চ্যাটজিপিটির নতুন সিইও নিয়োগ পেয়েছেন মুসলিম নারী

২০ নভেম্বর ২০২৩, ০২:২৯ পিএম | আপডেট: ০৭ ডিসেম্বর ২০২৩, ০৯:২৫ এএম


চ্যাটজিপিটির নতুন সিইও নিয়োগ পেয়েছেন মুসলিম নারী
ছবি সংগৃহিত

বহুল আলোচিত চ্যাটজিপিটির মূল কোম্পানি ওপেনএআই থেকে চাকরি হারিয়েছেন এর সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও সিইও স্যাম অল্টম্যান। এবার কোম্পানিটির অন্তর্বর্তীকালীন সিইও হিসেবে দায়িত্ব নিতে যাচ্ছেন এর চিফ টেকনোলজি অফিসার হিসেবে দায়িত্ব পালন করা আলবেনিয়ান মিরা মুরাতি।

৩৪ বছর বয়সী মুরাতি প্রায় পাঁচ বছর ধরে ওপেনএআইয়ের শীর্ষপর্যায়ে কর্মরত আছেন। একইসেঙ্গে চ্যাটজিপিটি ও ডাল-ই এর মতো যুগান্তকারী সব প্রযুক্তি উদ্ভাবনে পর্দার আড়ালে থেকে কাজ করেছেন।

ওপেনএআইয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়, মিরার অনন্য সব দক্ষতা রয়েছে। একজন স্থায়ী সিইও খুঁজে বের করার আগ পর্যন্ত তিনি এই নবনিযুক্ত দায়িত্ব পালন করবেন।

কোম্পানিটির বর্তমান ও সাবেক কর্মকর্তাদের সাথে যোগাযোগ করে জানা যায়, মুরাতি কোম্পানির হেড অব অপারেশন হিসেবেও কাজ করছিলেন। উপযুক্ত সময়ে চ্যাটজিপিটির ভার্সনগুলো তৈরি করার পেছনে তার অগ্রণী ভূমিকা রয়েছে।

মুরাতি ওপেনএআইয়ের সাথে মাইক্রোসফট ও অন্যান্য বিনিয়োগকারীদের যোগাযোগ রক্ষার দায়িত্বে ছিলেন। এছাড়াও ওয়াশিংটন ও ইউরোপে এআই পলিসি তৈরির সাথেও তিনি যুক্ত ছিলেন।

আলবেনিয়ায় জন্মগ্রহণ করা মুরাতি পড়াশোনা করেছেন কানাডায়। ২০১৮ সালে তিনি ওপেনআইয়ের সাথে যুক্ত হন।

ওপেনএআইয়ে যুক্ত হওয়ার আগে মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত মুরাতি টেসলায় কর্মরত ছিলেন। সেখানে তিনি মডেল এক্স গাড়ী নির্মাণে এবং লিপ মোশনের কম্পিউটিং সিস্টেমের উন্নতিতে অবদান রাখেন।

অন্যদিকে গতকাল শুক্রবার (১৭ নভেম্বর) এক বিবৃতিতে ওপেনএআইয়ের বোর্ডের পক্ষ থেকে বলা হয়, অল্টম্যান নেতৃত্ব প্রদানের আস্থা হারিয়েছেন। তাই কোম্পানিকে সামনে এগিয়ে নিতে নতুন নেতৃত্ব প্রয়োজন। একইসাথে এই সহ-প্রতিষ্ঠাতা কোম্পানির বোর্ডের সদস্যপদ ছাড়তে যাচ্ছেন বলেও অনুমান করা হচ্ছে।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, অল্টম্যানের সিইও পদ থেকে অব্যাহতি বোর্ডে একটি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে করা হয়েছে। এক্ষেত্রে বোর্ড সিদ্ধান্ত নিয়েছে যে, তিনি ভালোভাবে যোগাযোগ রক্ষা করতে পারছিলেন না। এটি তার দায়িত্ব পালনের ক্ষমতাকে বাধাগ্রস্ত করছিল।

অন্যদিকে কোম্পানির পক্ষ থেকে এত কঠোর বার্তা প্রদান করা হলেও অল্টম্যান খুবই স্বাভাবিকভাবে একটি টুইটের মাধ্যমে বিদায় জানিয়েছেন। তিনি বলেন, আমি ওপেনএআইতে বেশ ভালো সময় কাটিয়েছি। এটা ব্যক্তিগতভাবে আমাকে বেশ পরিবর্তন করেছেন। আশা করি, বিশ্বকেও কিছুটা পরিবর্তন করেছে। আমি এখানে বহু বিজ্ঞ সব লোকদের সাথে কাজ করে উপভোগ করেছি। এরপর কী করতে যাচ্ছি সে সম্পর্কে পরবর্তীতে বিস্তারিত জানাব।

ওপেনএআইয়ের বিবৃতিতে আরও জানানো হয়, গ্রেগ ব্রকম্যান বোর্ডের চেয়ারের পদ থেকে সরে দাঁড়াবেন। কিন্তু তিনি কোম্পানির প্রেসিডেন্ট পদে বহাল থাকবেন।

ব্রুকম্যান নিজেও এ তথ্য নিশ্চিত করে সোশ্যাল মিডিয়ায় গতকাল (শুক্রবার) পোস্ট করেন, আজকের সংবাদের প্রেক্ষিতে জানাচ্ছি যে, আমি পদত্যাগ করছি (বোর্ডের চেয়ারের দায়িত্ব)।

আচমকা এমন ঘোষণা শোনার জন্য মোটেও প্রস্তুত ছিল না ওপেনএআইয়ের অন্য কর্মকর্তারা। অনেকেই অভ্যন্তরীণভাবে কিংবা কোম্পানির পাবলিক ব্লগের মাধ্যমে তথ্যটি জেনে প্রথমে বেশ অবাকই হয়েছিলেন।

অল্টম্যানকে অপরসারণের পর ওপেনএআইয়ের পক্ষ থেকে শুক্রবার বিকেলে একটি জরুরি মিটিং অনুষ্ঠিত হয়। এর সাথে সংশ্লিষ্ট ওপেনএআইয়ের একজন কর্মকর্তা রয়টার্সকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

২০২২ সালের নভেম্বর মাসে চ্যাটজিপিটি বাজারে উন্মুক্তের পর থেকে ৩৮ বছর বয়সী অল্টম্যান প্রযুক্তি বিশ্বে ওপেনএআইকে তুলে ধরতে বেশ সোচ্চার ভূমিকা পালন করেছেন। যার ফলশ্রুতিতে মাত্র এক বছরেরও কম সময়ে চ্যাটবটটি ১০০ মিলিয়ন ব্যবহারকারী লাভ করে।

 


বিএমডব্লিউ গাড়ি যৌতুক না দেওয়ায় ভাঙলো বিয়ে, পাত্রীর আত্মহত্যা

০৭ ডিসেম্বর ২০২৩, ০৪:৪৩ পিএম | আপডেট: ০৭ ডিসেম্বর ২০২৩, ০৪:৪৯ পিএম


বিএমডব্লিউ গাড়ি যৌতুক না দেওয়ায় ভাঙলো বিয়ে, পাত্রীর আত্মহত্যা
বিএমডব্লিউ গাড়ি ও শাহনা। ছবি: সংগৃহীত।

অতিরিক্ত যৌতুক দাবি করায় বিয়ে ভেঙে গেছে। কিন্তু এ ঘটনা মেনে নিতে পারেনি ২৬ বছর বয়সি চিকিৎসক পাত্রী শাহনা। তাই বাধ্য হয়ে বেছে নেন ভয়ংকর পথ। আত্মহত্যা করেছেন তিনি। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের কেরলেতে।

জানা গেছে, হবু স্বামী এবং শাহনা তিরুঅনন্তপুরম মেডিক্যাল কলেজে সার্জারি বিভাগে স্নাতকোত্তর করছিলেন। সেখান থেকেই দুই জনের পরিচয়।

শাহনার এক আত্মীয় জানিয়েছেন, পণ হিসাবে আমরা নগদ ৫০ লক্ষ টাকা, ৫০টি সোনার বন্ড এবং একটি গাড়ি দিতে চেয়েছিলাম। কিন্তু বর পক্ষের কাছে তা যথেষ্ট ছিল না। ছেলের বাড়়ি থেকে সোনা, জমি এবং একটি বিএমডাব্লু গাড়ি পণ হিসাবে চাওয়া হয়েছিল।

পুলিশ জানিয়েছে, সম্প্রতি শাহনার বাবা মারা গেছে। তার উপর সহপাঠীর সাথে বিয়ে ভাঙ্গায় নিজেকে সামলাতে না পেরে আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছেন তিনি।

শাহনার হবু স্বামী রুওয়াজ আবার কেরলের স্নাতকোত্তর মেডিক্যাল পড়ুয়াদের সংগঠনের রাজ্য সভাপতি। শাহনার চরম পদক্ষেপের কথা ছড়িয়ে পড়তেই ওই সংগঠনটি রুওয়াজকে পদ থেকে বহিষ্কার করেছে।

এদিকে কেরলের স্বাস্থ্যমন্ত্রী বীণা জর্জ ঘটনার বিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। শাহনার মায়ের সঙ্গে দেখা করেছেন কেরলের মহিলা কমিশনের প্রধান আইনজীবী সাথীদেবী। পুলিশের কাছে ঘটনার রিপোর্টও তলব করেছে কমিশন।

তিনি জানিয়েছেন, পুলিশের রিপোর্টে যদি দেখা যায় রুওয়াইজের পরিবারের চাহিদা অনুযায়ী পণ দিতে না পারার কারণেই শাহনা চরম সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, তা হলে তার পরিবারের বিরুদ্ধেও মামলা চালু করা হবে। সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা


শাহবাগে যাত্রীবাহী বাসে আগুন

০৭ ডিসেম্বর ২০২৩, ০৪:২১ পিএম | আপডেট: ০৭ ডিসেম্বর ২০২৩, ০৪:৪৯ পিএম


শাহবাগে যাত্রীবাহী বাসে আগুন
যাত্রীবাহী বাসে আগুন। ছবি: সংগৃহীত

রাজধানীর শাহবাগে আজিজ সুপার মার্কেটের সামনে তরঙ্গ পরিবহনের একটি বাসে আগুন দিয়েছে দুর্বৃত্তরা।

বৃহস্পতিবার দুপুর পৌনে ২টার দিকে এ অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটে।

ফায়ার সার্ভিসের ডিউটি অফিসার রোজিনা আক্তার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, আজিজ সুপার মার্কেটের সামনে বাসে আগুন দেয়ার খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট ঘটনাস্থলে যায়। এ ঘটনায় হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি।

এর আগে সকাল সাড়ে ৯টার দিকে মতিঝিল বক চত্বরে একটি যাত্রীবাহী বাসে আগুন দেয় অবরোধকারীরা। ফায়ার সার্ভিসের ডিউটি অফিসার রোজিনা আক্তার এ ব্যাপারে জানান, সকাল সাড়ে ৯টার দিকে মতিঝিলে গাজীপুর পরিবহনের একটি বাসে অগ্নিসংযোগের খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের দুটি ইউনিট রওনা হয়। তবে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে যাওয়ার আগেই স্থানীয়রা ফায়ার এক্সটিংগুইসার দিয়ে আগুন নিভিয়ে ফেলেন।

বিএনপি ও সমমনা রাজনৈতিক দলগুলোর ডাকা দশম দফা অবরোধের দ্বিতীয় দিন আজ। এ দফার অবরোধে বুধবার (৬ ডিসেম্বর) ভোর ৬টা থেকে বৃহস্পতিবার ভোর ৬টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশে ১২টি যানবাহনে দুর্বৃত্তদের অগ্নিসংযোগের তথ্য জানিয়েছে ফায়ার সার্ভিস। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ঢাকা শহরে ৬টি যানবাহনে আগুন দেয়া হয়েছে।


যে কারণে টাইম ম্যাগাজিনের বর্ষসেরা হলেন টেলর সুইফট

০৭ ডিসেম্বর ২০২৩, ০৪:১০ পিএম | আপডেট: ০৭ ডিসেম্বর ২০২৩, ০৪:৪৮ পিএম


যে কারণে টাইম ম্যাগাজিনের বর্ষসেরা হলেন টেলর সুইফট
টেলর সুইফট। ছবি: সংগৃহীত

এ বছরটাই ছিল টেলর সুইফটের। চলতি বছর এই পপ সেনসেশন রেকর্ডের পর রেকর্ড ভেঙেছেন। নিজের নামের পাশে গড়েছেন অসংখ্য মাইলফলক। আর সাফল্যের ধারাবাহিকতায় টেলর ছিলেন সবার উপরে। তাই সেরার সম্মান নিয়েই বছর শেষ করতে যাচ্ছেন পপকুইন, তা বলাই বাহুল্য। যার শুরুটা হলো টাইম ম্যাগাজিনের সেরা ব্যক্তিত্বের সম্মাননার মধ্য দিয়ে। ২০২৩ সালে ‘বর্ষসেরা ব্যক্তি’ হিসেবে নির্বাচিত করা হয়েছে টেলর সুইফটকে।

বুধবার (৬ ডিসেম্বর) ম্যাগাজিনের পক্ষ থেকে বলা হয়, চলতি বছর সুইফট তার প্রায় দুই দশকের খ্যাতি ও প্রভাবের শীর্ষে পৌঁছেছেন। তিনিই প্রথম শিল্পকলার ব্যক্তি, যিনি বিনোদনদাতা হিসেবে সাফল্যের জন্য সম্মানিত হয়েছেন।

টেলর সুইফট

 

১৯২৭ সাল থেকে টাইম ম্যাগাজিন প্রতি বছর 'পার্সন অব দ্য ইয়ার' খেতাব দিয়ে আসছে বিশ্বসেরা গুরুত্বপূর্ণ কোনো ব্যক্তিত্বকে। বেশিরভাগ সময় বছরজুড়ে হেডলাইন আর লাইমলাইটে থাকা ব্যক্তিত্ব, বিশেষ করে রাজনীতিবিদ ও অর্থনীতিতে গুরুত্ব বহন করা ব্যক্তিরা পান এই সম্মাননা। তবে এ বছরের সব হিসাব ওলট-পালট করে দিয়েছেন মেগা পপ তারকা সুইফট।

৩৩ বছর বয়সী এই তারকা তার 'ইরাস ট্যুর'-এর অংশ হিসেবে বছরজুড়ে বিশ্ব ভ্রমণ করেছেন। বিশ্বের বিভিন্ন শহরে পুরো ক্যারিয়ারের সঙ্গীত প্রদর্শন করেছেন। সেখানে তিনি টিকিট বিক্রির রেকর্ড ভেঙেছেন। প্রতিটি শহরের অর্থনীতিকে চাঙ্গা করেছেন।

টেলর সুইফট

 

সুইফট টাইমকে বলেন, এটি আমার জীবনের সবচেয়ে গর্বিত, সুখী, সবচেয়ে সৃজনশীল এবং স্বাধীন অভিজ্ঞতা।

২০২৪ সালে এশিয়া, অস্ট্রেলিয়া, ইউরোপ ও যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে চলমান 'ইরাস ট্যুর' বিশ্বের ইতিহাসে সর্বোচ্চ উপার্জনকারী হওয়ার পথে রয়েছে বলে জানিয়েছে আমেরিকান সংগীত ও বিনোদন ম্যাগাজিন বিলবোর্ড। সুইফটের এই ট্যুরে ২০২৩ সালজুড়ে প্রায় ৯০০ মিলিয়ন ডলার আয় এসেছে। প্রতি শোতে প্রায় ১৪ মিলিয়ন ডলার আয় করেছেন তিনি।

টেলর সুইফট

 

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের স্টেডিয়ামে দর্শক-চাহিদা গত বছর এতটাই বৃদ্ধি পেয়েছিল যে, প্রতি টিকিট ২৮ হাজার ডলারে পৌঁছেছিল। বেশি দামে টিকিট বিক্রি নিয়ে মামলা এবং একটি ফেডারেল তদন্তও হয়েছিল।

বিভিন্ন মার্কিন সংবাদমাধ্যম বলছে, সুইফটের 'ইরাস ট্যুর'র ফলে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে ইতিবাচক অর্থনৈতিক সূচকের দেখা মিলেছে। বিশ্বজুড়ে বাদ-বিবাদ আর হানাহানির মাঝে তিনি কনসার্টের মাধ্যমে সুতার মালায় গেঁথেছেন বিশ্ববাসীকে। দেশের সীমানা পেরিয়ে টেইলর এক ধরনের একাত্মতাবোধ অনুভব করতে বাধ্য করেছেন বিশ্ববাসীকে। তাই সবাইকে পেছনে ফেলে হয়েছেন টাইম ম্যাগাজিনের বর্ষসেরা ব্যক্তিত্ব।

টেলর সুইফট

 

ফোর্বস ম্যাগাজিন চলতি সপ্তাহে সুইফটকে বিশ্বের পঞ্চম ক্ষমতাধর নারী হিসেবে তালিকাভুক্ত করেছে। ক্ষমতাধর নারী প্রধানমন্ত্রীসহ ভাইস প্রেসিডেন্টের মতো ব্যক্তিদের পেছনে ফেলেছেন তিনি।

অনুসরণ করুন