বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪ | ৬ আষাঢ় ১৪৩১
Dhaka Prokash

রাজধানী ঢাকা আজ দূষণের নগরীতে পরিণত হয়েছে

ঢাকা মহানগরী বহুদিন থেকেই বায়ু দূষণের শহর। এটি আজ নতুন কোনো খবর নয়। একইভাবে ভারতের নয়াদিল্লী এবং চীনের রাজধানী বেইজিং সর্বত্রই দূষণ পরিলক্ষিত হচ্ছে— বিশেষ করে দিল্লী এবং ঢাকা বায়ু দূষণের শহর হিসেবে এখন পরিচিত। আমরা দেখতে পাই, প্রতিনিয়ত এখানে নির্মাণ কাজ চলছে। প্রায় সব এলাকাতেই নতুন নতুন রাস্তা তৈরি হচ্ছে, পুরানো রাস্তা খুঁড়ে বানানো হচ্ছে নতুন অর্থাৎ নানা রকমের নির্মাণ যেখানে ধুলিবালি ও ধোঁয়ায় ঢাকা আচ্ছন্ন হয়ে থাকে।

ঢাকা শহরে আজকাল বাস, প্রাইভেট গাড়ি, অটোরিকশা, মোটরসাইকেলসহ গাড়ির সংখ্যা অনেক বেশি বেড়ে গেছে। যার ফলে বায়ু দূষণের অন্যতম বড় কারণ হচ্ছে এটি। আমরা জানি, চারদিকে অনেক ইটের ভাটা বিশেষ করে শহরের বাইরে গেলেই দেখা যায়, সেগুলো থেকে ধোঁয়া বিচ্ছুরিত হচ্ছে। বিভিন্ন রকম নির্মাণ কাজ বেড়ে গেছে। অপরিকল্পিতভাবে নতুন নতুন ঘর-বাড়ি, শিল্প-কারখানা তৈরির কারণে নানাভাবেই বায়ু দূষণ হচ্ছে।

আমার মতে, সার্বিকভাবে আমাদের প্রশাসনিক ব্যবস্থাপনার বিষয়টি খুব দুর্বল। কেউ কোনো আইন মানতে চাচ্ছে না। ইটের ভাটা চলছে। গাড়ি ঘোড়া বাড়ছে। দেখা যায় খুবই নিম্নমানের গাড়ি শহরে চলাচল করে যেখান থেকে দূষণ হয়। নির্মাণকাজে কোনোরকম কন্ট্রোল নাই। অন্যদিকে কাজের সন্ধানে শহরে মানুষ বাড়ছে, বাড়িঘর বাড়ছে। সবখানেই নিয়ন্ত্রণের বড় অভাব। যেকারণে ঢাকার বাতাস দূষিত। রাজধানী ঢাকার মতোই ভারতের রাজধানী দিল্লিরও একই অবস্থা। দিল্লিও ঢাকার মতোই বড় শহর ও রাজধানী। রাজধানী সুন্দর রাখতে পরিকল্পিত বিধিগত উন্নয়ন সম্ভব হচ্ছে না এবং যে কারণে দিনকে দিন অবস্থা খারাপের দিকেই যাচ্ছে।

বাংলাদেশ একটি কঠিন বাস্তবতার মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। একটি ছোট দেশ আয়তনে জনসংখ্যার তুলনায় খুবই ছোট। প্রতি বর্গ কিলোমিটারে ১২০০ এর বেশি মানুষ বাস করে। বাংলাদেশ পৃথিবীর অষ্টম জনবহুল দেশ। বাংলাদেশে আজ ১৭ কোটি মানুষ যেটি ৭১ সালে ছিল মাত্র ৭ কোটি, বঙ্গবন্ধু রেখে গেছেন সাড়ে ৭ কোটি। এখন গ্রামেও মানুষ বেড়েছে। ঘরবাড়ি বেড়ে যাচ্ছে। একইহারে দূষণ বাড়ছে।

বাংলাদেশ কঠিন ভৌগলিক বাস্তবতার দেশ এবং নিয়মকানুন পরিকল্পনা ভীষণ দুর্বল। কেউ কারো কথা শোনেন না। সরকারের যারা কর্তা ব্যক্তিরা দূরে থাকেন, তারা এয়ার কন্ডিশন বাড়িতে থাকেন, গাড়িতে বেড়ান, এরা দেখেও আসলে অনেক কিছু দেখেন না। অনেকের হয়ত সদিচ্ছা আছে তবুও কিছু করতে পারেন না। দেশের জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার ১.৩ শতাংশ। প্রতি বছর যদি ১ শতাংশ করেও বাড়ে তাহলেও ১৭ লক্ষ লোক বাড়ছে। বায়ু দূষণের কারণ হচ্ছে অতিরিক্ত জনসংখ্যা। যুদ্ধ পরবর্তী বাংলাদেশ তখন একটি গরিব দেশ ছিল। স্বাধীনতা উত্তর বাংলাদেশের অনেক সীমাবদ্ধতা আমরা দেখেছি। আজ আমরা বাংলাদেশকে ডিজিটাল বাংলাদেশ বলে আখ্যায়িত করে থাকি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের উন্নয়নে কাজ করছেন।

দেশের উন্নয়ন হচ্ছে এ কথা সত্য। একসময় মাথাপিছু আয় ছিল ৭০ থেকে ৮০ ডলার। এখন সেটি ৩ হাজার ডলার। বিভিন্ন ক্ষেত্রে অর্থনৈতিক উন্নতি আমরা দেখি। সেখানে সরকারের সাফল্য নিশ্চয় আছে। জনপ্রতিনিধি ও ব্যবসায়ীদের সাফল্য আছে। শিল্পপতিদের সাফল্য আছে। কিন্তু এইসব উন্নয়নের সঙ্গে সঙ্গে পরিবেশ অবক্ষয় ও দূষণও পাল্লা দিয়ে বাড়ছে।

যদি না খুব কঠিনভাবে পরিকল্পনা করা না হয়— আমাদের এতটুকু দেশে এত মানুষ, অপরিকল্পিতভাবে বেড়ে উঠা কলকারখানা, অত্যধিক যানবাহন সবই সঠিক শৃঙ্খলা ও সমন্বয়ের অভাবে আজ বায়ুদূষণ, পানিদূষণ, শব্দদূষণসহ সকল দূষণের সৃষ্টি করছে। যা জনসাধারণের জীবনযাপনের উপর ভয়াবহ ক্ষতিকর প্রভাব ফেলছে। একইসঙ্গে খুবই দুঃখজনক সত্যি হলো নগরের এইসব নানারকম দূষণ সাধারণ মানুষের জীবনযাপনকে অতিমাত্রায় দুর্বিষহ করে তুলেছে।

নজরুল ইসলাম: নগরবিদ

আরএ/

Header Ad

৮ জুলাই পর্যন্ত স্থগিত সিলেট বিভাগের এইচএসসি পরীক্ষা

ছবি: সংগৃহীত

পাহাড়ি ঢল ও গত কয়েকদিনের ভারী বর্ষণে আকস্মিক বন্যার কবলে পড়েছে সিলেট। প্লাবনে তলিয়ে গেছে বিভাগের সবকটি জেলার বেশিরভাগ এলাকা। পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন বিভাগের প্রায় ১৬ লাখ বাসিন্দা। এ অবস্থায় বিভাগটিতে আসন্ন এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা আগামী ৮ জুলাই পর্যন্ত স্থগিত করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২০ জুন) শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় কমিটির সভাপতি এবং ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক তপন কুমার সরকার তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেছেন, সিলেট বিভাগের বিভিন্ন জেলায় বন্যা পরিস্থিতি বিরাজ করছে। সেখানে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো আশ্রয়কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে। পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার মতো পরিস্থিতিতেও নেই শিক্ষার্থীরা। সার্বিক দিক বিবেচনায় ৮ জুলাই পর্যন্ত পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে। তবে ৯ জুলাই থেকে যে পরীক্ষাগুলো হওয়ার কথা ছিল সেগুলো যথারীতি হবে।

শিক্ষা বোর্ডের প্রকাশিত রুটিন অনুযায়ী, আগামী ৩০ জুন থেকে দেশব্যাপী একযোগে এই পরীক্ষা শুরু হওয়ার কথা। এদিন বাংলা প্রথমপত্রের পরীক্ষা দিয়ে চলতি বছরের এইচএসসি পরীক্ষা শুরু হবে। অন্যদিকে কুরআন মাজিদ পরীক্ষা দিয়ে শুরু হবে আলিম পরীক্ষা। আর কারিগরি বোর্ডের অধীনে এইচএসসির (বিএম/বিএমটি) বাংলা-২ বিষয়ের পরীক্ষা হবে।

৮ জুলাই পর্যন্ত পরীক্ষা স্থগিতের সিদ্ধান্ত গৃহীত হওয়ায় সিলেট বোর্ডে এইচএসসির বাংলা প্রথমপত্র ও দ্বিতীয়পত্র এবং ইংরেজি প্রথমপত্র ও দ্বিতীয়পত্র পরীক্ষা আপাতত হবে না। পরবর্তী সময়ে এ চারটি বিষয়ের পরীক্ষার নতুন সময়সূচি জানিয়ে দেবে শিক্ষা বোর্ড।

চলতি বছর সিলেট বোর্ডে এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষায় ৩০৯টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মোট ৮২ হাজার ৪১৭ জন পরীক্ষার্থী রয়েছেন।

মিয়ানমারকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, আমরাও পাল্টা গুলি চালাবো: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

বক্তব্য রাখছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। ছবি: সংগৃহীত

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, মিয়ানমার আর্মি ও আরাকান আর্মিকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, তারা যাতে বাংলাদেশের দিকে আর গুলি না চালায়। তা না হলে আমরাও পাল্টা গুলি চালাবো।

বৃহস্পতিবার (২০ জুন) সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নিজ দফতরে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

রাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, মিয়ানমারে বিভিন্ন জাতি-গোষ্ঠী সরকারের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করছে। আমরা যতদূর শুনেছি আরাকান রাজ্যে আরাকান আর্মি অনেক এলাকা দখল করে নিয়েছে। সেজন্য মিয়ানমারের যে বর্ডার গার্ড পুলিশ (বিজিপি) তারা আত্মরক্ষার্থে আমাদের এলাকায় পালিয়ে আসছে। কাজেই সেখানকার অবস্থা কী, সেটা আমরা বলতে পারব না। তবে এটুকু বলতে পারি, তারা মাঝে মাঝে ভুল করে আমাদের বিজিবি দলের ওপর গুলি করেছিল। সেটা তাদের জানিয়েছি। তারা যেটা বলছে যে সুনির্দিষ্টভাবে বাংলাদেশের পতাকা যেন উড়িয়ে যায়, তাহলে আর কেউ গুলি করবে না।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, টেকনাফ থেকে সেন্টমার্টিন যেতে হলে আমাদের এলাকায় নাফ নদী কিছু নাব্য হারিয়েছে। কাজেই সেখান দিয়ে আমাদের নৌ চলাচল করতে পারে না। মিয়ানমারের অংশ দিয়ে যেতে হয়। যে কারণে এ বিপত্তিটা ঘটেছে।

তিনি বলেন, কখনো মিয়ানমার আর্মি, কখনো আরাকান আর্মি ফায়ার ওপেন করে। আমরা উভয়কেই বলে দিয়েছি তারা আর যদি গুলি করে, আমরাও পাল্টা গুলি করব। ওখানে থেকে আর কোনো গোলাগুলি হচ্ছে না। এখানে মিয়ানমারের যে দুটি জাহাজ ছিল সেগুলো ফেরত নিয়ে গেছে। আমরা আশা করছি, সেখানে আর গুলি হবে না। তারপরও আমাদের যারা ওই পথ দিয়ে যাতায়াত করছেন, তারা সাবধানতা অবলম্বন করবেন।

আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে কর্মসূচি ঘোষণা

ফাইল ছবি

আওয়ামী লীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী (প্লাটিনাম জুবিলি) উপলক্ষে কর্মসূচি ঘোষণা করেছেন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। আজ বৃহস্পতিবার (২০ জুন) রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে দলের যৌথ সভায় এ কর্মসূচি ঘোষণা করেন তিনি। হীরকজয়ন্তী উপলক্ষে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জনসভাসহ ১০ দফা কর্মসূচি হাতে নিয়েছে দলটি।

প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আগামীকাল ‌শুক্রবার (২১ জুন) দুপুর ৩টায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন থেকে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর র‍্যালি শুরু হবে, যা ৩২ নম্বরে গিয়ে শেষ হবে।

পরের দিন রবীন্দ্র সরোবরে হবে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এ ছাড়াও আগামী রবিবার (২৩ জুন) সকাল ৭টায় ধানমণ্ডির ৩২ নম্বর সড়কে জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানাবেন দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনা। এরপর আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতাকর্মীরা। পরে দুপুরে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে দলের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর সমাবেশ হবে।

দিনটি উপলক্ষে সারা দেশে গাছ লাগানোর জন্য ‘সবুজ ধরিত্রী’ অভিযান পরিচালনা করা হবে। আগামী সোমবার (২৪ জুন) সন্ধ্যায় হাতিরঝিলে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজন করা হবে। এরপর ২৮ জুন হবে সাইকেল র‍্যালি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আজকে দেশের সব মহৎ অর্জন আওয়ামী লীগের মাধ্যমেই অর্জিত হয়েছে। গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাস পেরিয়ে এসেছে এ দল।’

তিনি সিলেট অঞ্চলের জনপ্রতিনিধিদের পানিবন্দি মানুষকে সহযোগিতার আহ্বান জানিয়ে বলেন, ‘সিলেটের বন্যা পরিস্থিতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিয়মিত খোঁজখবর নিচ্ছেন। সিলেটে ভয়াবহ বন্যা পরিস্থিতি। এই অবস্থায় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের ত্রাণ কার্যক্রম এবং উদ্ধার কার্যক্রমে অংশ নিতে হবে।’

সর্বশেষ সংবাদ

৮ জুলাই পর্যন্ত স্থগিত সিলেট বিভাগের এইচএসসি পরীক্ষা
মিয়ানমারকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, আমরাও পাল্টা গুলি চালাবো: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে কর্মসূচি ঘোষণা
যমুনা নদীতে বাড়ছে পানি, ভাঙন আতঙ্কে নদীপাড়ের মানুষ
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে গ্রীষ্মকালীন ছুটি কমল, শনিবার ছুটি বহাল
বিষাক্ত মদপানে নারীসহ ৩৭ জনের মৃত্যু, হাসপাতালে ৫৫
শিল্পীদের ১০ লাখ টাকা ঈদ উপহার দিলেন ডিপজল
বিয়ের আসরে স্ত্রীর দাবি নিয়ে হাজির বরের খালাতো বোন
সুপার এইটে আসতে পেরে খুশি, এখন যা হবে বোনাস: হাথুরুসিংহে
বিএনপি ভারতের সঙ্গে বৈরী সম্পর্ক তৈরি করে দেশের ক্ষতি করেছিল: ওবায়দুল কাদের
যাত্রাবাড়ীতে বাসায় ঢুকে স্বামী-স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যা
নওগাঁয় ঈদের আগে ও পরে সড়কে ঝরে গেল ৫ প্রাণ
বিশ্ব শরণার্থী দিবস আজ
মিয়ানমার থেকে গুলিবর্ষণের ঘটনা জাতিসংঘে উত্থাপন
ক্যারিবীয়দের গুঁড়িয়ে দিয়ে সুপার এইটে শুভসূচনা ইংল্যান্ডের
৩ বিভাগে বৃষ্টির পূর্বাভাস
পালিয়ে মায়ের কাছে যাওয়ার চেষ্টা, সাততলার কার্নিশে আটকে গেল কিশোরী
প্রেমিকা নিয়ে দ্বন্দ্ব, ‘বিশেষ অঙ্গ’ হারালেন দুই বন্ধু
১৫ লাখ টাকায় ছাগল কেনা ইফাত আমার ছেলে নয়: রাজস্ব কর্মকর্তা
ভাসানী বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে কর্মচারীদের মানববন্ধন