আত্মনির্ভরশীলতার জন্য গবেষক ও গবেষণা চাই

২৪ অক্টোবর ২০২২, ০৬:০০ পিএম | আপডেট: ২৯ জানুয়ারি ২০২৩, ০১:১৫ এএম


আত্মনির্ভরশীলতার জন্য গবেষক ও গবেষণা চাই

আমাদের গবেষকের অভাব রয়েছে। চিকিৎসা, কৃষি, মহাকাশ, প্রযুক্তি, শিল্পসহ সকল ক্ষেত্রে প্রচুর গবেষণা দরকার। আত্মনির্ভরশীল হওয়ার ক্ষেত্রে গবেষণার বিকল্প নেই। এজন্য, গবেষক চাই। আর এখানেই আমরা পিছিয়ে আছি।

এই দেশের অনেক মেধাবী মানুষ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে ডক্টরেট, পোস্ট ডক্টরেট করে আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন রিসার্চ সেন্টার কিংবা বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে কাজ করছেন। তাদেরকে তাদের যোগ্যতা অনুযায়ী দেশের সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত, বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোতে কাজ করার সুযোগ প্রদান করা হলে দেশেরই উপকার হবে।

আমাদের সকলের মধ্যেই একটা প্রবণতা হচ্ছে, অনার্স/মাস্টার্স শেষ করে আমরা সবাই একটা চাকরির পিছনে ছুটছি। চাকরি পেয়ে গেলেই যেন জীবনের লক্ষ্য পূরণ হয়ে যাচ্ছে। আর সরকারি চাকরি পেয়ে গেলেতো কথাই নেই। আমাদের সঙ্গে সঙ্গে বাবা-মা, দাদা-দাদির স্বপ্নও যেন পূরণ হয়ে গেল। এর ফলে, আমাদের অনেক মেধাবীরাই পরবর্তীকালে আর কোনো স্বপ্ন দেখে না। গতানুগতিক রুটিন কাজ করে যায়।

এ ছাড়া, আমাদের কিছু শিক্ষার্থী দেশে লেখাপড়া শেষ করে, উন্নত দেশের খ্যাতনামা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে উচ্চশিক্ষা গ্রহণ করে থাকেন। কিন্তু এরপর দেশে এসে যোগ্যতা অনুযায়ী মূল্যায়ন না পাবার শঙ্কায় কেউ কেউ চাইলেও দেশে আসতে পারেন না।

অনেক দেশ যখন নতুন নতুন আবিষ্কারের নেশায় মত্ত, আমরা তখন কবে সেই আবিষ্কৃত জিনিস ব্যবহার করতে পারব, সেই চিন্তায় ব্যস্ত সময় পার করছি। এখানে থেকে আমাদের বের হওয়া প্রয়োজন। মনে রাখা উচিত, আত্মনির্ভরশীল এবং স্বকীয়তার জন্য গবেষণা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। পৃথিবীর অন্যান্য রাষ্ট্র আমাদের তখনই সম্মান করবে, যখন তারা আমাদের কাছ থেকে কিছু পাবার আশা করবে। এ জন্য আমাদের গবেষক প্রয়োজন এবং তাদের যথাযথ মূল্যায়ন প্রয়োজন।

লেখক: যুগ্ম পরিচালক, বাংলাদেশ ব্যাংক