বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪ | ৬ আষাঢ় ১৪৩১
Dhaka Prokash

ডিসেম্বরেই পদত্যাগ করবেন বিএনপির সংসদ সদস্যরা!

সরকারবিরোধী আন্দোলনের অংশ হিসেবে বিএনপি দলীয় সংসদ সদস্যদের পদত্যাগ চান দলের বিভিন্ন ফোরামের নেতারা। এ নিয়ে দলের ভেতরে-বাইরে ব্যাপক আলোচনা চলছে। লন্ডনে অবস্থানরত দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের সঙ্গে দলীয় নেতাদের ভার্চুয়াল বৈঠকে বিষয়টি উত্থাপনও করা হয়েছে।

অন্যদিকে দলীয় সংসদ সদস্যরাও জানিয়েছেন, তারা পদত্যাগের বিষয়ে নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়ে রেখেছেন। দেশের বাইরে অবস্থানরত দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের সম্মতি পেলেই তারা সংসদ থেকে পদত্যাগ করবেন।

গত ১৪ বছরের বেশি সময় ধরে সরকারবিরোধী আন্দোলন করছে বিএনপি। কিন্তু এখন পর্যন্ত গন্তব্যে পৌঁছাতে পারেনি। এবার বিএনপি সরকারবিরোধী সমমনা রাজনৈতিক দলগুলোকে নিয়ে নতুন করে আন্দোলন শুরু করেছে। ইতোমধ্যে ছোট-বড় বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের সঙ্গে একাধিক বৈঠকও করেছে। তত্ত্বাবধায়ক সরকার, প্রতিষ্ঠা, নির্বাচন কমিশন ঢেলে সাজানো এবং অবাধ, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের দাবিতে বিএনপি গত কয়েক মাস ধরে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করেছে। সরকার পতনের আন্দোলনের অংশ হিসেবে বিভিন্ন কর্মসূচির পাশাপাশি বিএনপি দেশের বিভাগীয় শহরগুলোতে বড় গণজমায়েত করছে। ইতোমধ্যে চট্টগ্রাম, ময়মনসিংহ ও খুলনায় সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। আগামীকাল শনিবার (২৯ অক্টোবর) রংপুরে বিভাগীয় সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে।

বিএনপি সূত্রে জানা গেছে, সরকারবিরোধী আন্দোলনকে একটা পর্যায়ে নিতে দলের নেতা-কর্মীদের চাঙা করার কর্মসূচি হিসেবে এসব সমাবেশ করা হচ্ছে। এর ধারাবাহিকতায় আগামী ১০ ডিসেম্বর রাজধানী ঢাকায় বড় গণজমায়েতের প্রস্তুতি নিচ্ছে দলটি। ওই সমাবেশ থেকেই সরকার পতনের চূড়ান্ত কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।

দলের একাধিক দায়িত্বশীল নেতা জানান, ঢাকার মহাসমাবেশ থেকে আন্দোলনের বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ ঘোষণা আসার আগেই সংসদ থেকে দলীয় সদস্যদের পদত্যাগ চান দলের কেন্দ্রীয় নেতা থেকে শুরু করে তৃণমূলের নেতা-কর্মীরা। তৃণমূল থেকে জোরালোভাবে এই দাবি উত্থাপন হয়েছে।

বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতারা এ বিষয়ে নীতিগত সিদ্ধান্তও নিয়েছেন বলে জানা গেছে। যদিও পদত্যাগের দিনক্ষণ এখনো চূড়ান্ত হয়নি। ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান নীতিনির্ধারণী ফোরামের সঙ্গে পরবর্তী বৈঠকে এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন। প্রশ্ন উঠেছে, কয়েকজন সংসদ সদস্য পদত্যাগ করলে রাজনীতিতে কতটুকু ইমপ্যাক্ট ফেলতে পারবে? তারপরও বিএনপি মনে করছে যে, সংসদ থেকে পদত্যাগ সরকারের উপর চাপ সৃষ্টিতে কিছুটা হলেও সহায়ক হবে।

বিএনপির কেন্দ্রীয় দপ্তর সূত্রে জানা গেছে, দলের স্থায়ী কমিটির বৈঠকে আলোচ্যসূচির বাইরে বিএনপি দলীয় এমপিদের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন স্থায়ী কমিটির দু'জন নেতা। এর আগে বিএনপির শীর্ষ নেতৃত্বের সঙ্গে জেলা নেতাদের বৈঠকেও একই প্রশ্ন উঠেছিল। তাই দলটির নীতিনির্ধারকদের কয়েকজনও মনে করছেন, সংসদ সদস্যদের সংসদ থেকে পদত্যাগের সময় এসেছে। এরই প্রেক্ষিতে স্থায়ী কমিটির সভায় প্রস্তাব দেওয়া হয় ডিসেম্বরের আগে সংসদ সদস্যদের পদত্যাগের। তাতে নীতিগত সম্মতিও দেন নেতারা। দলের পক্ষ থেকে সংসদ-সদস্যদেরকে পদত্যাগের ব্যাপারে অবহিত করা হয়েছে। তবে এই মুহূর্তে পদত্যাগ করলে সরকার এসব আসনে উপনির্বাচন করতে পারে। তাই এমন সময় পদত্যাগ করবে যখন উপনির্বাচন করার সুযোগ থাকবে না।

জানতে চাইলে বগুড়া-৪ আসনের সংসদ সদস্য মোশারফ হোসেন ঢাকাপ্রকাশ-কে বলেন, ‘আমরা সংসদ থেকে পদত্যাগ করতে প্রস্তুত আছি। পদত্যাগের ইস্যুতে সংসদ সদস্যরা ও নীতিনির্ধারণী ফোরাম স্থায়ী কমিটির নেতারা নীতিগত সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এখন দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান যখন পদত্যাগ করতে বলবেন তখনই আমরা জাতীয় সংসদ থেকে পদত্যাগ করব। এখন বিভাগীয় পর্যায়ে বিএনপির গণসমাবেশ চলছে। ডিসেম্বরে ঢাকায় মহাসমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। তাই কবে, কখন পদত্যাগ করব এই ব্যাপারে কোনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আমরা এখনো পাইনি। তবে পদত্যাগের সিদ্ধান্ত ঢাকায় মহাসমাবেশের আগে কিংবা পরে যেকোনো সময় হতে পারে।’

এদিকে ২০০৮ সালের নির্বাচনে বিএনপি ক্ষমতাচ্যুত হয়। এরপর ২০১৪ সালের নির্বাচনে অংশ নেয়নি। ২০১৮ সালে অংশ নিলেও ভরাডুবি হয়। যদিও সরকারের দমন-পীড়ন, মামলা-হামলায় বিএনপি অনেকটা দিশেহারা। দলটির নেতৃত্বেও বড় রকমের সংকট রয়েছে। চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া দুর্নীতি মামলায় দণ্ড নিয়ে সরকারের শর্ত সাপেক্ষে বাসায় অবস্থান করছেন। ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন তারেক রহমানে ২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলা মামলায় দণ্ড নিয়ে লন্ডনে আছেন।

বিএনপি সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী ঢাকাপ্রকাশ-কে বলেন, ‘সংবিধানের কিছু সুনির্দিষ্ট বিষয় আছে যেগুলো সংশোধন-সংযোজন-বিয়োজন করতে হলে পূর্বের ন্যায় কিছু পদক্ষেপ নেওয়ার প্রয়োজন পড়ে।’

আওয়ামী লীগও তো সরকারবিরোধী আন্দোলন করতে গিয়ে সংসদ থেকে পদত্যাগ করেছিল। বিএনপি কি সেই পথে হাঁটছে? এমন প্রশ্নের জবাবে এই বিএনপি নেতা বলেন, ‘দেশ ও জাতির জন্য মঙ্গল হয় এমন কাজ করতে গিয়ে যদি কাউকে অনুসরণ-অনুকরণ করার মতো পরিবেশ পরিস্থিতি সৃষ্টি হয় তাতে দোষের তো কিছু দেখছি না।’

এনএইচবি/এসজি

Header Ad

এনবিআরের মতিউরই ছাগলকাণ্ডের ইফাতের বাবা: এমপি নিজাম উদ্দিন

ছবি: সংগৃহীত

কোরবানি উপলক্ষে ১৫ লাখ টাকার ছাগল কিনে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে আলোচিত হয়েছেন মুশফিকুর রহমান ইফাত। একাধিক ফেসবুক পোস্ট, কয়েকটি গণমাধ্যমে দাবি করা হয়েছে ইফাতের বাসা ধানমণ্ডি। তিনি জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) কাস্টমস, এক্সাসাইজ ও ভ্যাট আপীলাত ট্রাইবুনাল প্রেসিডেন্ট ড. মো. মতিউর রহমানের ছেলে।

তবে মতিউর রহমানের দাবি, ইফাত নামে তার কোনো ছেলে নেই। এদিকে মতিউর রহমান ইফাতের সঙ্গে তার কোনো সম্পর্কই নেই বলে দাবি করলেও আজ বৃহস্পতিবার (২০ জুন) ফেনী-২ আসনের সংসদ সদস্য নিজাম উদ্দিন হাজারী দেশের একটি গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, ইফাত তার মামাতো বোনের সন্তান। আর মতিউর রহমানই তার বাবা।

নিজাম উদ্দিন হাজারী বলেন, ‘ইফাত এনবিআর সদস্য মতিউর রহমানের দ্বিতীয় পক্ষের ছেলে। ধারণা করছি, রাগ করে মতিউর রহমান ইফাতের সঙ্গে সম্পর্ক অস্বীকার করেছেন। মতিউর রহমান নিয়মিত দ্বিতীয় পক্ষের স্ত্রীর নানা পারিবারিক অনুষ্ঠানে অংশ নেন।’

এর আগে ওই গণমাধ্যমে মতিউর রহমান বলেন, ছাগলকাণ্ডে ভাইরাল হওয়া ওই ছেলেকে আমি চিনি না। সে আমার সন্তান নয়। আমার নাম জড়ানোয় আমি এবং আমার পরিবার অনেক বিব্রত।

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি ছাগল নিয়ে ছবি তুলে ভাইরাল হওয়া যুবক মুশফিকুর রহমান ইফাত যে মোবাইল নম্বরটি ব্যবহার করেছেন সেটি তার মা শাম্মি আখতার শিবলীর জাতীয় পরিচয়পত্রের মাধ্যমে তোলা। সেই পরিচয়পত্রে শাম্মি আখতারের স্বামীর নামের জায়গায় উল্লেখ আছে মতিউর রহমান। যদিও জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সদস্য মতিউর রহমানের দাবি, এটি অন্য কোনো মতিউর রহমান।

তবে ইফাতদের এক সময়ের গাড়িচালকও সময় সংবাদকে জানান, তার বাবা জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের কর্মকর্তা মতিউর রহমান। এদিকে গুঞ্জন উঠেছে এরমধ্যে হয়তো দেশ ছেড়েছেন মুশফিকুর রহমান ইফাত।

কোরবানির ছাগল ছবি নিয়ে ভাইরাল হওয়া যুবক মুশফিকুর রহমান ইফাতের বাবা আসলে কে? কী তার নাম-পরিচয়? জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সদস্য মতিউর রহমানের দাবি ইফাত তার ছেলে তো দূরের কথা এ নামে তার কোনো আত্মীয় স্বজনও নেই। মতিউর রহমানের নামই বা আসলো কীভাবে?

এ নিয়ে মতিউর রহমান সময় সংবাদকে মোবাইল ফোনে বলেন, আমি নিজেও আর্শ্চয হয়েছি, এমনভাবে ট্রোল হচ্ছে, যেটা আমার পরিবারে জন্য ক্ষতিকর। আমার ছেলে যুক্তরাষ্ট্রে অর্থনীতি নিয়ে পড়াশোনা করে এখন দেশে আছে। কিন্তু জীবনে দামি গরু কেনা তো দূরের কথা, একটু ভিন্ন রকমের ছেলে সে। এসব কাজের কোনো প্রশ্নই ওঠে না। আপনারা খোঁজ নিলে জানবেন।

৮ জুলাই পর্যন্ত স্থগিত সিলেট বিভাগের এইচএসসি পরীক্ষা

ছবি: সংগৃহীত

পাহাড়ি ঢল ও গত কয়েকদিনের ভারী বর্ষণে আকস্মিক বন্যার কবলে পড়েছে সিলেট। প্লাবনে তলিয়ে গেছে বিভাগের সবকটি জেলার বেশিরভাগ এলাকা। পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন বিভাগের প্রায় ১৬ লাখ বাসিন্দা। এ অবস্থায় বিভাগটিতে আসন্ন এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা আগামী ৮ জুলাই পর্যন্ত স্থগিত করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২০ জুন) শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় কমিটির সভাপতি এবং ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক তপন কুমার সরকার তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেছেন, সিলেট বিভাগের বিভিন্ন জেলায় বন্যা পরিস্থিতি বিরাজ করছে। সেখানে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো আশ্রয়কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে। পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার মতো পরিস্থিতিতেও নেই শিক্ষার্থীরা। সার্বিক দিক বিবেচনায় ৮ জুলাই পর্যন্ত পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে। তবে ৯ জুলাই থেকে যে পরীক্ষাগুলো হওয়ার কথা ছিল সেগুলো যথারীতি হবে।

শিক্ষা বোর্ডের প্রকাশিত রুটিন অনুযায়ী, আগামী ৩০ জুন থেকে দেশব্যাপী একযোগে এই পরীক্ষা শুরু হওয়ার কথা। এদিন বাংলা প্রথমপত্রের পরীক্ষা দিয়ে চলতি বছরের এইচএসসি পরীক্ষা শুরু হবে। অন্যদিকে কুরআন মাজিদ পরীক্ষা দিয়ে শুরু হবে আলিম পরীক্ষা। আর কারিগরি বোর্ডের অধীনে এইচএসসির (বিএম/বিএমটি) বাংলা-২ বিষয়ের পরীক্ষা হবে।

৮ জুলাই পর্যন্ত পরীক্ষা স্থগিতের সিদ্ধান্ত গৃহীত হওয়ায় সিলেট বোর্ডে এইচএসসির বাংলা প্রথমপত্র ও দ্বিতীয়পত্র এবং ইংরেজি প্রথমপত্র ও দ্বিতীয়পত্র পরীক্ষা আপাতত হবে না। পরবর্তী সময়ে এ চারটি বিষয়ের পরীক্ষার নতুন সময়সূচি জানিয়ে দেবে শিক্ষা বোর্ড।

চলতি বছর সিলেট বোর্ডে এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষায় ৩০৯টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের মোট ৮২ হাজার ৪১৭ জন পরীক্ষার্থী রয়েছেন।

মিয়ানমারকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, আমরাও পাল্টা গুলি চালাবো: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

বক্তব্য রাখছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। ছবি: সংগৃহীত

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, মিয়ানমার আর্মি ও আরাকান আর্মিকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, তারা যাতে বাংলাদেশের দিকে আর গুলি না চালায়। তা না হলে আমরাও পাল্টা গুলি চালাবো।

বৃহস্পতিবার (২০ জুন) সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নিজ দফতরে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

রাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, মিয়ানমারে বিভিন্ন জাতি-গোষ্ঠী সরকারের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করছে। আমরা যতদূর শুনেছি আরাকান রাজ্যে আরাকান আর্মি অনেক এলাকা দখল করে নিয়েছে। সেজন্য মিয়ানমারের যে বর্ডার গার্ড পুলিশ (বিজিপি) তারা আত্মরক্ষার্থে আমাদের এলাকায় পালিয়ে আসছে। কাজেই সেখানকার অবস্থা কী, সেটা আমরা বলতে পারব না। তবে এটুকু বলতে পারি, তারা মাঝে মাঝে ভুল করে আমাদের বিজিবি দলের ওপর গুলি করেছিল। সেটা তাদের জানিয়েছি। তারা যেটা বলছে যে সুনির্দিষ্টভাবে বাংলাদেশের পতাকা যেন উড়িয়ে যায়, তাহলে আর কেউ গুলি করবে না।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, টেকনাফ থেকে সেন্টমার্টিন যেতে হলে আমাদের এলাকায় নাফ নদী কিছু নাব্য হারিয়েছে। কাজেই সেখান দিয়ে আমাদের নৌ চলাচল করতে পারে না। মিয়ানমারের অংশ দিয়ে যেতে হয়। যে কারণে এ বিপত্তিটা ঘটেছে।

তিনি বলেন, কখনো মিয়ানমার আর্মি, কখনো আরাকান আর্মি ফায়ার ওপেন করে। আমরা উভয়কেই বলে দিয়েছি তারা আর যদি গুলি করে, আমরাও পাল্টা গুলি করব। ওখানে থেকে আর কোনো গোলাগুলি হচ্ছে না। এখানে মিয়ানমারের যে দুটি জাহাজ ছিল সেগুলো ফেরত নিয়ে গেছে। আমরা আশা করছি, সেখানে আর গুলি হবে না। তারপরও আমাদের যারা ওই পথ দিয়ে যাতায়াত করছেন, তারা সাবধানতা অবলম্বন করবেন।

সর্বশেষ সংবাদ

এনবিআরের মতিউরই ছাগলকাণ্ডের ইফাতের বাবা: এমপি নিজাম উদ্দিন
৮ জুলাই পর্যন্ত স্থগিত সিলেট বিভাগের এইচএসসি পরীক্ষা
মিয়ানমারকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, আমরাও পাল্টা গুলি চালাবো: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে কর্মসূচি ঘোষণা
যমুনা নদীতে বাড়ছে পানি, ভাঙন আতঙ্কে নদীপাড়ের মানুষ
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে গ্রীষ্মকালীন ছুটি কমল, শনিবার ছুটি বহাল
বিষাক্ত মদপানে নারীসহ ৩৭ জনের মৃত্যু, হাসপাতালে ৫৫
শিল্পীদের ১০ লাখ টাকা ঈদ উপহার দিলেন ডিপজল
বিয়ের আসরে স্ত্রীর দাবি নিয়ে হাজির বরের খালাতো বোন
সুপার এইটে আসতে পেরে খুশি, এখন যা হবে বোনাস: হাথুরুসিংহে
বিএনপি ভারতের সঙ্গে বৈরী সম্পর্ক তৈরি করে দেশের ক্ষতি করেছিল: ওবায়দুল কাদের
যাত্রাবাড়ীতে বাসায় ঢুকে স্বামী-স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যা
নওগাঁয় ঈদের আগে ও পরে সড়কে ঝরে গেল ৫ প্রাণ
বিশ্ব শরণার্থী দিবস আজ
মিয়ানমার থেকে গুলিবর্ষণের ঘটনা জাতিসংঘে উত্থাপন
ক্যারিবীয়দের গুঁড়িয়ে দিয়ে সুপার এইটে শুভসূচনা ইংল্যান্ডের
৩ বিভাগে বৃষ্টির পূর্বাভাস
পালিয়ে মায়ের কাছে যাওয়ার চেষ্টা, সাততলার কার্নিশে আটকে গেল কিশোরী
প্রেমিকা নিয়ে দ্বন্দ্ব, ‘বিশেষ অঙ্গ’ হারালেন দুই বন্ধু
১৫ লাখ টাকায় ছাগল কেনা ইফাত আমার ছেলে নয়: রাজস্ব কর্মকর্তা