জঙ্গি ছিনতাই: আসামি ইদি আমিনের আত্মসমর্পণ

২৭ নভেম্বর ২০২২, ০৮:৪৩ পিএম | আপডেট: ৩০ জানুয়ারি ২০২৩, ০৭:১৬ এএম


জঙ্গি ছিনতাই: আসামি ইদি আমিনের আত্মসমর্পণ

পুরান ঢাকার আদালত প্রাঙ্গণে পুলিশের ওপর হামলা চালিয়ে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত দুই জঙ্গিকে ছিনিয়ে নেওয়ার ঘটনায় করা মামলায় ইদি আমিন নামে এক আসামি আদালতে আত্মসমর্পণ করেছেন। পরে পুলিশের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে তার চার দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আদালতের এডিশনাল চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট তোফাজ্জল হোসেন এ আদেশ দেন।

রবিবার (২৭ নভেম্বর) সংবাদমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন ঢাকা মহানগর পুলিশের অপরাধ ও তথ্য বিভাগের উপপরিদর্শক (এসআই) আশ্রাব আলী।

তিনি বলেন, মামলায় ছিনতাই হওয়া দুই আসামিসহ ২০ জনকে আসামি করা হয়েছে। এ ছাড়া অজ্ঞাতনামা আরও ২০ থেকে ২১ জনকে আসামি করা হয়। ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী ট্রাইব্যুনালে মোহাম্মদপুর থানায় দায়ের করা সন্ত্রাসবিরোধী আইনের একটি মামলার শুনানি শেষে কারাগারে থাকা ১২ জন আসামিকে হাজতখানায় নেওয়ার পথে দুজনকে ছিনিয়ে নেয় সহযোগীরা। মামলায় ওই ১২ জনকে আসামি করা হয়। এই মামলায় জামিনপ্রাপ্ত দুজনকেও আসামি করা হয়েছে। এ ছাড়া পলাতক আরও ছয় জনকে আসামি করা হয়।

আসামিরা হলেন— শাহিন আলম, শাহ আলম ওরফে সালাউদ্দিন বিএম মুজিবুর রহমান, সুমন হোসেন পাটোয়ারি, খাইরুল ইসলাম জামিল, মইনুল হাসান শামীম, আবু সিদ্দিক সোহেল, মোজাম্মেল হোসেন সাইমন, আরাফাত রহমান ওরফে সিয়াম ওরফে সাজ্জাদ, শেখ আব্দুল্লাহ ওরফে জুবায়ের ওরফে যায়েদ, আব্দুস সবুর, রশিদ উন নবী ভূঁইয়া ওরফে টিপু ওরফে রাসেল, ইদি আমিন, মেহেদী হাসান অমি, সৈয়দ মোহাম্মদ জিয়াউল হাসান ওরফে মেজর জিয়া ওরফে বড় ভাই, আয়মান, সাব্বিরুল হক চৌধুরী ওরফে কনিক, তানভীর ওরফে শামসেদ মিয়া, রিয়াজুল ইসলাম ওরফে রিয়াজ ও ওমর ফারুক ওরফে নোমান।

এদের মধ্যে ইদি আমিন রবিবার আদালতে আইনজীবীর মাধ্যমে আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করেন। অন্যদিকে পুলিশের পক্ষ থেকে তাকে ১০ দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করার আবেদন জানানো হয়। উভয় পক্ষের শুনানি নিয়ে আদালত ইদি আমিনের চার দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে গত ২৪ নভেম্বর ঢাকার আদালত ফটকের সামনে পুলিশের ওপর হামলা চালিয়ে জঙ্গি ছিনিয়ে নেওয়ার ঘটনায় করা মামলায় গ্রেপ্তার মেহেদী হাসান অমি ওরফে রাফিকে সাত দিন রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করার অনুমতি দেন আদালত।

কেএম/আরএ/


বিভাগ : আইন আদালত