বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪ | ৬ আষাঢ় ১৪৩১
Dhaka Prokash

রমজান সামনে রেখে ছোলার বাজারে উত্তাপ

রমজানকে সামনে রেখে উত্তাপ ছড়াচ্ছে ছোলার বাজার। রমজানের সবচেয়ে মুখরোচক এই খাবারের চাহিদা সারাবছর জুড়ে যতো না তার চেয়ে কয়েকগুণ বেশি থাকে রমজান মাসে। আর এই সুযোগেই অসাধু ব্যবসায়ীরা ইতোমধ্যে ছোলার দাম বাড়াতে শুরু করেছেন। ৮০ থেকে ৮৫ টাকা কেজির ছোলা এখনই বিক্রি হচ্ছে ৯০ থেকে ৯৫ টাকা। যদিও রমজানের চাহিদা মাথায় রেখে ইতোমধ্যে ছোলা আমদানিও শুরু হয়েছে। কিন্তু তাতে খুব একটা আশার আলো দেখা যাচ্ছে না।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, দেশে বছরে ছোলার চাহিদা দেড় লাখ টন। রমজানে ইফতারির অন্যতম উপকরণ হিসেবে ছোলার চাহিদা বাড়ে। রমজান মাসের চাহিদা বিবেচনা করে গত চার মাসে অতিরিক্ত প্রায় দেড় লাখ টন ছোলা আমদানি করতে এলসি খোলা হয়েছে। ইতোমধ্যে অনেকগুলো দেশে চলেও এসেছে।

রবিবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর কারওয়ান বাজারসহ বিভিন্ন বাজার ঘুরে এবং টিসিবি, ট্যারিফ কমিশন, বাংলাদেশ ব্যাংক ও এফবিসিসিআই সূত্রে এ সব তথ্য জানা গেছে।

ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই ও বাংলাদেশ ট্রেড অ্যান্ড ট্যারিফ কমিশন সূত্রে জানা গেছে, দেশে ছোলার চাহিদা বছরে দেড় লাখ টন। রমজান মাসে এর চাহিদা ব্যাপকভাবে বেড়ে যায়। তাই অতিরিক্ত দরকার হয় এক লাখ টন। অন্যান্য মাসে দশমিক ৫ টন প্রয়োজন হয়। আর দেশে উৎপাদন হয় দশমিক ৬ টন। তারপরও আমদানি হয়েছে ২ লাখ টনের মতো। আন্তর্জাতিক বাজারে প্রতি কেজি ছোলার দর হচ্ছে ৬৯ টাকা ৬৫ পয়সা। এক মাস আগে ছিল ৬৮ টাকা ৯২ পয়সা। আর এক বছর আগে ছিল ৭৪ টাকা ৭৫ পয়সা।

বাংলাদেশ ব্যাংক বলছে, অন্যান্য পণ্যের মতো রমজানকে সামনে রেখে ছোলার আমদানি গত চার মাসে অনেক বেড়েছে। তাদের তথ্যমতে, গত অক্টোবরে এলসি খোলা হয়েছে ৮ হাজার ৬১০ টন, নভেম্বরে প্রায় ১৭ হাজার টন, ডিসেম্বরে প্রায় ৫০ হাজার টন। আর গত জানুয়ারি মাসে এলসি খোলা হয়েছে প্রায় ৫৮ হাজার টন। এভাবে চার মাসে এলসি খোলা হয়েছে এক লাখ ৩৩ হাজার টন।

ইতোমধ্যে এলসি খোলা ছোলার একটা বড় অংশ দেশে চলে এসেছে। গত জুলাই থেকে ডিসেম্বরে এলসি নিষ্পত্তি (দেশে এসেছে) হয়েছে সাড়ে ৫৩ হাজার টন। জানুয়ারিতে এসেছে ২১ হাজার টন। সাত মাসে দেশে ছোলা এসেছে ৭৪ হাজার ৫০০ টন। আর চাহিদা ৩ টনেরও কম। পর্যাপ্ত ছোলা থাকার পরও হঠাৎ করেই রমজানের আগে আগে ছোলার দাম বাড়ছে কোনো কারণ ছাড়াই।

টিসিবির সূত্র বলছে, বর্তমানে প্রতি কেজি ছোলা বিক্রি হচ্ছে ৯০ থেকে ৯৫ টাকা। অথচ এক সপ্তাহ আগে প্রতি কেজি বিক্রি হয়েছে ৮৫ থেকে ৯০ টাকা। আর ঠিক একমাস আগে খুচরা বিক্রেতারা প্রতি কেজি ছোলা বিক্রি করেছেন ৮৫ থেকে ৯০ টাকা। এক বছর আগে ছিল ৭০ থেকে সর্বোচ্চ ৮০ টাকা।

এদিকে ভোক্তারা বলছেন, এত আমদানির পরও রমজান মাসকে সামনে রেখে ছোলার দাম কেন বাড়ছে এটা তাদের মাথায় যাচ্ছে না। মোহাম্মদপুর টাউন হল মার্কেটে কথা হয় ক্রেতা নুরুল হুদার সঙ্গে। তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, আসলে দেশে হচ্ছে কী? সরকার বলছে, চাহিদার চেয়ে বেশি আছে। দামও কম। কিন্তু বাজারে এসে দেখি কোনো মিল নেই। কয়েক মাসের ব্যবধানে কেজিতে ২০ টাকা বেড়েছে।

টাউনহলের মনির জেনারেল স্টোরের মনির ঢাকাপ্রকাশ-কে বলেন, আমরা কী করব? ৮৪ টাকা কেজি কিনে ৯০ টাকায় বিক্রি করছি। যা কয়েক মাস আগেও ৭৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি করেছি। আমরা পাইকারদের কাছ থেকে কিনে থাকি। গোড়াতেই দাম বাড়াচ্ছে। তাদের ধরলেই বাজার স্থির থাকবে। আমদানিকারকদের সিন্ডিকেটেই দাম বাড়াচ্ছে।

শুধু টাউনহলই নয়, বাড়তি দামে ছোলা বিক্রি হচ্ছে কারওয়ান বাজারসহ সব বাজার এবং পাড়া-মহল্লার দোকানেও।

কারওয়ান বাজারের আল্লাহর দান স্টোরের শাহ আলম বলেন, আমরা সামান্য লাভে বিক্রি করি। মূল্য তালিকা ঝুলানো আছে। এর বেশি দামে বিক্রি করি না। এ সময় আলী হোসেন নামে বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত এক ক্রেতা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, এখনো রমজান আসতে একমাস বাকি। তারপরও কেজিতে ১০ টাকা বেড়ে গেছে। দেখার কি কেউ নেই?

মোহাম্মদপুরের ফিউচার মডেল টাইন হাউজিংয়ের আল আমিন এন্টারপ্রাইজের আনোয়ার হোসেনও বলেন, বেশি দামে কেনা। আমরা অল্প লাভে বিক্রি করি।

এফবিসিসিআইর সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন সম্প্রতি নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যসামগ্রীর মজুদ, আমদানি, সরবরাহ ও মূল্য পরিস্থিতি বিষয়ক মতবিনিময় সভায় হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে পাইকারি ও খুচরা ব্যবসায়ীদের উদ্দেশে বলেছেন, কৃত্রিম সংকট তৈরির মাধ্যমে কেউ যাতে বাজার অস্থিতিশীল না করে। সে বিষয়ে ব্যবসায়ীদের সচেতন থাকতে হবে।

সিনিয়র সহ-সভাপতি মোস্তফা আজাদ চৌধুরী বাবু বলেছেন, সারাবিশ্বে যেখানে উৎসব এলে ব্যবসায়ীরা পণ্যের দাম কমিয়ে দেন, সেখানে আমাদের দেশের ব্যবসায়ীরা পণ্যের দাম বাড়িয়ে বিক্রি করছে। উৎসবে পণ্যের দাম বাড়ানোর সংস্কৃতি থেকে বেড়িয়ে আসতে হবে।

এনএইচবি/আরএ/

Header Ad

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে গ্রীষ্মকালীন ছুটি কমল, শনিবার ছুটি বহাল

ছবি: সংগৃহীত

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীনে থাকা মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ের সব ধরনের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে এবারের গ্রীষ্মের ছুটি কমানো হয়েছে। আগামী ২ জুলাই পর্যন্ত এই ছুটি থাকার কথা ছিল। এখন নতুন সিদ্ধান্ত হলো বুধবার (২৬ জুন) থেকে খুলে দেওয়া হবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। তবে শুক্রবারের পাশাপাশি শনিবারও সাপ্তাহিক ছুটি থাকবে।

বৃহস্পতিবার (২০ জুন) শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এক সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

শিক্ষাপঞ্জি অনুসারে, এবার পবিত্র ঈদুল আজহা ও গ্রীষ্মকালীন ছুটি শুরু হয়েছে ১৩ জুন, যা চলার কথা ২ জুলাই পর্যন্ত। ছুটি সংক্ষিপ্ত করার পরিকল্পনার কারণ হিসেবে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের যুক্তি হলো, পাঠদানের কর্মদিবস সারা বছরব্যাপী কমেছে।

এ ছাড়া শনিবারের বন্ধ পুনর্বহাল রাখার কারণে কর্মদিবস কমে যাবে। তাই গ্রীষ্মের ছুটির এক সপ্তাহ কমানোর এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

বিষাক্ত মদপানে নারীসহ ৩৭ জনের মৃত্যু, হাসপাতালে ৫৫

প্রতীকী ছবি। ছবি: সংগৃহীত

ভারতে বিষাক্ত মদপানে ৩৭ জনের মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। এছাড়া চেন্নাই থেকে ২৫০ কিলোমিটার দূরবর্তী কল্লাকুরিচি জেলায় গত কয়েকদিন ধরে বিষাক্ত মদপানে আরও কমপক্ষে ৫৫ জন গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। তাদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। খবর ভারতীয় গণমাধ্যম এনডিটিভির।

মদপানে অসুস্থ হয়ে পড়া এবং মৃত্যু হওয়াদের অধিকাংশই কারুনাপুরাম এলাকার। এক নারী জানান, বিষাক্ত মদপানে তার ছেলের মৃত্যু হয়েছে। তিনি বলেন, তার ছেলের প্রচণ্ড পেটে ব্যথা করছিল এবং সে চোখ খুলতে পারছিল না। মদপানে অসুস্থ হয়ে পড়ায় তাকে হাসপাতালেও ভর্তি করা যায়নি।

অন্য এক মা জানান, তার ছেলের প্রচণ্ড পেটে ব্যথা। সে কিছু দেখতেও পারছে না আর কিছু শুনতেও পাচ্ছে না। তিনি বলেন, এমনটা কারও সঙ্গে যেন না হয়। এ ধরনের বিষাক্ত মদ বিক্রি বন্ধ হওয়া উচিত। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ।

এদিকে বৃহস্পতিবার কল্লাকুরিচির জেলা প্রশাসক এমএস প্রশান্ত বলেন, অসুস্থদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার জন্য কাছাকাছি সরকারি মেডিক্যাল কলেজের বিশেষজ্ঞসহ পর্যাপ্ত চিকিৎসাকর্মীদের জেলায় মোতায়েন করা হয়েছে।

এই ঘটনার এর জের ধরে কঠোর পদক্ষেপ নিয়েছে রাজ্য সরকার। বিষাক্ত মদপানে একসঙ্গে এত মানুষের মৃত্যু ও অসুস্থতা ঠেকাতে ব্যর্থ হওয়ায় ও গাফিলতির অভিযোগে কল্লাকুরচির জেলা প্রশাসককে বদলি করা হয়েছে। এছাড়া জেলার পুলিশ সুপারসহ একাধিক কর্মকর্তাকে বরখাস্ত করা হয়েছে।

এক বিবৃতিতে রাজ্য সরকার জানিয়েছে, ২৬ জনের পান করা দেশি মদের প্যাকেট থেকে নমুনা নিয়ে ফরেনসিক রিপোর্টের জন্য পাঠানো হয়েছে এবং সেখানে বিষাক্ত মিথানলের উপস্থিতি পাওয়া গেছে।

শিল্পীদের ১০ লাখ টাকা ঈদ উপহার দিলেন ডিপজল

শিল্পীদের ১০ লাখ টাকা ঈদ উপহার দিলেন ডিপজল। ছবি: সংগৃহীত

এবার ঈদুল আজহায় গরু কিনতে পারেননি শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক মনোয়ার হোসেন ডিপজল। ঈদের আগে তার বড় ভাই মারা যাওয়ায় তা আর হয়নি। তবে শিল্পীদের ঈদ আনন্দে খামতি রাখেননি তিনি। সহকর্মীদের নগদ ১০ লাখ টাকা ঈদ উপহার দিয়েছেন তিনি।

গতকাল (১৯ জুন) ডিপজলের বড় ভাইয়ের জন্য দোয়ার আয়োজন করা হয় এফডিসির মসজিদে। এদিন উপস্থিত শিল্পীদের নিজ হাতে ঈদ উপহার তুলে দেন এই অভিনেতা।

ডিপজল বলেন, ‘সবাই জানেন আমার বড় ভাই মারা গেছেন। যার জন্য গরু কিনতে পারিনি। গরু কেনার ১০ লাখ টাকা শিল্পী সমিতির ফান্ডে দিয়েছি। কার্যনির্বাহী কমিটি এই টাকা সবার মধ্যে বিলিয়ে দিবে। উপস্থিত যারা ছিলেন আমি নিজ হাতে তাদের এ উপহার দিয়েছি। উপহার পেয়ে তারা খুশি।’

এই খল অভিনেতা আরও বলেন, ‘আমি আগেও বলেছি এখনো বলছি আমি শিল্পী সমিতিতে নিতে আসিনি দিতে এসেছি। চলচ্চিত্রের কিভাবে ভালো হয় তা নিয়েই কাজ করব৷ আমি চলচ্চিত্র ও শিল্পীদের মঙ্গল চাই। সবাই আমার ভাইয়ের জন্য দোয়া করবেন।’

জানা গেছে, উপস্থিত ৩৫০ জন শিল্পীকে গতকাল এ উপহার তুলে দেওয়া হয়েছে৷ এর মধ্যে শিল্পী সমিতির সদস্য, এফডিসির নিরাপত্তাকর্মী এবং এফডিসির কর্মচারীদের মধ্যে সাড়ে ৬ লক্ষ টাকা প্রদান করা হয়েছে। যারা ঈদ করতে গ্রামে গিয়েছেন তাদের বিকাশের মাধ্যমে এ উপহার পাঠানো হবে।

সর্বশেষ সংবাদ

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে গ্রীষ্মকালীন ছুটি কমল, শনিবার ছুটি বহাল
বিষাক্ত মদপানে নারীসহ ৩৭ জনের মৃত্যু, হাসপাতালে ৫৫
শিল্পীদের ১০ লাখ টাকা ঈদ উপহার দিলেন ডিপজল
বিয়ের আসরে স্ত্রীর দাবি নিয়ে হাজির বরের খালাতো বোন
সুপার এইটে আসতে পেরে খুশি, এখন যা হবে বোনাস: হাথুরুসিংহে
বিএনপি ভারতের সঙ্গে বৈরী সম্পর্ক তৈরি করে দেশের ক্ষতি করেছিল: ওবায়দুল কাদের
যাত্রাবাড়ীতে বাসায় ঢুকে স্বামী-স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যা
নওগাঁয় ঈদের আগে ও পরে সড়কে ঝরে গেল ৫ প্রাণ
বিশ্ব শরণার্থী দিবস আজ
মিয়ানমার থেকে গুলিবর্ষণের ঘটনা জাতিসংঘে উত্থাপন
ক্যারিবীয়দের গুঁড়িয়ে দিয়ে সুপার এইটে শুভসূচনা ইংল্যান্ডের
৩ বিভাগে বৃষ্টির পূর্বাভাস
পালিয়ে মায়ের কাছে যাওয়ার চেষ্টা, সাততলার কার্নিশে আটকে গেল কিশোরী
প্রেমিকা নিয়ে দ্বন্দ্ব, ‘বিশেষ অঙ্গ’ হারালেন দুই বন্ধু
১৫ লাখ টাকায় ছাগল কেনা ইফাত আমার ছেলে নয়: রাজস্ব কর্মকর্তা
ভাসানী বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে কর্মচারীদের মানববন্ধন
সিলেটে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি, পানিবন্দি ৭ লাখ মানুষ
ফুটপাথে ঘুমন্ত যুবককে বিএমডব্লিউ দিয়ে পিষে দিলেন এমপিকন্যা!
ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের সূচি প্রকাশ, প্রথম দিনে মাঠে নামছে ম্যানইউ
সরকারের গণবিরোধী নীতির কারণে সবকিছুর দাম বেড়েছে: রিজভী