বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ | ৮ ফাল্গুন ১৪৩০
বেটা ভার্সন
Dhaka Prokash

আপনার ঠোঁট বলে দেবে আপনি কেমন !

ছবি: সংগৃহীত

একজন মানুষের চোখের চাহনি, চলাফেরার গতি কিংবা কিংবা কথা বলার ধরন দেখেই সেই ব্যক্তি সম্পর্কে অনেক কিছুই বলে দেওয়া সম্ভব । এই যে ধরুন কোন ব্যক্তি দুখি কিনা, ভয় পাচ্ছে কিনা, আবার অতিরিক্ত খুশি কিনা এসব কিছুই বলে দেওয়া সম্ভব তার ফেসিয়াল এক্সপ্রেশন দেখে। আর একেই বলে ফেস রিডিং। আবার ঠোঁট দেখেও কিন্তু মানুষের ব্যক্তিত্ব সম্পর্কে ধারণা করা যায়। ফেস রিডিং বিশেষজ্ঞদের মতে, যাঁদের একই ধরনের ঠোঁট আছে, তাঁরা সমজাতীয় ব্যক্তিত্বের অধিকারী। চলুন কসমোপলিটন ইন্ডিয়া অনুসারে জেনে নেওয়া যাক, কেমন ঠোঁটে কেমন ব্যক্তিত্ব!

পাতলা ঠোঁট
পাতলা ঠোঁটের অধিকারীরা সাধারণত অন্তর্মুখী স্বভাবের হন। তাঁরা নিজেরা নিজেদের সঙ্গ উপভোগ করতে জানেন। তাঁরা উচ্চাকাঙ্ক্ষী, স্বাধীনচেতা আর আত্মনির্ভরশীল। তাঁরা নিজেদের অনুভূতি নিয়ন্ত্রণে অন্যদের চেয়ে অধিক পারদর্শী। হলিউড তারকা এমা ওয়াটসন বা কারস্টেন ডানস্টকে আপনি এ তালিকায় ফেলতে পারেন।

পাতলা ঠোঁটের অধিকারীরা সাধারণত অন্তর্মুখী স্বভাবের হন। এই যেমন এমা ওয়াটসন
ছবি: ইনস্টাগ্রাম থেকে
 
 

 

চওড়া ঠোঁট
চওড়া ঠোঁটের অধিকারীরা সাধারণত বন্ধুসুলভ আর হৃদয়বান হন। তাঁরা মানুষের সঙ্গে মিশতে পছন্দ করেন। ভালোবাসেন পার্টি করতে। পার্টিতে গিয়ে তাঁরা ঠিকই বন্ধু জুটিয়ে ফেলেন। বন্ধুমহলে তাঁদের আলাদা কদর আছে। চওড়া ঠোঁটের অধিকারীরা সাধারণত নেতা হিসেবে ভালো হন। যেকোনো কিছুই তাঁরা দ্রুত শেখেন আর জীবনের প্রতি পদে ‘পারফেকশন’ খোঁজেন।

চওড়া ঠোঁটের অধিকারীরা সাধারণত বন্ধুসুলভ হন, তাঁরা মানুষের সঙ্গে মিশতে ভালোবাসেন। ছবিতে জাহ্নবী কাপুর
ছবি: ইনস্টাগ্রাম থেকে
 

 

ভরাট ঠোঁট
আপনার ঠোঁট যদি হয় ক্রিসি টাইগেন বা প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার মতো, তার মানে আপনি সোশ্যাল বাটারফ্লাই। আপনি আপনার ব্যক্তিত্বের কারণে সহজেই মানুষের মনোযোগ পান। আপনি ‘পিপলস পারসন’। আপনি দলগতভাবে আড্ডা দিতে বেশি ভালোবাসেন। দুজন ব্যক্তি প্রেমে পড়লে যাঁর ঠোঁট বেশি ভরাট, সে ভালোবাসেও বেশি। কোনো নিয়ম, মাত্রা না মেনে ভালোবাসার জন্য নামডাক আছে ভরাট ঠোঁটের অধিকারীদের। ভরাট ঠোঁটের মানুষেরা মজা করতে ভালোবাসেন। ভালোবাসেন উত্তেজনা।

সোশ্যাল বাটারফ্লাই প্রিয়াঙ্কা চোপড়া
ছবি: ইনস্টাগ্রাম থেকে
 
 

 

হৃদয় আকৃতির ঠোঁট
হার্ট শেপ বা হৃদয় আকৃতির ঠোঁটের নারীরা হন নির্ভীক। যেকোনো সিদ্ধান্ত গ্রহণে তাঁরা উৎসাহী ও সাহসী। তাঁরা গ্ল্যামারাস, ছোট ছোট বিষয়কে গুরুত্ব দেন। স্কারলেট জোহানসন বা মেরিলিন মনরোকে আপনি এই ধারায় ফেলতেই পারেন।

মেরিলিন মনরোর মতো হার্ট শেপ বা হৃদয় আকৃতির ঠোঁটের নারীরা হন নির্ভীক
ছবি: ইনস্টাগ্রাম থেকে
 
 

 

ডিফাইনড কিউপিডস বো লিপস
টেইলর সুইফটের মতো কিউপিডস বো ঠোঁটের অধিকারীরা সৃজনশীল হন। তাঁদের স্মৃতিশক্তি হয় খুব প্রখর। মানুষের নাম আর চেহারা মনে রাখার ব্যাপারে তাঁদের নামডাক আছে। তাঁরা ট্রু–ব্লু পারফেকশনিস্ট!

ডিফাইনড কিউপিডস বো ঠোঁটের অধিকারী টেইলর সুইফট
ছবি: ইনস্টাগ্রাম থেকে
 
 

 

 

যৌন নিপীড়নের দায়ে চাকরি হারালেন জাবি শিক্ষক জনি

মাহমুদুর রহমান জনি। ছবি: সংগৃহীত

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) পাবলিক হেল্থ অ্যান্ড ইনফরমেটিক্স বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মাহমুদুর জনিকে নৈতিক অসচ্চরিত্রতার অভিযোগে চাকুরিচ্যুত করেছে কর্তৃপক্ষ।

মঙ্গলবার (২০ ফেব্রুয়ারি) উপাচার্য নুরুল আলমের সভাপতিত্বে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সভায় সাবেক সহকারী প্রক্টর মাহমুদুর রহমান জনির বরখাস্তের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

দীর্ঘ পাঁচ ঘণ্টার সিন্ডিকেট সভা শেষে রাত সাড়ে ৯টায় সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান রেজিস্ট্রার আবু হোসেন। তিনি জানান, তদন্ত কমিটির সুপারিশে সিন্ডিকেট সভায় সর্বসম্মতিক্রমে মাহমুদুর রহমান জনিকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে।

তাকে বরখাস্ত করায় তাৎক্ষণিকভাবে উপাচার্যকে ধন্যবাদ জানিয়েছে নিপীড়ন বিরোধী মঞ্চ। এদিকে এ সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন আন্দোলনকারীরা। এই শিক্ষক বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ছিলেন।

এ বিষয়ে ছাত্র ইউনিয়নের আহ্বায়ক আলিফ মাহমুদ স্বস্তি প্রকাশ করে বলেন, সিন্ডিকেট সঠিক সিদ্ধান্ত নেওয়ায় আমরা সাধুবাদ জানাচ্ছি। মাহমুদুর রহমান জনির দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির মাধ্যমে জাহাঙ্গীরনগর কিছুটা হালকা হলো। তবে নিপীড়নের সঙ্গে জড়িত সবাইকে শাস্তির মুখোমুখি করে বিশ্ববিদ্যালয়কে কলঙ্কমুক্ত করতে হবে। প্রভোস্ট এবং প্রক্টর জড়িত থাকায় তাদেরকে অব্যাহতি দিতে হবে। মাদক সিন্ডিকেটের সঙ্গে জড়িতদের শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে। সারা দেশের ভর্তিচ্ছুদের কথা ভেবে আমরা পরীক্ষা আটকানোর সিদ্ধান্ত থেকে সড়ে দাঁড়াচ্ছি। তবে ভর্তি পরীক্ষার সময় আমাদের গণসংযোগ অব্যাহত থাকবে।

এর আগে, ২০২২ সালের ২১ নভেম্বর মাহমুদুর রহমান জনি ও একই বিভাগে সে সময় নিয়োগ পাওয়া এক প্রভাষকের একটি অন্তরঙ্গ ছবি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন স্থানে পোস্টারিং করা হয়। একইসঙ্গে বিভাগের শিক্ষক পদে আবেদনকারী ৪৩ ব্যাচের আরেক ছাত্রীর সঙ্গে কথাবার্তার অডিও প্রকাশ্যে আসে। যেখানে মাহমুদুর রহমান জনি তাকে জোরপূর্বক গর্ভপাত করানোর কথা শোনা যায়।

এর পরিপ্রেক্ষিতে তার শাস্তির দাবিতে আন্দোলনে নামেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। পরে ২০২২ সালের ৮ ডিসেম্বর একাধিক ছাত্রীর সঙ্গে অনৈতিক সম্পর্কের অভিযোগ তার বিরুদ্ধে প্রাথমিক তদন্ত কমিটি গঠিত হয়।

প্রাথমিক তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন স্পষ্ট নয় দাবি করে একই বছরের ৯ মার্চ পুনরায় গঠিত হয় ‘স্পষ্টীকরণ কমিটি’। গত বছরের ১০ আগস্ট ওই কমিটির প্রতিবেদনে অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা নিশ্চিত হওয়া সাপেক্ষে দক্ষতা ও শৃঙ্খলা অধ্যাদেশ অনুসারে ছয় সদস্য বিশিষ্ট স্ট্রাকচার্ড কমিটি গঠন করা হয়।

সর্বশেষ, স্ট্রাকচার্ড কমিটির তদন্ত চলাকালে ২০২৩ সালের ১৮ সেপ্টেম্বর কুরিয়ারযোগে উপাচার্যকে গালিগালাজ করার অডিও ক্লিপ সংবলিত একটি সিডি সাংবাদিকদের কাছে আসে। ৫২ সেকেন্ডের অডিও ক্লিপে মাহমুদুর রহমান জনিকে উপাচার্যকে অশালীন ভাষায় গালিগালাজ করতে শোনা যায়।

শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সাম্প্রদায়িক বীজবৃক্ষ তুলে ফেলব: ওবায়দুল কাদের

ছবি: সংগৃহীত

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আজকে একমাত্র বাধা হচ্ছে সাম্প্রদায়িকতা। আজকের এই দিনে সাম্প্রদায়িকতার যে বীজবৃক্ষ বিএনপির নেতৃত্বে ডালপালা বিস্তার করেছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সেই বীজবৃক্ষকে সমূলে তুলে ফেলব আমরা। এটাই আমাদের অঙ্গীকার।

বুধবার সকালে শহীদ মিনারে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে তিনি এ কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, একুশে ফেব্রুয়ারি হচ্ছে স্বাধীন বাংলাদেশের ভিত্তি। বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে একুশে ফেব্রুয়ারির ভাষা আন্দোলনের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের ভিত্তি স্থাপিত হয়েছিল। পরে স্বাধিকার সংগ্রামে বিভিন্ন মাইলফলক অতিক্রম করে একাত্তরের স্বত্ব জাতীয়তাবাদের দিকনির্দেশনা আসে বঙ্গবন্ধু ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণের মধ্য দিয়ে। আমরা প্রথমে ভাষা যোদ্ধা। অতঃপর একাত্তরে আমরা বীর মুক্তিযোদ্ধা।

তিনি বলেন, ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর যে বাংলাদেশের বিজয় হয়েছে, সেই বাংলাদেশের উন্নয়ন সমৃদ্ধি আজকে সারাবিশ্বে বিস্ময়ের।

অ্যাটলেটিকোকে হারিয়ে কোয়ার্টারের পথে এগিয়ে ইন্টার মিলান

ছবি: সংগৃহীত

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে শেষ ষোলোর প্রথম লেগের ম্যাচে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদকে ১-০ গোলে হারিয়েছে ইন্টার মিলান। মার্কো আর্নাতোভিচের একমাত্র গোলে কোয়ার্টার ফাইনালে এক পা দিয়ে রাখল ইনজাগির দল।

মঙ্গলবার (২০ ফেব্রুয়ারি) রাতের আরেক ম্যাচে পিএসভি আইন্দহোভেনের বিপক্ষে এগিয়ে গিয়েও ১-১ গোলে ড্র করেছে বরুসিয়া ডর্টমুন্ড।

মিলানের সান সিরো স্টেডিয়ামে মঙ্গলবার রাতে শেষ ষোলোর প্রথম লেগে অ্যাটলেটিকোকে ১-০তে হারিয়েছে ইন্টার। চলতি বছরে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ৯ ম্যাচের সবকটিতে জয় পেল দলটি। প্রতিযোগিতামূলক ফুটবলে এ নিয়ে দ্বিতীয়বার মুখোমুখি হল দল দুটি। আগের সাক্ষাতে ২০১০ সালে উয়েফা সুপার কাপে ২-০ গোলে জিতেছিল অ্যাটলেটিকো।

গোলের জন্য অ্যাটলেটিকোর ৭ শটের মধ্যে লক্ষ্যে ছিল না একটিও। ইন্টারের ১৯ শটের ৫টিই ছিল লক্ষ্যে। ম্যাচে বদলি নামা আর্নাতোভিচের সামনে সুযোগ ছিল হ্যাটট্রিক করারও। একের পর এক দারুণ সব সুযোগ হারান অভিজ্ঞ ফরোয়ার্ড। শেষ পর্যন্ত অবশ্য ব্যবধান গড়ে দেন তিনিই।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে মাঠে নেমে দুই মিনিট পরই সুযোগ পান আর্নাতোভিচ। পোস্টের কাছ থেকে উড়িয়ে মেরে হতাশ করেন ৩৪ বর্ষী অস্ট্রিয়ান ফুটবলার। খানিক পর তার হেড লক্ষ্যে থাকেনি। ৬৩ মিনিটে আরও একটি সূবর্ণ সুযোগ নষ্ট করেন আর্নাতোভিচ। শেষপর্যন্ত ৭৯ মিনিটে জালের দেখা পায় ইন্টার। বক্সের ভেতর মার্টিনেজের থেকে বল পেয়ে জালে জড়ান এ তারকা। ১-০তে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ইতালিয়ান ক্লাবটি।

এদিন চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলোর আরেক ম্যাচে পিএসভি আইন্দহোভেনের বিপক্ষে ১-১ গোলে ড্র করেছে বরুশিয়া ডর্টমুন্ড। ২৪ মিনিটে চমৎকার গোলে বরুশিয়াকে এগিয়ে নেন ডোনিয়েল মালেন। ৫৬তম মিনিটে পেনাল্টি থেকে সমতা টানেন লুক ডি ইয়ং। ১৩ মার্চ ফিরতি লেগ।

এই গোলে এক রেকর্ডও গড়েছেন ২৫ বর্ষী মালেন। নেদারল্যান্ডসের প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে স্বদেশি ক্লাবের বিপক্ষে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের নকআউট পর্বে গোলের কীর্তি গড়েছেন। কিন্তু মালেনের গোলটা ডর্টমুন্ডকে জেতাতে পারেনি। ম্যাটস হুমেলস বলের নিয়ন্ত্রণ নিতে গিয়ে নিজেদের বক্সে ফাউল করে বসেন পিএসভির মালিক টিলম্যানকে। ৫৬ মিনিটে সফল স্পটকিকে সমতা ফেরান পিএসভির অধিনায়ক লুক ডি ইয়ং।

সর্বশেষ সংবাদ

যৌন নিপীড়নের দায়ে চাকরি হারালেন জাবি শিক্ষক জনি
শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সাম্প্রদায়িক বীজবৃক্ষ তুলে ফেলব: ওবায়দুল কাদের
অ্যাটলেটিকোকে হারিয়ে কোয়ার্টারের পথে এগিয়ে ইন্টার মিলান
রাজধানীতে সুন্নতে খতনা করাতে গিয়ে প্রাণ গেল আরেক শিশুর
অবশেষে সরকার গঠনে সম্মত পাকিস্তানের প্রধান দুই দল
ইতালি যাওয়ার পথে নৌকাডুবি, নিহত ৯ জনের মধ্যে ৫ জনই মাদারীপুরের
ভাষা শহীদদের প্রতি রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা
শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস আজ
যৌন নিপীড়নের দায়ে জাবি শিক্ষক জনি স্থায়ী বরখাস্ত
পুত্র সন্তানের বাবা-মা হলেন বিরাট-আনুশকা
জামিনে মুক্ত সাংবাদিক ইলিয়াস হোসেন
যুক্তরাজ্যে ২০০ মিলিয়ন পাউন্ডের সাম্রাজ্য সাবেক ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামানের
উত্তর কোরিয়ার দেওয়া ক্ষেপণাস্ত্র ইউক্রেনে ছুড়েছে রাশিয়া
গৃহকর্মী প্রীতির মৃত্যু: সাংবাদিক আশফাকুল ও তার স্ত্রীর জামিন নামঞ্জুর
ইবনে সিনা হাসপাতালে রাশিয়ান কিশোরীর শ্লীলতাহানি, ওয়ার্ডবয় গ্রেফতার
শাহজালালের থার্ড টার্মিনাল চালুর সময় জানাল বিমানমন্ত্রী
পরীক্ষার্থীরা মুচলেকায় ছাড় পেলেও মাদরাসা প্রধানদের বিরুদ্ধে মামলার নির্দেশ
পরীমণির বিরুদ্ধে মাদক মামলার নতুন সিদ্ধান্ত আসছে
জাবিতে ভর্তি পরীক্ষা শুরু কাল, নিরাপত্তা জোরদার
বগুড়ায় মহিলা আওয়ামী লীগ কর্মীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার