বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ | ৮ ফাল্গুন ১৪৩০
বেটা ভার্সন
Dhaka Prokash

আরো ঘনীভূত হতে পারে নিম্নচাপ, সমুদ্র বন্দরে সতর্ক সংকেত

আরো ঘনীভূত হতে পারে নিম্নচাপ, সমুদ্র বন্দরে সতর্ক সংকেত। ছবি: সংগৃহীত

বঙ্গোপসাগরে থাকা সুস্পষ্ট লঘুচাপটি গতকাল শুক্রবার নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে। এটি আজ শনিবার গভীর নিম্নচাপ এবং পরে ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হতে পারে। বাংলাদেশ ও ভারতের আবহাওয়া অধিদপ্তর বলেছে, ঘূর্ণিঝড় হলে এটি ভারতের অন্ধ্র উপকূলে আঘাত করতে পারে।

শনিবার (২ ডিসেম্বর) আবহাওয়ার ৫ নম্বর বিশেষ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। তবে বাংলাদেশে আঘাতের আশঙ্কা খুবই কম।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, আজ সকাল ৬টায় চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ১৫২০ কিলোমিটার দক্ষিণপশ্চিমে, কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে ১৪৬০ কি.মি. দক্ষিণপশ্চিমে, মোংলা সমুদ্র বন্দর থেকে ১৪৩৫ কি.মি. দক্ষিণ-দক্ষিণপশ্চিমে এবং পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে ১৪২০ কি.মি. দক্ষিণ-দক্ষিণপশ্চিমে অবস্থান করছিল। এটি আরও পশ্চিম-উত্তরপশ্চিম দিকে অগ্রসর ও ঘনীভূত হতে পারে।

নিম্নচাপ কেন্দ্রের 8৪ কি.মি. এর মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ৪০ কি.মি.। যা দমকা অথবা ঝোড়ো হাওয়ার আকারে ৫০ কি.মি. পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। নিম্নচাপ কেন্দ্রের নিকটবর্তী এলাকায় সাগর উত্তাল রয়েছে।

চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরসমূহকে ০১ নম্বর দূরবর্তী সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থানরত সব মাছ ধরার নৌকা এবং ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে।

চলতি বছর এখন পর্যন্ত তিনটি ঘূর্ণিঝড় হয়েছে বাংলাদেশে। গত ১৪ মে আঘাত হানে ঘূর্ণিঝড় ‘মোখা’। এই ঘূর্ণিঝড় ওই দিন সন্ধ্যা ৬টায় টেকনাফ হয়ে বাংলাদেশ উপকূল অতিক্রম করে। গত ২৪ অক্টোবর রাতে ঘূর্ণিঝড় ‘হামুন’ চট্টগ্রাম-কক্সবাজার উপকূলে আঘাত হানে। এরপর ১৭ নভেম্বর আঘাত হানে ঘূর্ণিঝড় ‘মিধিলি’। এখন নিম্নচাপটি ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিলে এর নাম হবে ‘মিগজাউম’। এটি মিয়ানমারের দেওয়া নাম।

হিজবুল্লাহর দিনভর হামলায় কাঁপলো ইসরায়েল

ছবি: সংগৃহীত

লেবাননের সশস্ত্র গোষ্ঠী হিজবুল্লাহ বুধবার ধারাবাহিক কয়েকটি বিবৃতি দিয়েছে। এসব বিবৃতিতে ইসরায়েলের নানা সামরিক অবস্থানে হামলা চালানোর কথা জানিয়েছে লেবাননের গোষ্ঠীটি।

আল মানার টেলিভিশনে প্রচারিত বিবৃতিতে হিজবুল্লাহ জানিয়েছে, বুধবার হামলার শুরু হয় সকাল সাড়ে সাতটায়। ইভেন মেনাশেম এলাকায় একটি ইসরায়েলি ঘাঁটি লক্ষ্য করে হামলা চালায় হিজবুল্লাহ যোদ্ধারা। তাদের দাবি, উপযুক্ত অস্ত্র ব্যবহার করে এই হামলা চালানো হয়েছে। তাদের ছোড়া ক্ষেপণাস্ত্র সরাসরি লক্ষ্যবস্তুতে আক্রমণ করে।

আর হিজবুল্লাহ দ্বিতীয় হামলাটিও চালিয়েছে সকাল সাড়ে সাতটার দিকেই। শোমেরা এলাকায় ইসরায়েলি সেনাদের লক্ষ্য করে হামলাটি চালানো হয়। হিজবুল্লাহ এখানে উপযুক্ত অস্ত্র ব্যবহার করার দাবি করেছে।যদিও এই হামলায় কোন ধরনের ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবহার করা হয়েছে তা বিস্তারিত জানায়নি গোষ্ঠীটি।
পরের হামলাটি হিজবুল্লাহ চালায় সকাল দশটায়। এই হামলায় কেঁপে ওঠে আভিভিম এলাকার ইসরাইলের সেনাদের অবস্থান করা দু'টি বাড়ি। এখানেও সরাসরি তাদের ছোড়া ক্ষেপণাস্ত্র আঘাত হানে বলে দাবি করেছে হিজবুল্লাহ যোদ্ধারা।

আল মাজরি এলাকায় বেলা ১২টার একটু পরেই ইসরায়েলি সেনাদের আরেকটি জমায়েত লক্ষ্য করে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালায় হিজবুল্লাহ। এখানে সরাসরি আঘাত হানার দাবি করেছে হিজবুল্লাহ যোদ্ধারা।

এই হামলার মিনি ১৫ পরই আল আলাম এলাকায় আরো একটি হামলা চালানোর দাবি করে হিজবুল্লাহ। পরের হামলাটি তারা চালায় দুপুর দেড়টার পর। এবার তার শেবা ফার্ম এলাকাকে লক্ষ্যবস্তু করে। দুপুর পৌনে দুইটায় জারিত সেনা ব্যারাকে হামলা চালায় হিজবুল্লাহ। এখানেও সরাসরি লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানার দাবি করেছে তারা।

যদিও এই হামলার বিষয়ে কোনো মন্তব্য করেনি ইসরায়েল। তাই জানা যায়নি ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণও। তবে হিজবুল্লাহর হামলার কারণে ইসরায়েলের সীমান্তবর্তী এলাকার লাখ খানেক বাসিন্দা ঘরছাড়া। তারা কবে নাগাদ নিজ বাসভূমিতে ফিরতে পারবে, সেটাও নিশ্চিত নয়।

লাখো মোমবাতি জ্বালিয়ে ভাষা শহীদদের স্মরণ

ছবি: সংগৃহীত

‘অন্ধকার থেকে মুক্ত করুক একুশের আলো’ এই শ্লোগান নিয়ে প্রতি বছরের ন্যায় এবারো নড়াইল সরকারি ভিক্টোরিয়া কলেজের কুড়িরডোব মাঠে ভাষা শহীদদের স্মরণে প্রজ্জ্বলন করা হয়েছে এক লাখ মোমবাতি। “একুশের আলো” নড়াইল একুশের ভাষা শহীদদের স্মরনে বুধবার ২১শে’র সন্ধ্যায় এ মোববাতি প্রজ্জ্বলন অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

১৯৯৭ সাল থেকে নড়াইলে একুশে ফেব্রুয়ারি পালন করছে মোববাতি প্রজ্জ্বলনের মাধ্যমে।সূর্যাস্তের সাথে সাথে ২১শে’র সন্ধ্যায় শুরু হয় এক লাখ মোববাতি প্রজ্জ্বলন। শহীদ মিনার, জাতীয় স্মৃতি সৌধ, বাংলা বর্ণমালা, আল্পনাসহ গ্রাম বাংলার নানা ঐতিহ্য তুলে ধরা হয় প্রদীপ প্রজ্জ্বলনের মধ্য দিয়ে। সন্ধ্যার পূর্বে মোমবাতি প্রজ্জলনে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রায় ১ হাজার শিশু-কিশোর অংশগ্রহণ করেন।

সন্ধ্যা ঠিক ৬টা ২০মিনিটে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের শিল্পীরা ‘আমার ভায়ের রক্তে রাঙ্গানো একুশে ফেব্রুয়ারি, আমি কি ভুলিতে পারি’ এই গান পরিবেশনের মধ্য দিয়ে শুরু করে গণসঙ্গীত ও কবিতা পরিবেশন করেন। এর পরেই মোমবাতি প্রজ্জ্বলনের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন নড়াইলের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আশফাকুল হক চৌধুরী।

এর আগে একুশের আলো উদযাপন পর্ষদের সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট ওমর ফারুকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন নড়াইলের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আশফাকুল হক চৌধুরী, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মেহেদী হাসান, নড়াইল সরকারি ভিক্টোরিয়া কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর শাহাব উদ্দিন, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ নিজামউদ্দিন খান নিলু, নড়াইল পৌরসভার মেয়র আঞ্জুমান আরা, গোলাম মোর্তজা স্বপন, একুশের আলো উদযাপন পর্ষদের সাধারণ সম্পাদক কচি খন্দকার, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক ও সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি মলয় কুন্ডু, নাট্য ব্যক্তিত্ব মিলন কুমার ভট্টাচার্য, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সাধারন সম্পাদক মোঃ শরফুল আলম লিটু প্রমুখ।

জানা যায়, ১৯৯৭ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি থেকে নড়াইল সরকারি ভিক্টোরিয়া কলেজের কুড়িরডোব মাঠে সন্ধ্যায় ভাষা শহীদদের স্মরণে লাখো মোমবাতি জ্বালিয়ে ভাষাশহীদদের স্মরণ ব্যতিক্রমি এ আয়োজনটি শুরু হয়।

এ আয়োজন সফল করতে ১মাস পূর্ব থেকেই সাংস্কৃতিক কর্মী, স্বেচ্ছাসেবক ও শ্রমিক কাজ শুরু করেন। তিন শতাধিক পুলিশ ও স্বেচ্ছাসেবক মাঠের চারপার্শ্বের সার্বিক নিরাপত্তা রক্ষা করে থাকেন। প্রতি বছরের মতো এবারো নড়াইলবাসী, ঢাকাসহ নড়াইলের পার্শ্ববর্তী বিভিন্ন জেলা থেকে কয়েক হাজার দর্শনার্থী উপভোগ করেন এ মনোরম দৃশ্য।

কারামুক্ত হলেন বিএনপি নেতা আলাল

মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল। ছবি : সংগৃহীত

কারামুক্ত হলেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল। বুধবার (২১ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে কাশিমপুর কারাগার থেকে জামিনে মুক্তি পান তিনি।

বিএনপির মিডিয়া সেলের সদস্য শায়রুল কবির খান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে রোববার (১৮ ফেব্রুয়ারি) বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলালের বিরুদ্ধে করা ছয় মামলার সবকটিতেই জামিন মঞ্জুর করেন আদালত। ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতের ভারপ্রাপ্ত বিচারক ফয়সাল বিন আতিক তার জামিন মঞ্জুর করেন।

এদিন আলালের আইনজীবী তাহেরুল ইসলাম তৌহিদ বলেন, আলালকে আটক করার পর তাকে ছয় মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়। এ ছাড়া তাকে যাত্রাবাড়ী থানার একটি মামলায় তিন বছরের কারাদণ্ড দেন আদালত। এসব মামলায় তার জামিন মঞ্জুর করেন করা হয়। তাকে কয়েকটি মামলায় হাজতি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে।

গত ৩১ অক্টোবর শাহজাহানপুরের একটি বাসা থেকে মোয়াজ্জেম হোসেন আলালকে গ্রেপ্তার করে ঢাকা মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগ (ডিবি)। গত ১ নভেম্বর তাকে আদালতে হাজির করে ডিবি ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করে। এরপর তার পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

 

সর্বশেষ সংবাদ

হিজবুল্লাহর দিনভর হামলায় কাঁপলো ইসরায়েল
লাখো মোমবাতি জ্বালিয়ে ভাষা শহীদদের স্মরণ
কারামুক্ত হলেন বিএনপি নেতা আলাল
দেশে অপচয় হয় ৩০ শতাংশ খাদ্য: কৃষিমন্ত্রী
গোপনে অনলাইনে যেসব জিনিস বেশি সার্চ করেন মেয়েরা
একই অবস্থানে বাংলাদেশ ও উত্তর কোরিয়ার পাসপোর্ট
রুশ কারাপ্রধানসহ ৬ জনের ওপর যুক্তরাজ্যের নিষেধাজ্ঞা
চালের বস্তা বিক্রিতে ছয় তথ্য দেওয়া বাধ্যতামূলক করল সরকার
এবার ‘ভুয়া ভুয়া’ স্লোগানে বইমেলা থেকে বিতাড়িত হিরো আলম
রাশিয়ার প্রশিক্ষণ শিবিরে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা, নিহত ৬০ সেনা
দেশকে এগিয়ে নেব, এটিই প্রতিজ্ঞা: প্রধানমন্ত্রী
সুখবর দিলেন মেহজাবিন চৌধুরী
ভারতে কৃষক বিক্ষোভে এবার মৃত্যু ২৪ বছরের চাষির
নিজের ভাষা রক্ষার মধ্যমে জাতি উন্নত জীবন পেতে পারে: প্রধানমন্ত্রী
সরকারি প্রতিষ্ঠানের সাইনবোর্ডে ভুল বানানের ছড়াছড়ি, বাদ যায়নি বাংলা একাডেমিও
আবারও গাজায় যুদ্ধবিরতি প্রস্তাবে যুক্তরাষ্ট্রের ভেটো
মা হচ্ছেন দীপিকা, বাবা রণবীর
শাহজাহান ওমরের বিকল্প বেছে নিলো বিএনপি
ছুটির দিনে কানায় কানায় পূর্ণ বইমেলা, বিক্রি কম
সিরিয়ার দামেস্কে আবারো ইসরায়েলের হামলা