলাপুর পর্যন্ত। এই অংশে মোট ২০ কিলোমিটার পথে পাতালে স্টেশন হবে ১২টি। বিমানবন্দর রুটই হবে বাংলাদেশের প্রথম পাতাল রেল।

আর পূর্বাচল অংশে ১১ কিলোমিটার রুট হবে নতুনবাজার থেকে পিতলগঞ্জ ডিপো। এই অংশের পুরোটাই উড়াল এখানে স্টেশন হবে নয়টি। এর মধ্যে সাতটি স্টেশন উড়াল পথে আর বাকি দু’টি নদ্দা ও নতুনবাজার এলাকায় পাতাল স্টেশনের সঙ্গে মিলে থাকবে। নতুনবাজার স্টেশনে এমআরটি লাইন-৫ নর্দান রুটের সঙ্গে আন্তঃলাইন সংযোগ থাকবে। নদ্দা ও নতুন বাজার স্টেশন আন্তঃসংযোগ রুট ব্যবহার করে বিমানবন্দর রুট থেকে পূর্বাচলে যাওয়া যাবে।

২০২৮ সালের মধ্যে রাজধানীর সাভারের হেমায়েতপুর থেকে ভাটারা পর্যন্ত উড়াল-পাতাল মিলিয়ে মোট ২০ কিলোমিটার মেট্রোরেল পথ নির্মাণ করার পরিকল্পনা রয়েছে। এর মধ্যে ১৩ দশমিক ৫০ কিলোমিটার হবে উড়াল এবং ৭ কিলোমিটার রেলপথ নির্মাণ হবে পাতাল। মোট ১৪টি স্টেশনের ৯টি উড়াল পথে আর ৫টি স্টেশন থাকবে পাতাল পথে। এমআরটি লাইন-৫ নর্দার্ন রুট নামে পরিচিত এই অংশের সার্ভে কাজ চূড়ান্ত পর্যায়ে।

আরইউ/এমএমএ/এএস

তীব্র গরমের মধ্যেই ঢাকাসহ তিন বিভাগে ঝড়-শিলাবৃষ্টির আভাস

ঝড়-শিলাবৃষ্টির আভাস। ছবি: সংগৃহীত

সারাদেশে তীব্র গরমে হাঁসফাঁস জনজীবন অবস্থা। এপ্রিল মাসের বাকি সময় জুড়ে এ পরিস্থিতি অব্যাহত থাকতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। তবে এর মধ্যেই রাজধানী ঢাকাসহ দেশের তিন বিভাগে সুখবর দিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। এই তিন বিভাগে ঝড়সহ শিলাবৃষ্টি হতে পারে বলে জানানো হয়েছে।

শুক্রবার (১৯ এপ্রিল) সকাল ৯টায় দেওয়া বর্ধিত ৫ দিনের আবহাওয়ার পূর্বাভাসে এমন তথ্য জানানো হয়েছে।

পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, আজ শুক্রবার ঢাকা, চট্টগ্রাম এবং সিলেট বিভাগের দু-এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা অথবা ঝোড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে শিলাবৃষ্টি হতে পারে।

একই সঙ্গে বাগেরহাট, যশোর, চুয়াডাঙ্গা ও কুষ্টিয়া জেলাসমূহের ওপর দিয়ে তীব্র তাপপ্রবাহ এবং দিনাজপুর, রাঙ্গামাটি, চাঁদপুর, খুলনা, সাতক্ষীরা, বরিশাল ও পটুয়াখালী জেলাসহ ঢাকা ও রাজশাহী বিভাগের ওপর দিয়ে মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা অব্যাহত থাকতে পারে।

এ দিন সারা দেশে দিনের তাপমাত্রা বৃদ্ধি পেতে পারে এবং রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে। জলীয় বাষ্পের আধিক্যের কারণে অস্বস্তি বৃদ্ধি পেতে পারে।

পরের দিন ময়মনসিংহ এবং সিলেট বিভাগের দু-এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা অথবা ঝোড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গো কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে শিলাবৃষ্টি হতে পারে।

তাপমাত্রা সারা দেশে দিন এবং রাতের তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পেতে পারে। জলীয় বাষ্পের আধিক্যের কারণে অস্বস্তি বৃদ্ধি পেতে পারে। এ ছাড়াও রোববার ময়মনসিংহ, চট্টগ্রাম এবং সিলেট বিভাগের দু-এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা অথবা ঝোড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেই সঙ্গে কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে শিলাবৃষ্টি হতে পারে।

এদিকে যশোর ও চুয়াডাঙ্গায় বৃহস্পতিবার দেশের সর্বোচ্চ ৪০ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করেছে আবহাওয়া অধিদফতর। এদিন দেশের সর্বনিম্ন ২০ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় কিশোরগঞ্জের নিকলিতে।

ফরিদপুরে মন্দিরে আগুন, সন্দেহের জেরে গণপিটুনিতে ২ ভাই নিহত

ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। ছবি: সংগৃহীত

ফরিদপুরের মধুখালীর ডুমাইন ইউনিয়নের পঞ্চপল্লীতে গণপিটুনিতে দুই নির্মাণশ্রমিক নিহত হয়েছেন। এ সময় পুলিশ সদস্যসহ গুরুতর আহত হয়েছেন আরও আটজন। এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। সেই সাথে চার প্লাটুন বিজিবি মোতায়েনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

শুক্রবার (১৯ এপ্রিল) জেলা প্রশাসক মো. কামরুল আহসান তালুকদার গণপিটুনিতে দুইজন শ্রমিক নিহতের খবর নিশ্চিত করেছেন।

নিহত দুই নির্মাণ শ্রমিক হলেন- মধুখালী উপজেলার নওয়াপাড়া ইউনিয়নের ঘোপেরঘাট গ্রামের শাহজাহান খানের ছেলে আশরাফুল (২১) ও তার ভাই আশাদুল (১৫)।

এর আগে বৃহস্পতিবার (১৮ এপ্রিল) উপজেলার ডুমাইন ইউনিয়নের পঞ্চপল্লী গ্রামের বারোয়ারী মন্দিরে আগুনের ঘটনা ঘটে। এরপর এই আগুন দেওয়ার অভিযোগে মন্দিরের পাশের স্কুলে নির্মাণকাজে নিয়োজিত শ্রমিকদের ওপর হামলা চালান স্থানীয়রা।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, হিন্দু অধ্যুষিত পঞ্চপল্লী গ্রামের ওই বারোয়ারি মন্দিরের কালী প্রতিমায় বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার পর আগুন লাগার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় স্থানীয় লোকজন বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে। তারা মন্দির থেকে ২০ গজ দূরের পঞ্চপল্লী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ওয়াশরুম নির্মাণকাজে নিয়োজিত মুসলিম সাত শ্রমিককে সন্দেহ করে স্কুলের শ্রেণিকক্ষে অবরুদ্ধ করে মারপিট করে।

খবর পেয়ে মধুখালী থানা পুলিশ ও উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা ঘটনা স্থলে গেলে হামলাকারীরা তাদেরও অবরুদ্ধ করে রাখে, এবং হতাহতদের উদ্ধারে বাধা দেয়। পরে ফরিদপুরের জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার ফরিদপুর, রাজবাড়ী ও মাগুরা জেলা থেকে অতিরিক্ত পুলিশ ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে প্রায় ৫ ঘণ্টা পর তাদের উদ্ধার করে মধুখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এবং ৪ জনকে ফরিদপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় দুইজন মারা যান। আহত আরও দুজনের অবস্থাও আশঙ্কাজনক।

এ বিষয়ে ফরিদপুরের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোর্শেদ আলম বলেন, এখানে কয়েকজন নির্মাণ শ্রমিক কাজ করছিলেন। উত্তেজিত জনতা ভেতরে ঢুকে তাদের লাঠি দিয়ে বেদম প্রহার করে ও ইট দিয়ে থেতলিয়ে গুরুতর আহত করে। খবর পেয়ে মধুখালী থানার ওসি ফোর্সসহ এখানে আসে। তাদের সঙ্গে মধুখালী উপজেলার ইউএনও ছিলেন। তারা এখানে এসে উত্তেজিত জনতার হাতে আটকে পড়েন। খবর পেয়ে আমরা ফরিদপুর থেকে অতিরিক্ত ফোর্সসহ এসে তাদেরসহ আহতদের উদ্ধার করে অ্যাম্বুলেন্সে ফরিদপুরে হাসপাতালে পাঠাই।

রাজধানীর শিশু হাসপাতালে আগুন, নিয়ন্ত্রণে ৫ ইউনিট

রাজধানীর শিশু হাসপাতালে আগুন। ছবি: সংগৃহীত

রাজধানীর আগারগাঁওয়ে ঢাকা শিশু হাসপাতালের ভবনে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। আগুন নিয়ন্ত্রণে ফায়ার সার্ভিসের ৫ ইউনিট কাজ করছে।

শুক্রবার (১৯ এপ্রিল) আগুন লাগার খবর পায় ফায়ার সার্ভিস।

ফায়ার সার্ভিস নিয়ন্ত্রণ কক্ষের ডিউটি অফিসার লিমা খানম বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, শুক্রবার ১টা ৪৭ মিনিটে শিশু হাসপাতালে আগুন লাগার খবর পাওয়া যায়। খবর পেয়ে দ্রুত প্রথমে দুই ইউনিট ও পরে আরও তিন ইউনিট হাসপাতালে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে চেষ্টা করছে। এখন পর্যন্ত ৫টি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে।

তিনি জানান, প্রাথমিকভাবে আগুন লাগার কারণ ও হতাহতের কোনো খবর জানা যায়নি।

সর্বশেষ সংবাদ

তীব্র গরমের মধ্যেই ঢাকাসহ তিন বিভাগে ঝড়-শিলাবৃষ্টির আভাস
ফরিদপুরে মন্দিরে আগুন, সন্দেহের জেরে গণপিটুনিতে ২ ভাই নিহত
রাজধানীর শিশু হাসপাতালে আগুন, নিয়ন্ত্রণে ৫ ইউনিট
জাতীয় পতাকার নকশাকার শিব নারায়ণ দাস মারা গেছেন
ক্ষেপণাস্ত্র হামলার খবর অস্বীকার ইরানের, তেহরানে বিমান চলাচল স্বাভাবিক
নওগাঁয় ভুয়া সিআইডি কর্মকর্তা গ্রেপ্তার
মানুষ এখন ডাল-ভাত নয়, মাছ-মাংস নিয়ে চিন্তা করে: প্রধানমন্ত্রী
দাঁড়িয়ে থাকা বাসকে পিকআপের ধাক্কা, ১০ পোশাককর্মী আহত
নতুন রেকর্ড গড়ে ইউরোপা লিগের সেমিতে লেভারকুসেন
ইরানে ইসরাইলের হামলা: লাফিয়ে বাড়ছে তেল ও স্বর্ণের দাম
মিয়ানমার থেকে পালিয়ে এলেন আরও ১৩ বিজিপি সদস্য
চুয়াডাঙ্গায় স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণ করার লক্ষ্যে কিশোর-কিশোরীদের নিয়ে সেমিনার
ইরানে হামলা শুরু করেছে ইসরায়েল
নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ, ডিপজলকে শোকজ
টাঙ্গাইলে সেরা ওসি হলেন আহসান উল্লাহ্, পেলেন শ্রেষ্ঠ সম্মাননা পুরস্কার
দেশে প্রতিদিন সড়কে প্রাণ হারাচ্ছেন ১৬ জনের বেশি
টানা তিনদিন চুয়াডাঙ্গায় দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড, হিট অ্যালার্ট জারি
তীব্র গরমে পশ্চিমবঙ্গে স্কুল ছুটি ঘোষণা
ব্রিটিশ হাইকমিশনারের সঙ্গে বিএনপি নেতাদের বৈঠক
বাংলাদেশ সেনাবাহিনী জাতিসংঘের 'প্রিমিয়াম টিম': সেনাপ্রধান